বেনজির ভুট্টো হত্যা মামলায় দুই পুলিশ কর্মকর্তার জামিন বাতিলের আবেদন খারিজ


: পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো হত্যা মামলায় জামিনে থাকা সাবেক পাকিস্তান পুলিশের দুই সদস্যের জামিন বাতিলের জন্য করা আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। চলতি মাসের ৫ তারিখ পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট ওই আবেদনটি বাতিল করার রায় ঘোষণা করে।

বার্তা সংস্থা এক্সপ্রেস ট্রিবিউন পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের দুইজন বিচারকের উদ্ধৃতি দিয়ে জানায়, ‘এই পরিস্থিতিতে আমরা লাহোর হাই-কোর্টের দেয়া জামিনের রায়ে হস্তক্ষেপ করার মত কোনো কারণ দেখছি না এবং আমারা জামিন বাতিলের জন্য করা আবেদনটি খারিজ করার আদেশ দিচ্ছি।’

পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টে সাবেক পাকিস্তান পুলিশের দুই সদস্যের জামিন বাতিলের আবেদনটি করেছিলেন বেনজির ভুট্টোর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা নিহত আকরাম কাইরা এর স্ত্রী রাশিদা বিবি। রাশিদা বিবি বিচারপতি সাইদ খোসা এবং বিচারপতি সাইয়্যেদ মানসুর আলীর যৌথ বেঞ্চে ওই আবেদনটি করেছিলেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৩১শ আগস্ট পাকিস্তানের সন্ত্রাস প্রতিরোধের জন্য গঠিত আদালত সাবেক পাকিস্তান পুলিশের দুই সদস্য যথাক্রমে সাউদ আজিজ এবং খুরাম শাহজাদকে বেনজির ভুট্টো হত্যা মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে। পরবর্তীতে তারা দুইজন লাহোর হাই-কোর্ট কর্তৃক জামিনে মুক্ত হন। রাশিদা বিবি লাহোর হাই-কোর্টের দেয়া জামিন আদেশের বিরোধিতা করে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন।

সাউদ আজিজ পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডির পুলিশ প্রধান ছিলেন যেখানে বেনজির ভুট্টোর উপর আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে তাকে নিহত করা হয়েছিল। আর খুরাম শাহজাদ রাওয়ালপিন্ডির পুলিশ সুপারিন্টেন্ডেন্ট হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

পাকিস্তানের সন্ত্রাস প্রতিরোধ আদালত অভিযুক্ত এই দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে নিরাপত্তায় অবহেলার জন্য দোষী সাব্যস্ত করেন এবং তাদের প্রত্যেককে ১৭ বছর করে কারাদণ্ড প্রদান করেন। তবে লাহোর হাই-কোর্ট ২০১৭ সালের ৫ অক্টোবরে সন্ত্রাস প্রতিরোধ আদালতের রায় বাতিল করে তাদের প্রতি জামিন মঞ্জুর করেন।

সেসময় কার পাকিস্তানের ফেডেরাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির (FIA) পক্ষে দেশটির এটর্নি জেনেরাল নাইয়ার রিজভী লাহোর হাই-কোর্টের জামিন আদেশের প্রতি তার সমর্থন জানিয়েছিলেন।

পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টে রাশিদা বিবির করা আবেদনটি খারিজ হয়ে যাওয়ার পরে পাকিস্তান পিপলস পার্টির(পিপিপি) প্রধান এবং বেনজির ভুট্টোর ছেলে বিলওয়াল ভুট্টো জারদারি এক বিবৃতিতে বলেন, সুপ্রিম কোর্টের সাথে তার পরিবারের পুরনো সম্পর্ক রয়েছে। তিনিসহ তার পরিবারের তিন প্রজন্ম সুপ্রিম কোর্টের প্রতি ন্যায় বিচার করার দাবি জানিয়ে আসছেন।

পিপিপি এর প্রধান আরেকটি বিবৃতিতে জানান, তার পিতা আসিফ আলী জারদারি পাকিস্তানের সাবেক প্রধান বিচারপতি ইফতিখার চৌধুরীর আদালতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী জুলফিকার আলী ভুট্টোর মামলা সম্পর্কে একটি আবেদন করেছিলেন যা এখনো শুনানির অপেক্ষায় রয়েছে।

সূত্রঃ এমএসএন ডট কম।


footer logo

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের  কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি