বাংলাদেশ রবিবার 19, August 2018 - ৪, ভাদ্র, ১৪২৫ বাংলা

আরসা’র ‘রহস্যজনক’ নীরবতা, প্রশ্নবিদ্ধ অস্তিত্ব

ফুলকি ডেস্ক | প্রকাশিত ১৭ মে, ২০১৮ ১৬:২০:৪০

 জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত ১৪ মে আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। মিয়ানমারের মন্ত্রী ও দেশটির সংবাদমাধ্যমে দাবি করা হচ্ছে, আরসা সদস্যরা রোহিঙ্গাদের ফিরতে বাধা দিচ্ছে, ফিরলে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। যদিও ৩১ জানুয়ারির পর থেকে আরসা কোনও বিবৃতি দিচ্ছে না। এমনকি তাদের টুইটারেও কোন পোস্ট পাওয়া যাচ্ছে না। সংগঠনটির এমন নীরবতাকে ‘রহস্যজনক’ মনে করা হচ্ছে এবং রোহিঙ্গাদের বিদ্রোহী এই সংগঠনের অস্তিত্বও হয়ে পড়ছে প্রশ্নবিদ্ধ। গত বছরের ২৫ আগস্ট রাখাইনে নিরাপত্তা বাহিনীর তল¬াশি চৌকিতে সশস্ত্র হামলার পর রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে পূর্বপরিকল্পিত ও কাঠামোবদ্ধ সহিংসতা জোরালো করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। ওই হামলায় দায় স্বীকার করে আরসা। খুন, ধর্ষণ আর অগ্নিসংযোগের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয় প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠেছে জাতিগত নিধনযজ্ঞ চালানোর।

হংকংভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এশিয়া টাইমস জানায়, গোপন সশস্ত্র সংগঠন হলেও আরসা’র সামাজিক মাধ্যমে উপস্থিতি ছিল উলে¬খযোগ্য। বিশেষ করে টুইটারে সংগঠনটি নিয়মিত পোস্ট করত। ২০১৭ সালেও টুইটারে তারা বেশ সক্রিয় ছিল। কিন্তু গত তিন মাস ধরে তারা একেবারে নীরব রয়েছে। জাতিসংঘের তদন্ত কর্মকর্তারা তাদের বিবৃতিতে ২৫ আগস্টের হামলায় আরসাকে ‘কথিত’ বলে উলে¬খ করা শুরু করেছে। এতে করে সহিংসতা নিয়ে মিয়ানমার সরকারের বক্তব্যের সত্যতা নিয়ে সন্দেহ তৈরি হচ্ছে। এশিয়া টাইমস আরও জানায়, ২০১৬ সালের অক্টোবরে হারকাহ আল-ইয়াকিন (ফেইথ মুভমেন্ট) থেকে নিজেদের রোহিঙ্গা প্রতিরোধের সংগঠন হিসেবে রূপান্তর ঘটায় আরসা। এদের প্রাথমিক বিবৃতিতে জিহাদি জোশ থাকলেও ইংরেজিতে দেওয়া তাদের বক্তব্যে সন্ত্রাসবাদের চেয়ে স্বাধিকারের প্রতিরোধ চেতনা স্থান পায়। ২০১৭ সালের ২৯ মার্চ থেকে ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত আরসা ২৭টি বিবৃতি দিয়েছে।

মিয়ানমারের সংবাদমাধ্যম ইরাবতী এক প্রতিবেদনে জানায়, ৩১ জানুয়ারি আরসা’র সর্বশেষ টুইট ছিল অন্যান্য সশস্ত্র গোষ্ঠী, ডাকাত, মানবপাচার চক্র, মাদকপাচার চক্র ও মিয়ানমার সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা পাওয়া সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর প্রতি যারা আরসা নাম নিয়ে কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে। ওই টুইটে তারা আরসা’র ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন না করার আহ্বান জানায়। ইয়াঙ্গুনভিত্তিক রাজনৈতিক বিশে¬ষক ইউ মাউং মাউং সোয়ে জানান, আন্তর্জাতিকভাবে রোহিঙ্গা ইস্যু ভালো অবস্থান অর্জন করারই প্রতিফলন হতে পারে আরসার নীরবতা। তিনি ব্যাখ্যা করে বলেন, রোহিঙ্গা লবিস্টদের জন্য আরসা ছিল স্থানীয়  ও আন্তর্জাতিকভাবে মনোযোগ আকর্ষণের একটি হাতিয়ার। কিন্তু এখন ইস্যুটি যখন জাতিসংঘ পর্যন্ত পৌঁছে গেছে। তাই ব্যাপক মানুষের পালিয়ে যাওয়া যখন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টি আকর্ষণে সমর্থ হয়েছে তখন আরসা নিজেদের আড়াল করে নিচ্ছে। তারা যদি সশস্ত্র গোষ্ঠী হিসেবে প্রচারণা অব্যাহত রাখে তাহলে আরসা সমালোচনার মুখে পড়তে পারে। এই বিশে¬ষক মনে করেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বিগ্ন কমে আসলে আবারও সক্রিয় হবে আরসা। আরসার নীরবতার সম্ভাব্য কারণ হিসেবে এশিয়া টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আরসা’র অস্তিত্ব নেই বলে যে কথা প্রচলিত সেটাকে উসকে দিচ্ছে তাদের এই নীরবতা। রোহিঙ্গা ও পশ্চিমা মানবাধিকারকর্মীরা ২৫ আগস্টের হামলাকে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পরিচালিত ‘ফলস ফ্ল্যাগ’ হিসেবে বলা শুরু করেছেন। এর মধ্য দিয়ে মিয়ানমার সেনাবাহিনী তাদের ক্লিয়ারেন্স অভিযানকে বৈধতা দিতে চেয়েছে।

