বাংলাদেশ শনিবার 22, September 2018 - ৭, আশ্বিন, ১৪২৫ বাংলা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে অসুস্থ প্রতিযোগিতা

১৮ অগাস্ট, ২০১৮ ১৮:০৮:০৪

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে চলছে লাভ-ক্ষতির হিসাব। পাশাপাশি অসুস্থ প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতা থেকে উত্তরণে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ আশ্বাস দিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে যেসব অনুমোদিত এজেন্ট বিদেশে কর্মী পাঠায়, শিগগিরই তাদের সবাইকে মালয়েশিয়া গমনেচ্ছু শ্রমিকদের আবেদনপত্র প্রক্রিয়াকরণের অনুমোদন দেয়া হবে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসবে মালয়েশিয়া সরকার। দেশটির প্রধানমন্ত্রী মনে করছেন, সবাইকে এই সুযোগ দেয়ার মধ্য দিয়ে এজেন্সিগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতামূলক অবস্থা সৃষ্টি হবে, যা কর্মীদের জন্য ইতিবাচক হবে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ২০১২ সালে দুই দেশ শুধু সরকারি মাধ্যমে জি-টু-জি পদ্ধতিতে মালয়েশিয়ায় লোক পাঠাতে চুক্তি সই করে। ২০১৬ সালের তা পরিমার্জন করে ১০টি বেসরকারি রিক্রুটিং এজেন্সিকে জি-টু-জি প্লাসের আওতায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

 

 

২০১৬ সালের শেষদিক থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত প্রায় ২ লাখ শ্রমিক মালয়েশিয়া গেছেন। এর মধ্যে চলতি বছরের জুলাই মাস পর্যন্ত ১ লাখ ৯ হাজার ৫৬২ জন শ্রমিক পাঠায় বাংলাদেশ।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ার পার্লামেন্ট ভবনে বিদেশি কর্মীদের ব্যবস্থাপনা শীর্ষক বৈঠকে মাহাথির মোহাম্মদ জানিয়েছেন, সংশ্লিষ্ট বাংলাদেশি কর্মকর্তাদের সঙ্গে তাদের কথা হয়েছে। মালয়েশিয়াকে জানানো হয়েছে, মাত্র ১০টি এজেন্সি একচেটিয়া কর্মী পাঠানোর সুযোগ পায় বলে মালয়েশিয়া গমনেচ্ছু বাংলাদেশি কর্মীদের জনপ্রতি ২০ হাজার মালয়েশীয় রিঙ্গিত পর্যন্ত দিতে হয় এজেন্সিগুলোকে।

এ কারণেই মালয়েশিয়ার সরকার সব এজেন্ট পর্যন্ত এই সুযোগ বিস্তৃত করতে চায় যেন সেখানে প্রতিযোগিতা থাকে।

মাহাথির আরও বলেছেন, দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার অংশ হিসেবে দেশি-বিদেশি কর্মীদের বিভিন্ন বিষয় দেখভালের জন্য একটি স্বাধীন কমিশন গঠন করতে চান তিনি। যে দেশ থেকেই কর্মী নিয়োগ দেয়া হোক না কেন, সবাইকে ওই স্বাধীন কমিশনের একক ব্যবস্থাপনার আওতায় আনতে চান তিনি।

মাহাথির জানান, একজন উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তা ওই কমিশনের নেতৃত্বে থাকবেন। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে কর্মীদের নীতি ও ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত বিষয়গুলো দেখাশোনা করা হবে। শ্রমবাজার সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য ও বিশ্লেষণের প্রতিও নজর রাখা হবে।

মাহাথিরের এই সিদ্ধান্তে ফিলিপাইনসহ কয়েকটি দেশ নড়েচড়ে বসেছে। তাদের প্রশ্ন, যারা কোনও তৃতীয় পক্ষের সহযোগিতা ছাড়া সরাসরি জনশক্তি রফতানি করে তাদের কীভাবে স্বাধীন কমিশনের আওতায় আনা হবে এবং একক ব্যবস্থাপনায় তারা কীভাবে কাজ করবে?

এদিকে মালয়েশিয়া সরকারের এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সি (বায়রা) এবং অভিবাসন খাতের বিশেষজ্ঞরা। তবে তাদের আশঙ্কা রয়েছে নিরাপদ অভিবাসনের নিশ্চয়তা নিয়ে। মালয়েশিয়ায় অভিবাসী কর্মীরা যেন শোষণের শিকার না হয় সেদিকে দেশটির সরকারকে নজরদারি করার আহ্বান জানিয়েছে তারা।

অভিবাসন বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ১০ এজেন্সির সিন্ডিকেট থেকে বেরিয়ে আসা গেলে অভিবাসন খরচ যেমন কমবে তেমনি প্রতিযোগিতামূলক একটি বাজার তৈরি হবে।

Maleshia-s

তারা আরও বলছেন, বেশি পরিমাণে শ্রমিক পাঠানোর চেয়ে নিরাপদ অভিবাসনকে গুরুত্ব দেয়া জরুরি।

