বাংলাদেশ মঙ্গলবার 19, June 2018 - ৫, আষাঢ়, ১৪২৫ বাংলা

বনানীর সিদ্দিক মুন্সি হত্যা : আরেক হত্যাকারী গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশিত ১৪ জুন, ২০১৮ ১১:২৯:৪০

রাজধানীর বনানীতে বহুল আলোচিত রিক্রুইটিং এজেন্সির মালিক সিদ্দিক মুন্সি হত্যাকাণ্ডে অংশগ্রহণকারী নূর আমিন ওরফে নূরাকে (২৭) গ্রেফতার করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

বুধবার দিবাগত রাতে রাজধানীর বাড্ডা থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে ডিবি উত্তরের গুলশান জোনাল টিম। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদানের জন্য নূরাকে সকালে আদালতে হাজির করা হবে।

অভিযানের নেতৃত্বদানকারী ডিবি উত্তরের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মো. গোলাম সাকলায়েন  গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ২০১৭ সালের ১৪ নভেম্বর রাতে বনানীর ৪ নম্বর রোডের বি-ব্লকের ১১৩ নম্বর বাড়ির এমএস মুন্সি ওভারসিজ (রিক্রুটিং এজেন্সি) প্রতিষ্ঠানের মালিক সিদ্দিক হোসেন মুন্সিকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। পরদিন (১৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বানানী থানায় নিহতের স্ত্রী জোৎস্না বেগম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা চারজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এডিসি মো. গোলাম সাকলায়েন বলেন, গ্রেফতারকৃত নূর আমিন ওরফে নূরা দীর্ঘদিন যাবৎ বাড্ডা, গুলশান, রামপুরা, এলাকায় শীর্ষ সন্ত্রাসী আরিফ, নূরী, শরীফ, পিচ্চি আলামিনের সহযোগী হিসেবে অস্ত্রবাজি, চাঁদাবাজি এবং গুলি করে ত্রাস সৃষ্টি করে আসছিল।

তিনি জানান, ওই হত্যাকাণ্ডের পর হত্যাকারীদের চারজনের ভিডিও ফুটেজ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পরে জানা যায়, এ ঘটনায় অংশগ্রহণকারী মোট সাতজন। এদের মধ্যে নূরী, শরীফ, সাদ্দাম ও আরিফ রুমের ভেতরে ঢুকে গুলি করে এবং রুমের গেটে পিচ্চি আলামিন এবং নূরা অবস্থান করে। কিলিং মিশনে নূরার দায়িত্ব ছিল ভেতর থেকে সবাই বেরিয়ে যাওয়ার পর বিল্ডিংয়ের গেটে তালা লাগিয়ে দেয়া। এ উদ্দেশে সে ওই সময় শেকল এবং তালা সঙ্গে নিয়ে মিশনে অংশ নিয়েছিল।

বনানীর সিদ্দিক মুন্সি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত চারজন বিভিন্ন সময় বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। বাকি দুইজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে।

ডিবির তদন্তে জানা গেছে, এই হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে চাঁদা আদায়ই ছিল মূল উদ্দেশ্য যার নির্দেশদাতা সুইডেন প্রবাসী পলাতক যুবদল ক্যাডার নাহিদ।

গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগ এর উপ-পুলিশ কমিশনার জনাব মশিউর রহমানের নির্দেশনায় ও এডিসি মো. শাহজাহানের তত্ত্বাবধানে অভিযানটি পরিচালিত হয়।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

ধামরাইয়ে অর্ধশত মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা পায়নি

ধামরাইয়ে অর্ধশত মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা পায়নি

 মন্ত্রণালয়ের একটি চিঠির আলোকে ঢাকার ধামরাইয়ে প্রায় অর্ধশত বীর মুক্তিযোদ্ধার সম্মানী ভাতা স্থগিত করা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় কারাগারের কয়েদির মৃত্যু

কেন্দ্রীয় কারাগারের কয়েদির মৃত্যু

 ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে (কেরানীগঞ্জ) সোহেল (২৪) নামে এক কয়েদির মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে

বিশ্বকাপ ফুটবলে আইএস’এর জঙ্গি হামলার হুমকি

বিশ্বকাপ ফুটবলে আইএস’এর জঙ্গি হামলার হুমকি

সারাবিশ্বের ফুটবল পাগল দর্শকরা যখন গভীর আগ্রহে রাশিয়ায় সমবেত হচ্ছে বা বিভিন্ন দেশের দর্শক টেলিভিশন


বাজেট পাসের আগেই চালের দাম কেজি প্রতি ৫ টাকা বৃদ্ধি

বাজেট পাসের আগেই চালের দাম কেজি প্রতি ৫ টাকা বৃদ্ধি

আসছে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে চাল আমদানির ওপর ২৮ শতাংশ শুল্ক পুনর্বহাল করা হয়েছে।

সিএমএইচে কেন বিশ্বাস নেই খালেদার : প্রশ্ন কাদেরের

সিএমএইচে কেন বিশ্বাস নেই খালেদার : প্রশ্ন কাদেরের

 কারাগারে অসুস্থ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে সরকারের পক্ষ থেকে দ্বিতীয় দফায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে

ঈদে বড় কোনো হুমকি নেই: ডিএমপি কমিশনার

ঈদে বড় কোনো হুমকি নেই: ডিএমপি কমিশনার

 জামিনে বের হওয়া জঙ্গিদের বিশেষ নজরদারিতে রাখা হচ্ছে বলে জানান ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া। ঈদকে


মুসার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ জুলাই

মুসার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ১২ জুলাই

শুল্ক ফাঁকি ও সুইস ব্যাংকে টাকা জমা রাখার অস্বচ্ছ হিসাব দাখিলের অভিযোগে ব্যবসায়ী প্রিন্স মুসা

খালেদা জিয়াকে ঈদ শুভেচ্ছা জানাতে জেলগেটে যাবেন বিএনপি নেতারা

খালেদা জিয়াকে ঈদ শুভেচ্ছা জানাতে জেলগেটে যাবেন বিএনপি নেতারা

 দলীয় প্রধান কারাগারে, আর তাই ঈদুল ফিতরের দিনে তাদের নেত্রীকে দেখতে ও শুভেচ্ছা জানাতে জেলগেটে

হাসিনা যে সুযোগ পেয়েছেন, খালেদা কেন পাবেন না?

হাসিনা যে সুযোগ পেয়েছেন, খালেদা কেন পাবেন না?

 বিএনপি’র চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে তার পছন্দের হাসপাতালে পাঠাবে না সরকার। অথচ এক সময় শেখ হাসিনা



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