দ্বিতীয় কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, বিদ্রোহীদের সংগঠনটি হয়ত নিজেদের পুনরায় সংগঠিত করছে এবং নতুন হামলার জন্য প্রতিবেশী বাংলাদেশে প্রস্তুতি নিচ্ছে। এই সময় তারা প্রকাশ্য যোগাযোগ রাখতে চায় না। মিয়ানমারের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের সদস্য দাউ পিওন কাথি নায়েঙ্গ সতর্ক করে বলেছেন, এখন নীরব থাকলেও যে কোনও সময় আরসা ফিরে আসবে। তিনি বলেন, এই ইস্যুতে আরসার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। তাদের নীরবতা রহস্যজনক। মিয়ানমার ও অন্যান্য আঞ্চলিক দেশের উচিত হবে না তাদের নজরদারির বাইরে রাখা।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

জামিন চেয়েছেন শহিদুল আলম, শুনানি ১১ সেপ্টেম্বর

জামিন চেয়েছেন শহিদুল আলম, শুনানি ১১ সেপ্টেম্বর

তথ্যপ্রযুক্তি আইনে দায়ের করা মামলায় আলোকচিত্রী শহিদুল আলমের জামিন আবেদন করেছেন তার আইনজীবী। জামিন শুনানির

ঢাকার মানহানির মামলায় খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট

ঢাকার মানহানির মামলায় খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট

  : ঢাকার মানহানির মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে ছয় মাসের জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার

সহিংসতায় বিএনপিকে জড়াতে অপকৌশলের আশ্রয় নিয়েছে: রিজভী

সহিংসতায় বিএনপিকে জড়াতে অপকৌশলের আশ্রয় নিয়েছে: রিজভী

 ‘ওবায়দুল কাদের সাহেবরা শাক দিয়ে মাছ ঢাকতে পারছেন না বলেই এখন প্রলাপ বকতে শুরু করেছেন,


আমরা গর্তের ভেতর থাকা মানুষ : ড. ইউনূস

আমরা গর্তের ভেতর থাকা মানুষ : ড. ইউনূস

  স্টাফ রিপোর্টার : আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পক্ষে এবার মুখ খুললেন নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূস।

জিহাদের পরিবারকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণে হাইকোর্টের রায় আপিল বিভাগে বহাল

জিহাদের পরিবারকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণে হাইকোর্টের রায় আপিল বিভাগে বহাল

রাজধানীর শাজাহানপুরে পরিত্যক্ত ম্যানহোলে পড়ে নিহত শিশু জিহাদের পরিবারকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টের

সংলাপের সম্ভাবনা নাই, নির্বাচন হবে ক্ষমতাসীন দলের অধীনে: তোফায়েল

সংলাপের সম্ভাবনা নাই, নির্বাচন হবে ক্ষমতাসীন দলের অধীনে: তোফায়েল

: আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন ক্ষমতাসীন সরকারের অধীনেই হবে এবং এ নিয়ে কারো সঙ্গে কোনো


তিন সিটিতে ভোট শেষ, চলছে গণনা

তিন সিটিতে ভোট শেষ, চলছে গণনা

বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্য দিয়ে রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে।

নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই বিএনপি অভিযোগ করছে: হানিফ

নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই বিএনপি অভিযোগ করছে: হানিফ

 তিন সিটিতে (রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট) জনগণ উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট হচ্ছে দাবি করে আওয়ামী লীগের

পায়ুপথে ইয়াবা চালান করেও ধরা খেলেন মাদ্রাসা শিক্ষক

পায়ুপথে ইয়াবা চালান করেও ধরা খেলেন মাদ্রাসা শিক্ষক

 র‌্যাব-১১ এর মাদক বিরোধী অভিযানে এবার সাবেক এক শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে নারায়ণগঞ্জের



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ





সাভারে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

সাভারে যুবককে কুপিয়ে হত্যা

১৮ অগাস্ট, ২০১৮ ১৮:৩৫





ইয়াবাসহ র‌্যাবের জালে এএসআই

ইয়াবাসহ র‌্যাবের জালে এএসআই

১৮ অগাস্ট, ২০১৮ ১৫:৪৫