অনুন্ধানে জানা গেছে, শ্রম রফতানির ক্ষেত্রে মালয়েশিয়ার জি-টু-জি প্লাস পদ্ধতির কারণে নেপাল নড়েচড়ে বসেছে। মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানি বন্ধ রেখেছে দেশটি। নেপাল সরকার বর্তমান ব্যবস্থায় মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানি প্রক্রিয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করে।

নেপালের লেবার অ্যাটাশে সূত্রে জানা গেছে, সে দেশের সরকার মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানিতে অনেক অনিয়ম খুঁজে পায়। নেপাল সরকারের পক্ষ থেকে প্রশ্ন তোলা হয়েছে, বেসরকারি কোম্পানির মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া চালু রেখে একচেটিয়া ব্যবসা ধরে রাখতে চাচ্ছে মালয়েশিয়া। ফলে নেপাল সরকার মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রফতানি বন্ধ ঘোষণা করার পর বেকায়দায় পড়ে যায় মালয়েশিয়া সরকার।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

এস কে সিনহার বই নিয়ে যা বলছে আওয়ামী লীগ

এস কে সিনহার বই নিয়ে যা বলছে আওয়ামী লীগ

 সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা এক আত্মজীবনীমূলক বইয়ে তাকে সরকারের চাপ এবং হুমকির মুখে

আশুলিয়া চায়না নাগরিকের হার্ট এটাকে মৃত্যু

আশুলিয়া চায়না নাগরিকের হার্ট এটাকে মৃত্যু

 আশুলিয়ায় চীনা নাগরিক জাংগুয়ান (৪৯) নামে একজনের হার্টএটাকে মৃত্যু হয়েছে। লাশটি বাংলাদেশের চীনা দূতাবাসের মাধ্যমে

অনুপস্থিতিতেই জিয়া চ্যারিটেবল মামলার বিচার চলবে

অনুপস্থিতিতেই জিয়া চ্যারিটেবল মামলার বিচার চলবে

 বহুল আলোচিত জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে মামলার বিচার কার্যক্রম চলবে


ড. কামালেই আস্থা বিএনপির, অবশেষে বৃহত্তর রাজনৈতিক ঐক্য!

ড. কামালেই আস্থা বিএনপির, অবশেষে বৃহত্তর রাজনৈতিক ঐক্য!

 অবশেষে বহুল আলোচিত ‘বৃহত্তর রাজনৈতিক ঐক্য’ প্রকাশ্য হতে যাচ্ছে। আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গণফোরাম সভাপতি

এক নিয়োগ আবেদনে ৪০ কোটিরও বেশি আয়

এক নিয়োগ আবেদনে ৪০ কোটিরও বেশি আয়

চাকরির আবেদনের জন্য কোনো প্রকার ফি না নিতে ২০১৫ সালের ২৯ ডিসেম্বর সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকগুলোকে নির্দেশ

অসুস্থ খালেদা আদালতে যাচ্ছেন না আজ

অসুস্থ খালেদা আদালতে যাচ্ছেন না আজ

 দুর্নীতির মামলায় সাজা পেয়ে কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া অসুস্থ থাকায় জিয়া চ্যারিটেবল


রোহিঙ্গাদের প্রতি সমর্থনের জন্য কফি আনান স্মরণীয় হয়ে থাকবে

রোহিঙ্গাদের প্রতি সমর্থনের জন্য কফি আনান স্মরণীয় হয়ে থাকবে

 প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব ও শান্তিতে নোবেল বিজয়ী কফি আনানের মৃত্যুতে গভীর শোকও

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে অসুস্থ প্রতিযোগিতা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে অসুস্থ প্রতিযোগিতা

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে চলছে লাভ-ক্ষতির হিসাব। পাশাপাশি অসুস্থ প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতা থেকে উত্তরণে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক নিয়োগে পুরনো ব্যবস্থায় ফিরে গেলে লাভ কার?

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক নিয়োগে পুরনো ব্যবস্থায় ফিরে গেলে লাভ কার?

মালয়েশিয়া সরকার জনশক্তি আমদানির ক্ষেত্রে পুরনো ব্যবস্থায় ফিরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। জিটুটি পদ্ধতি থেকে জিটুজি



আরো সংবাদ

তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহত ৪২

তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহত ৪২

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১০:৩২




আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি

আলোচনায় বসতে মোদিকে ইমরানের চিঠি

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১১:৩০









ব্রেকিং নিউজ

বেড়েছে মুরগির দাম, ঝাঁজ কমেছে পেঁয়াজের

বেড়েছে মুরগির দাম, ঝাঁজ কমেছে পেঁয়াজের

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১১:৫৪

শোকের মাতমে তাজিয়া মিছিল শুরু

শোকের মাতমে তাজিয়া মিছিল শুরু

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১১:৫২




সরকারের শেষ সময়ে আইন পাসের রেকর্ড

সরকারের শেষ সময়ে আইন পাসের রেকর্ড

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১০:৩৬

তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহত ৪২

তানজানিয়ায় ফেরিডুবিতে নিহত ৪২

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১০:৩২