বাংলাদেশ বুধবার 21, November 2018 - ৭, অগ্রাহায়ণ, ১৪২৫ বাংলা

ধামরাইয়ে শ্রী শ্রী যশোমাধবের রথযাত্রা উৎসব আগামী শনিবার

আবু হাসান,ধামরাই প্রতিনিধি | প্রকাশিত ১১ জুলাই, ২০১৮ ২০:৩০:৪৮

উপমহাদেশে বিখ্যাত ধামরাইয়ের রথযাত্রা যশোমাধবের রথযাত্রা। আগামী শনিবার থেকে শুরু হচ্ছে হিন্দুদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব রথযাত্রা। রথযাত্রা উপলক্ষে ২৬ দিন ধরে চলবে রথমেলা। এ উৎসবকে ঘিরে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে স্থানীয় প্রশাসন। আগত অতিথি ও দর্শকদের জন্য নেওয়া হয়েছে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

ধামরাইয়ে রথযাত্রা উদ্বোধন করবেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এম এ মালেক। যশোমাধব মন্দির ও মেলা পরিচালনা কমিটির সভাপতি মেজর জেনারেল (অবঃ) জীবন কানাই দাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন, জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান, পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তমিজউদ্দিন ও পৌর মেয়র গোলাম কবির মোল্লা প্রমুখ।

প্রতিবছর চন্দ্র আষাঢ় মাসের শুক্লাপক্ষের দ্বিতীয়া তিথিতে ফিরে আসে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব ঐতিহ্যবাহী ধামরাইয়ে শ্রীশ্রী যশোমাধব রথযাত্রা। আগামী শনিবার সেই দিন। যশোমাধব বিগ্রহসহ ওইদিন শ^শুরবাড়ি যাবেন ধামরাইয়ে যাত্রাবাড়ী মন্দিরে। সেখানে তিনি নয়দিন থাকবেন। ৯দিন পর আবার রথে উঠে যাবেন কায়েতপাড়ায় যশোমাধব মন্দিরে। ২২ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে উল্টো রথটান।

এই রথযাত্রাকে বলা হয় উল্টো রথযাত্রা। গ্রাম-বাংলার মানুষের হৃদয় ছুঁয়ে যাওয়া এ উৎসব মূলত হিন্দু ধর্মীয় চেতনা উপর প্রতিষ্ঠিত হলেও এর ¯্রােতধারা নির্দিষ্ট গন্ডিতে সীমাবদ্ধ থাকে না। দেশ-বিদেশ থেকে হিন্দু-মুসলমানসহ বিভিন্ন ধর্মের হাজার হাজার ভক্ত ও দর্শক ধামরাইয়ে এ উৎসবে সমবেত হয়। 

ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ রিজাউল হক বলেন, র‌্যাব, পুলিশ, আনসার সদস্যসহ প্রায় ৫শ’ আইন শৃংখলা রক্ষাকারি বাহিনীর সদস্যরা মেলা প্রাঙ্গণে মোতায়েন থাকবে। এছাড়া বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা সাদা পোষাকে নজরদারী করবে মেলাঙ্গণে।

এই রথ উৎসব শুরু হয়েছিল ১০৭৯ বঙ্গাব্দে। ধামরাইয়ে আগামী শনিবার যে রথটি টানা হবে সেটি ২০১০ সালে তৈরী। ৩৭ ফুট দৈর্ঘ্য, ২০ ফুট প্রস্থ ও ৪১ ফুট উচ্চতার তিনতলা রথের অবকাঠামোতে রয়েছে দৃষ্টিনন্দন কারুকাজ ও দেব-দেবীর মূর্তিচিহ্ন। লোহার পাত দিয়ে তৈরী। সেগুন কাঠের পাতলা স্তর বসিয়ে ঢেকে দেওয়া হয়েছে লোহার পাত। এটি চলবে ১৫টি চাকায় ভর করে। সামনে থাকবে কাঠের তৈরী দুটি তেজস্বী ঘোড়া।

এই রথ নিয়ে পল্লী কবি জসীম উদ্দিনের সৃষ্টি ‘ধামরাই রথ’ কবিতার। তিনি লিখেছেন-‘ধামরাই রথ, কোন অতীতের বৃদ্ধ সূত্রধর/কতকাল ধরে গড়েছিল এরে করি অতি মনোহর। /রথের সামনে যুগল অশ^, সেই কতকাল হতে/ছুটিয়া চলেছে আজিও তাহারা আসে নাই কোনমতে।/ কোন যাদুকর গড়েছিল রথ তুচ্ছ কি কাঠ নিয়া/কি মায়া তাহাতে মেখে দিয়েছিল নিজ হৃদি নিঙরিয়া।/তাহারি মায়ায় বছর বছর কোটি কোটি লোক আসি/রথের সামনে দোলায়ে যাইত প্রীতির প্রদীপ হাসি।’

রথের ইতিহাস ও ঐতিহ্য :  বাংলায় ১৩১৯ সনে কলকাতা থেকে প্রকাশিত যতীন্দ্র মোহন রায়ের লেখা ‘ঢাকার ইতিহাস’ নামক বই থেকে জানা গেছে, পাল বংশের শেষ রাজা যশো পাল একবার হাতিতে আরোহন করে বেড়াতে যাচ্ছিলেন। চলতে চলতে ধামরাইয়ের অনতিদূরে (বর্তমানে সাভারের আশুলিয়া থানায় অন্তর্গত) শিমুলিয়ার গাজিবাড়ির রণস্থানে গিয়ে হাতিটি একটি মাটির ঢিবির সামনে গিয়ে আর এগোয় না। তখন রাজা হাতিতে অবস্থান করেই সঙ্গের লোকদের মাধ্যমে এই মাটির ঢিবিতে খননকাজ শুরু করেন। সেখানে পাওয়া যায় পুরনো একটি মন্দির। তাতে বিষ্ণু মূর্তির মতো শ্রীমাধব মূর্তিও ছিল। রাজা ভক্তি করে সেটা নিয়ে আসেন। ধামরাই সদরের পঞ্চাশ গ্রামের বিশিষ্ট পন্ডিত শ্রী জীবন রায়কে মূর্তিটি প্রতিষ্ঠার ভার দেন। মহাসমারোহে সেখানে প্রতিষ্ঠিত হলো ভগবান শ্রী যশোমাধবের মূর্তি। ভগবানের সঙ্গে ভক্ত যশো পালের নামের ‘যশো’ অংশটি মিলিয়ে বিগ্রহের নতুন নামকরণ করা হয় শ্রী শ্রী যশোমাধব। এভাবেই অমর হয়ে আছেন রাজা যশোবন্ত পাল। পরবর্তীতে ধামরাইয়ে কায়েতপাড়ায় যশোমাধবের মূল মন্দির করা হয়। শ্রী মাধবকে কেন্দ্র করেই গড়ে উঠেছে ধামরাইয়ের শ্রী শ্রী যশোমাধবের রথ উৎসব ও রথমেলা।

প্রায় চারশত বছর আগে ওই সময় থেকেই রায় সম্প্রদায়ের লোকেরা পূজা পার্বন ও  রথ উৎসবের আয়োজন করে আসছিল। এক সময় বালিয়াটির জমিদাররা এর দায়িত্ব বহন করে। পরবর্তীতে মির্জাপুরের জমিদার রণদা প্রসাদ সাহাও এর দায়িত্বে ছিলেন। এরপর ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে যশোমাধবের বিগ্রহসহ মন্দিরটি পাকিস্তানী সেনাবাহিনী  ও দেশীয় আল-বদররা পুড়িয়ে দেয়। এরপর ১৯৭২ সালে পুনরায় বাশ ও আম কাঠ দিয়ে তৈরী করা রথ দিয়েই রথযাত্রা উৎসব শুরু করা হয়।

 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

মিলাদুন্নবী: স্কুল-কলেজে ওয়াজ মাহফিল আয়োজনের নির্দেশ

মিলাদুন্নবী: স্কুল-কলেজে ওয়াজ মাহফিল আয়োজনের নির্দেশ

 ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে বুধবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওয়াজ মাহফিল ও আলোচনা সভা আয়োজনের নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা

এমপিওভুক্ত হচ্ছেন শূন্যপদে নিয়োগ পাওয়া ১১২৪ শিক্ষক

এমপিওভুক্ত হচ্ছেন শূন্যপদে নিয়োগ পাওয়া ১১২৪ শিক্ষক

 দেশের বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে শূন্যপদে নিয়োগ পাওয়া এক হাজার ১২৪ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে এমপিওভুক্ত করার

ইভিএম নিয়ে সক্রিয় হচ্ছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

ইভিএম নিয়ে সক্রিয় হচ্ছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার বন্ধে আরও কিছু কর্মসূচি নিতে যাচ্ছে


বিএনপির সঙ্গে ড. কামাল-মান্নাদের ঐক্য দুর্ভাগ্যজনক, এরা বর্ণচোরা-ভণ্ড: নাসিম

বিএনপির সঙ্গে ড. কামাল-মান্নাদের ঐক্য দুর্ভাগ্যজনক, এরা বর্ণচোরা-ভণ্ড: নাসিম

 ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি, মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠনসমূহ ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সঙ্গে ১৪ দলের

বদলে যাবে বনানী পার্ক

বদলে যাবে বনানী পার্ক

বনানী ১৮ নম্বর সড়কে অবস্থিত বনানী ক্লাব মাঠটি আধুনিকায়ন ও সংস্কারের জন্য উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা

৭৬ আসনের প্রার্থীর তালিকা আ’লীগকে দিলো জাপা

৭৬ আসনের প্রার্থীর তালিকা আ’লীগকে দিলো জাপা

 আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জোটবদ্ধভাবে নির্বাচন করতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কাছে ৭৬ আসন চেয়েছে


আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী না সরানোয় জরিমানার নির্দেশ ইসি'র

আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী না সরানোয় জরিমানার নির্দেশ ইসি'র

আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী যারা সরায়নি তাদের জরিমানা করার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। একই

তারেকের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে ইসি

তারেকের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে ইসি

বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকারে স্কাইপের মাধ্যমে ভিডিও কনফারেন্সে দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান একাধিক মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাজা স্থগিত চেয়ে খালেদা জিয়ার আপিল

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাজা স্থগিত চেয়ে খালেদা জিয়ার আপিল

 জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় হাইকোর্টের দেওয়া ১০ বছরের কারাদণ্ড স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগের চেম্বার



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