বাংলাদেশ রবিবার 21, October 2018 - ৬, কার্তিক, ১৪২৫ বাংলা

খালেদা জিয়ার বিচার শুরুর অপেক্ষায় আরও ৭ মামলা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশিত ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১১:০১:৩২

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলাসহ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৩৬টি মামলা দায়ের করা হয়। এরমধ্যে একটিতে সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাভোগ করছেন তিনি। বাকি ৩৫টির  মধ্যে একটি রয়েছে বিচারের শেষ পর্যায়ে। এছাড়া, সাতটি পুলিশ প্রতিবেদনের অপেক্ষায় রয়েছে। প্রতিবেদনগুলো জমা দিলে আদালত আমলে নেওয়ার পরিই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে শুরু হবে এই সাত মামলার বিচারিক কার্যক্রম। এই সাত মামলা হলো—গ্যাটকো দুর্নীতি, গুলশানে বোমা হামলার অভিযোগ, খুলনায় অগ্নিসংযোগের অভিযোগ, সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে ‘মিথ্যা’ মন্তব্য করায় ঢাকায় মানহানির দুই মামলা, ৪২ জনকে হত্যার অভিযোগ এবং হত্যা ও রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে পঞ্চগড়ে দায়ের করা একটি মামলা। খালেদা জিয়ার আইনজীবী প্যানেলের একাধিক সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার এ কে এম এহসানুর রহমান  বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে দায়ের করা ৩৬টি মামলার মধ্যে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় হয়েছে। যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের মাধ্যমে বিচারের শেষ পর্যায়ে রয়েছে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা। বাকি ৩৪টি মামলার মধ্যে দুটি রয়েছে চার্জশিটের অপেক্ষায়। মামলা দু’টি হলো—গ্যাটকো দুর্নীতি মামলা ও খুলনায় অগ্নিসংযোগের অভিযোগে দায়ের হওয়া মামলা। পাশাপাশি পুলিশ প্রতিবেদনের দাখিলের অপেক্ষায় রয়েছে আরও পাঁচ মামলা।’

গ্যাটকো দুর্নীতি মামলা

ঢাকার কমলাপুর আইসিডি ও চট্টগ্রাম বন্দরের কন্টেইনার হ্যান্ডেলিংয়ে গ্লোবাল অ্যাগ্রো ট্রেড কোম্পানি লিমিটেডকে (গ্যাটকো) ঠিকাদার হিসেবে নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়া ও তার ছোট ছেলে (প্রয়াত) আরাফাত রহমান কোকোসহ ১৩ জনকে আসামি করে রাজধানীর তেজগাঁও থানায় দুর্নীতির মামলা দায়ের করেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপ-পরিচালক গোলাম শাহরিয়ার চৌধুরী। মামলায় গ্যাটকোকে ঠিকাদার হিসেবে নিয়োগ দিয়ে রাষ্ট্রের ১৪ কোটি ৫৬ লাখ ৩৭ হাজার ৬১৬ টাকা ক্ষতির অভিযোগ করা হয়। মামলাটি বর্তমানে ঢাকার তিন নম্বর বিশেষ জজ আদালতে অভিযোগ গঠনের পর্যায়ে রয়েছে। তাই অভিযোগ গঠিত হলেই মামলাটির আনুষ্ঠানিক বিচারকার্য শুরু হবে।

গুলশানে বোমা হামলার অভিযোগে মামলা

২০১৫ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি মুক্তিযোদ্ধা পরিষদ বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালনের জন্য গুলশানে সমবেত হয়। পরে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের নেতৃত্বে মিছিল নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয় ঘেরাও করার জন্য রওনা হলে আসামিরা হত্যার উদ্দেশ্যে তাদের ওপর বোমা নিক্ষেপ করেন বলে অভিযোগ করা হয়।

পরে ওই ঘটনায় খালেদা জিয়া, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, খন্দকার মাহবুবুর রহমানসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা দায়ের করেন সড়ক পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের নেতা ইসমাইল হোসেন। মামলাটি বর্তমানে পুলিশ প্রতিবেদনের অপেক্ষায় রয়েছে। এই মামলটি বর্তমানে  ঢাকার দায়রা জজ আদালতে বিচারাধীন।

খুলনায় অগ্নিসংযোগের অভিযোগে মামলা

খুলনার ফুলতলা উপজেলায় বাসে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়। ২০১৫ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি পুলিশ বাদী হয়ে ফুলতলা থানায় খালেদা জিয়াসহ মোট ৫৪জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত পরিচয়ে আরও ৬০-৭০জনকে আসামি করে একটি মামলাটি দায়ের করে। বর্তমানে মামলাটি খুলনার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিলের পর্যায়ে রয়েছে।

সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে মিথ্যা মন্তব্য করায় ঢাকায় মানহানির দুই মামলা

শ্রমিক দিবসে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভায় বক্তব্য দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্য-প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে ‘মিথ্যা’বক্তব্য দেওয়ায় মানহানির অভিযোগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ঢাকার জুডিশিয়ার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন বাংলাদেশ জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এবি সিদ্দিকী। যা বর্তমানে পুলিশ প্রতিবেদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

এছাড়া সজীব ওয়াজেদ জয়ের অ্যাকাউন্টে ৩০ কোটি ডলার রয়েছে বলে  ‘মিথ্যা’বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে ২০১৬ সালের ৩ মে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ১ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান’-এর মুরাদনগর উপজেলা কমিটির সভাপতি শরিফুল আলম চৌধুরী। কুমিল্লার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি প্রতিবেদনের জন্য অপেক্ষমাণ রয়েছে।

 খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৪২জনকে হত্যার অভিযোগে মামলা

