বাংলাদেশ রবিবার 19, August 2018 - ৪, ভাদ্র, ১৪২৫ বাংলা

এই সরকারের অধীনে নির্বাচনব্যবস্থা যে প্রহসনে পরিণত হয়েছে তা আবারো প্রমাণিত হয়েছে : ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশিত ১৬ মে, ২০১৮ ১৫:৫৫:০৫

: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই সরকারের অধীনে নির্বাচনব্যবস্থা প্রহসনে পরিণত হয়েছে তা আবারো প্রমাণিত হয়েছে খুলনা নির্বাচনের মাধ্যমে। আর এই কারণেই আমরা জাতীয় নির্বাচনে নির্দলীয় নির্বাচনকালীন সরকারের দাবি জানিয়ে আসছি। খুলনায় ভোট পর্যবেক্ষণ শেষে মঙ্গলবার রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন। তিনি বলেছেন, সেনাবাহিনী থাকলে খুলনার নির্বাচনে এই দশা হতো না। ৫০ ভাগেরও বেশি কেন্দ্রে ক্ষমতাসীনরা ভোট ডাকাতি করতে পারত না। জয়-পরাজয় আলাদা বিষয়। মির্জা ফখরুল বলেন, প্রতিপক্ষ নির্বাচন করতে পারবে না। এজেন্টদের বের করে দেওয়া হবেÍএটা নির্বাচন হতে পারে না। ফখরুলের অভিযোগ, খুলনায় জনগণের চোখে ধুলা দিয়ে গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা হয়েছে। সব সময় বলা হয়েছে কোথাও কোনো সমস্যা নেই। বিএনপি মহাসচিব বলেন, মনে হয়েছে, সিইসি বিএনপির প্রতিপক্ষ হিসেবে কাজ করছেন। এই সরকার পুলিশকে বিরোধী দলের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। বেশির ভাগ জায়গায় পুলিশই উদ্যোগ নিয়েছে। তাদের উদ্যোগে এসব ঘটনা ঘটছে; যা দেশ-জাতির জন্য ভয়াবহ। মির্জা ফখরুল বলেন, এই পাঁচ বছরে তারা যতগুলো নির্বাচন করেছে, কিছু নির্বাচন ছাড়া সব নির্বাচনই তারা নিয়ন্ত্রণ করেছে। নির্বাচন কমিশনকে বাধ্য করেছে। তারা নির্বাচনব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে। এখন নির্বাচনব্যবস্থার ওপর কারও আস্থা থাকছে না। খুলনায় বিএনপি খুব শক্তিশালী সংগঠন দাবি করে ফখরুল বলেন, ‘গত নির্বাচনে আমাদের প্রার্থী বহু ভোটে জয়লাভ করেছিলেন। খুলনা মহানগর আসনে নজরুল ইসলাম মঞ্জু বারবার নির্বাচিত হয়েছেন। শুধু নির্বাচন কমিশনের ব্যর্থতার কারণে, তাদের অযোগ্যতার কারণে, পুলিশি হামলা ও নির্যাতনের কারণে সেখানে আজ বিএনপি দাঁড়াতে পারেনি। ফখরুলের অভিযোগ, প্রতিটি কেন্দ্রের সামনে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতা-কর্মী সন্ত্রাসীরা বুকে নৌকার ব্যাজ লাগিয়ে সাধারণ ভোটারদের পর্যন্ত আসতে দেয়নি। বিএনপির কর্মীদের দাঁড়াতে দেয়নি। পোলিং এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। নৌকায় সিল মেরেছে। এ অবস্থায় বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি। মির্জা ফখরুল বলেন, এই নির্বাচন কমিশন অযোগ্য। এটা পুনর্গঠন করতে হবে।

 

 

 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

সহজ শর্তের ঋণ আর প্রয়োজন হয় না : অর্থমন্ত্রী

সহজ শর্তের ঋণ আর প্রয়োজন হয় না : অর্থমন্ত্রী

উন্নয়নের জন্য দাতা সংস্থার কাছ থেকে সহজ শর্তে ঋণ নেয়ার এখন প্রয়োজন হয় না বলে

পুনঃনিরীক্ষণে জিপিএ-৫ পেলো ৩৮৬, ফেল থেকে পাস ৭৭৮

পুনঃনিরীক্ষণে জিপিএ-৫ পেলো ৩৮৬, ফেল থেকে পাস ৭৭৮

সারা দেশের ১০টি শিক্ষা বোর্ডের মধ্যে আটটি শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসি ও সমমান ফল পুনঃনিরীক্ষণের ফলাফল

সুন্দরবনে রেড এলার্ট জারি, ছুটি বাতিল

সুন্দরবনে রেড এলার্ট জারি, ছুটি বাতিল

পবিত্র ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে সুন্দরবনের খুলনা ও সাতক্ষীরা রেঞ্জের বনজ সম্পদ পাচার রোধসহ যে


৪০তম বিসিএসে ২ হাজার ক্যাডার নিয়োগ হবে

৪০তম বিসিএসে ২ হাজার ক্যাডার নিয়োগ হবে

৪০তম বিসিএসে বিভিন্ন পদে ২ হাজারের বেশি ক্যাডার পদে নিয়োগের সুপারিশ করবে সরকারি কর্ম কমিশন

বাস কাউন্টারগুলোতে যাত্রীর চাপ বাড়ছে

বাস কাউন্টারগুলোতে যাত্রীর চাপ বাড়ছে

 পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, ফেনী, নোয়াখালী

সাভারে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

সাভারে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনি মহল্লার করিম মঞ্জিলের সামনে মো. সোহেল ( ৩৫) নামে এক যুবককে


মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা : পৌনে ৮ কোটি টাকা পেলো ৪৯৬ হাসপাতাল

মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা : পৌনে ৮ কোটি টাকা পেলো ৪৯৬ হাসপাতাল

মুক্তিযোদ্ধাদের বিনামূল্যে চিকিৎসায় সাত কোটি ৮২ লাখ টাকা পেলো ৪৯৬টি সরকারি হাসপাতাল। দেশের সরকারি হাট-বাজারের

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে অসুস্থ প্রতিযোগিতা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে অসুস্থ প্রতিযোগিতা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে চলছে লাভ-ক্ষতির হিসাব। পাশাপাশি অসুস্থ প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতা থেকে উত্তরণে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান আর নেই

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান আর নেই

: ৮০ বছর বয়সে থেমে গেল জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের প্রাণ-স্পন্দন। মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম সিএনএন



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ





সাভারে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

সাভারে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

১৮ অগাস্ট, ২০১৮ ১৮:৩৫





ইয়াবাসহ র‌্যাবের জালে এএসআই

ইয়াবাসহ র‌্যাবের জালে এএসআই

১৮ অগাস্ট, ২০১৮ ১৫:৪৫