বাংলাদেশ মঙ্গলবার 20, November 2018 - ৬, অগ্রাহায়ণ, ১৪২৫ বাংলা

সহজ শর্তের ঋণ আর প্রয়োজন হয় না : অর্থমন্ত্রী

১৮ অগাস্ট, ২০১৮ ২০:০৬:৪৬

উন্নয়নের জন্য দাতা সংস্থার কাছ থেকে সহজ শর্তে ঋণ নেয়ার এখন প্রয়োজন হয় না বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

তিনি বলেন, দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন দাতা সংস্থার কাছ থেকে সহজ শর্তে যে ঋণ নিতাম, এখন আর সেটার প্রয়োজন হয় না। বরং আমাদের চেয়ে যেসব দেশের আর্থিক অবস্থা খারাপ তাদেরকে এ ঋণ দেয়া উচিত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

 

শনিবার (১৮ আগস্ট) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিএসইসির চেয়ারম্যান এম. খায়রুল হোসেন। এ সময় সংস্থার পরিচালক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা শেষে বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের অন্যান্য শহীদদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া করা হয়।

অর্থমন্ত্রী বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বপ্ন দেখতেন শোষণ, দারিদ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধশালী একটি দেশের। আজ আমরা উন্নত দেশের দ্বারপ্রান্তে। দেশকে সমৃদ্ধশালী করার মাধ্যমেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গঠন করা সম্ভব।

তিনি বলেন, দীর্ঘ সংগ্রাম আর রক্তক্ষয়ের মাধ্যমে প্রায় ১৯০ বছরের ব্রিটিশ স্বৈরশাসনের পতন ঘটানো হলেও পরবর্তীতে পাকিস্তানিরা ২৩ বছর এ দেশকে শাসনের নামে শোষণ করেছে। এর প্রতিবাদে সোচ্চার হয়ে ওঠেন বঙ্গবন্ধু। ১৯৭১ সালে আমরা দেশকে স্বাধীন করলেও পরাজিত শত্রুরা ষড়যন্ত্র অব্যাহত রাখে। দেশকে তলাহীন ঝুড়ি আখ্যায়িত করতে সচেষ্ট থাকে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু হয়ে উঠেছিলেন আন্তর্জাতিক নেতা, যা অনেক দেশ মেনে নিতে পারছিল না। কারণ, তিনি বেঁচে থাকলে শুধু বাংলাদেশ নয় বিশ্বের শোষিত গণমানুষের দাবি আদায়ে সোচ্চার হয়ে উঠবেন। যা সাম্রাজ্যবাদী শক্তি মেনে নিতে পারেনি। আর তাদেরই চক্রান্তে সেনাবাহিনীর বিপথগামী কিছু সদস্য ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট রাতে সপরিবারে তাকে নৃশংসভাবে হত্যা করে।

তিনি বলেন, আমাদের সৌভাগ্য বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শেখ রেহানা সেদিন বিদেশে থাকায় বেঁচে যান। ১৯৮২ সালে দেশে আসার পর তিনি আওয়ামী লীগের দায়িত্ব নেন। সে সময় আমি বিষয়টি মেনে নিতে পারিনি। মনে হয়েছে, আন্তর্জাতিক চক্রান্ত এখনো চলছে। কেন তিনি দেশে ফিরে এ গুরুদায়িত্ব নিলেন।

তিনি বলেন, দেশে ফেরার পর ১৫ বছর তিনি প্রত্যন্ত অঞ্চল চষে বেড়িয়েছেন। মানুষকে বুঝিয়েছেন। এক পর্যায়ে ১৯৯০ সালে স্বৈরশাসনের পতনের মাধ্যমে দেশে গণতন্ত্রের যাত্রা শুরু হয়। ১৯৯৬ সাল থেকেই মূলত দেশের অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রা শুরু হয়। যা গত দুই দশক ধরে অব্যাহত রয়েছে। এ সরকারকে আবারও ক্ষমতায় যেতে হবে। না হলে উন্নয়নের এ ধারা বাধাগ্রস্ত হবে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

৭৬ আসনের প্রার্থীর তালিকা আ’লীগকে দিলো জাপা

৭৬ আসনের প্রার্থীর তালিকা আ’লীগকে দিলো জাপা

 আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জোটবদ্ধভাবে নির্বাচন করতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কাছে ৭৬ আসন চেয়েছে

‘থ্যাংক ইউ পিএম’ নিয়ে ইসির কিছু করার নেই: ইসি সচিব

‘থ্যাংক ইউ পিএম’ নিয়ে ইসির কিছু করার নেই: ইসি সচিব

 বিভিন্ন ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমে ‘থ্যাংক ইউ পিএম’ নামে যে প্রচার বিজ্ঞাপন চলছে তা নিয়ে ইসির কিছু

খালেদা চাইলে চিকিৎসা : হাইকোর্ট

খালেদা চাইলে চিকিৎসা : হাইকোর্ট

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া চাইলে তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।


নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

নারায়ণগঞ্জের সাত খুন মামলার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলায় ১৫ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে দেওয়া পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করা

আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী না সরানোয় জরিমানার নির্দেশ ইসি'র

আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী না সরানোয় জরিমানার নির্দেশ ইসি'র

আগাম নির্বাচনি প্রচার সামগ্রী যারা সরায়নি তাদের জরিমানা করার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। একই

নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে নিয়মিত আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে ইইউ, অংশগ্রহণমূলক ও স্বচ্ছতার প্রত্যাশা

নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে নিয়মিত আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে ইইউ, অংশগ্রহণমূলক ও স্বচ্ছতার প্রত্যাশা

 বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি মারাত্মক উদ্বেগজনক। এক্ষেত্রে অনেক কিছু করতে হবে বাংলাদেশকে। জাতীয় সংসদ নির্বাচন যতই


প্রাথমিক ও চূড়ান্ত মনোনয়ন কীভাবে, জানতে ইসিকে বিএনপির চিঠি

প্রাথমিক ও চূড়ান্ত মনোনয়ন কীভাবে, জানতে ইসিকে বিএনপির চিঠি

কোনো জোটের প্রত্যেক নিবন্ধিত দল একটি আসনে এক বা একাধিক প্রার্থীকে প্রাথমিক মনোনয়ন দিল। এরপর

সম্ভাব্য প্রার্থীদের মামলা দিয়ে গ্রেফতার করা হচ্ছে : ফখরুল

সম্ভাব্য প্রার্থীদের মামলা দিয়ে গ্রেফতার করা হচ্ছে : ফখরুল

দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের আদালতের মাধ্যমে গ্রেফতার করা হচ্ছে অভিযোগ করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম

দেশে সকল পর্নো সাইট ব্লক করার নির্দেশ

দেশে সকল পর্নো সাইট ব্লক করার নির্দেশ

দেশে সকল পর্নোগ্রাফি ওয়েবসাইট ছয় মাসের জন্য ব্লক করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ


খালেদা চাইলে চিকিৎসা : হাইকোর্ট

খালেদা চাইলে চিকিৎসা : হাইকোর্ট

১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ১৭:৩৭