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর ২০ দলীয় জোটের আন্দোলনের সময় ৪২ জনকে হত্যার অভিযোগে এনে ২০১৫ সালের ২ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াসহ বিএনপি বেশ কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের বাংলাদেশ জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এবি সিদ্দিকী দায়ে করেন। মামলাটি বর্তমানে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পুলিশের প্রতিবেদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

 হত্যা ও রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে পঞ্চগড়ে  মামলা

২০১৪ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ২০১৫ সালের গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে অবরোধ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়। এরপর থেকে খালেদা জিয়া, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও রুহুল কবীর রিজভীকে হুকুমের আসামি করে পঞ্চগড় ম্যাজিস্ট্রে আদালতে মামলা দায়ের করেন পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সোহাগ।  মামলায় পেট্রোল বোমা দিয়ে মানুষ হত্যা, নানাভাবে জানমালের ক্ষতিসাধনের পাশাপাশি রাষ্ট্রদ্রোহের মতো অপরাধ করার অভিযোগ আনা হয় তিন আসামির বিরুদ্ধে। এ মামলাটি বর্তমানে পুলিশ প্রতিবেদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

ওই সাত মামলার প্রতিবেদন দাখিলের পর পরবর্তী আইনি প্রক্রিয়া কী হবে, তা জানতে চেয়ে কথা হয় খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ্ মিয়ার সঙ্গে। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘পুলিশ চার্জশিট দাখিলের পর থেকেই দু’টি মামলার কার্যক্রম শুরু হয়ে যাবে। আদালত প্রতিবেদনগুলো যদি আমলে নেন, তাহলে আদালত আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে মামলার সাক্ষীদের সমন দেবেন, তাদেরর সাক্ষ্য গ্রহণ করবেন। এরপর উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শুনানি শেষ করে রায় ঘোষণার জন্য মামলাটি অপেক্ষমাণ রাখবেন।’

সানাউল্লাহ্ মিয়া আরও বলেন, ‘ওই সাত মামলায় পুলিশের প্রতিবেদন আমলে নেওয়ার পর খালেদা জিয়াকে নিয়মিত সংশ্লিষ্টে আদালতে হাজির হতে হবে। তবে যে সাতটি মামলার কথা এখানে বলা হচ্ছে, সেসব মামলার অভিযোগ খুব গুরুতর নয়। তাই মামলাগুলোয় জামিন পাওয়া সহজ হবে বলে আশা করছি।’


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

দেশেই তৈরি হবে বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার

দেশেই তৈরি হবে বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার

এখন থেকে দেশেই তৈরি করা হবে বিদ্যুৎ বিতরণের প্রিপেইড মিটার। আগামী জানুয়ারি থেকেই রাষ্ট্রীয় বিদ্যুৎ

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান বাড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান বাড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মান বাড়াতে হবে।  এজন্য শিক্ষকদের নজর দিতে হবে। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।শনিবার

মাদক ব্যবসায়ীদের কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

মাদক ব্যবসায়ীদের কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  মাদক ব্যবসায়ীদের কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।


ঐক্যফ্রন্টের নেতারা রাজনৈতিকভাবে চরিত্রহীন: হাছান মাহমুদ

ঐক্যফ্রন্টের নেতারা রাজনৈতিকভাবে চরিত্রহীন: হাছান মাহমুদ

ড. কামাল হোসেন, আ স ম রব, মাহমুদুর রহমান মান্না ও ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে রাজনৈতিকভাবে

দেশে ফিরেই আত্মসমর্পণ করবেন তারেক : মওদুদ

দেশে ফিরেই আত্মসমর্পণ করবেন তারেক : মওদুদ

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান দেশে ফিরেই আদালতে আত্মসমর্পণ করবেন বলে জানিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির

সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য চট্টগ্রামে ৪৫৬ ফ্ল্যাট

সরকারি চাকরিজীবীদের জন্য চট্টগ্রামে ৪৫৬ ফ্ল্যাট

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শতভাগ আবাসিক সুবিধা দিতে কাজ করছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে চট্টগ্রামে ৪৫৬টি ফ্ল্যাট


স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করল ৪৩ জলদস্যু

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করল ৪৩ জলদস্যু

কক্সবাজারের সন্ত্রাস কবলিত দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর জলে-স্থলে ও পাহাড়ে ডাকাতি, দস্যুতা, অপহরণ, খুনসহ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড

বিরোধীদের উপর দমনমূলক আইন ব্যবহার করছে সরকার: এইচআরডব্লিউ

বিরোধীদের উপর দমনমূলক আইন ব্যবহার করছে সরকার: এইচআরডব্লিউ

 বাংলাদেশ সরকার রাজনৈতিকবিরোধী, সাংবাদিক, ভাষ্যকার ও টেলিভিশনের বিরুদ্ধে নতুন নতুন দমনমূলক আইন ও নীতি ব্যবহার

দেশে এমন কোনো পরিস্থিতি নেই যে সংলাপ করতে হবে : সেতুমন্ত্রী

দেশে এমন কোনো পরিস্থিতি নেই যে সংলাপ করতে হবে : সেতুমন্ত্রী

: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঐক্যফ্রন্ট হল



আরো সংবাদ











ব্যথায় ভুগছেন খালেদা জিয়া

ব্যথায় ভুগছেন খালেদা জিয়া

০৮ অক্টোবর, ২০১৮ ১৬:১৭



ব্রেকিং নিউজ











দেশে নতুন মেরুকরণ হতে পারে: এরশাদ

দেশে নতুন মেরুকরণ হতে পারে: এরশাদ

২০ অক্টোবর, ২০১৮ ১৭:১০