বাংলাদেশ বুধবার 19, December 2018 - ৪, পৌষ, ১৪২৫ বাংলা

প্রত্যাবাসনে প্রস্তুত বাংলাদেশ, ফিরতে চায় না রোহিঙ্গারা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশিত ১৩ নভেম্বর, ২০১৮ ১৬:২৮:০০

নাগরিকত্ব, নিজ জমিতে ফেরা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত না হওয়ার অজুহাত দেখিয়ে রোহিঙ্গারা নিজ দেশ মিয়ানমারে ফিরে যেতে রাজি নয়। পাশাপাশি প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার জন্য তালিকা তৈরির কথা শুনে তাদের অনেকেই ক্যাম্প ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করছেন।

সম্প্রতি বাংলাদেশে সফর করা জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের অভিমত, রাখাইনে প্রত্যাবাসনের সহায়ক পরিবেশ এখনো তৈরি হয়নি। তবে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার জানান, ১৫ নভেম্বর থেকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের জন্য বাংলাদেশ পুরোপুরি প্রস্তুত।

টেকনাফ কেরুণতলী প্রত্যাবাসন ঘাট। এখানে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের জন্য তৈরি হয়েছে ৩৩টি ঘর ও একটি জেটিঘাট। একইভাবে এই ঘাটটির মতো ঘুমধুমে আরো একটি ঘাটে তৈরি হয়েছে ৫৭টি ঘর। এসব ঘাট দিয়ে ১৫ নভেম্বর শুরু হবে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া। সোমবার সরজমিনে টেকনাফ ও নাইক্ষ্যংছড়ি গিয়ে এসব চিত্র দেখা যায়।


এদিকে, মিয়ানমার সফরের পর গত শনি ও রোববার জাতিসংঘের বিশেষ দূত ক্রিস্টিন এস বার্গনার এবং যুক্তরাষ্ট্রের আফ্রিকা-এশিয়ার শরণার্থী ও প্রত্যাবাসন বিষয়ক উপসহকারী মন্ত্রী রিচার্ড অলব্রাইট কক্সবাজারে এসে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন। তাদের মতে, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের জন্য এখনো মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সহায়ক পরিবেশ তৈরি হয়নি। একই অভিমত রোহিঙ্গাবিষয়ক জেলা টা ফোর্সের সদস্যেরও।

রোহিঙ্গাবিষয়ক জেলা টাস্কফোর্স সদস্য দিদারুল আলম রাশেদ বলেন, ‘গতবছরও রোহিঙ্গাদের নেওয়ার কথা হলেও তারা আদৌ নেয়নি। এই যে আবার তাদের নেওয়ার কথা চলছে, আমার কাছে সেটাও সন্দেহজনক।’

এ অবস্থায় প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার কথা শুনে আতঙ্কে আছেন রোহিঙ্গারা। তাদের দাবি, নাগরিকত্ব, নিরাপত্তা ও নিজ জমিতে ফেরার কোনো নিশ্চয়তা না দেওয়ায় দেশে ফিরে যাওয়ার মতো পরিস্থিতি এখনো সৃষ্টি হয়নি।

উখিয়ার জামতলি জি ব্লকের রোহিঙ্গা প্রতিনিধি (মাঝি নামে পরিচিতি) নুরুল আমিন বলেন, মানুষের যে সকল মৌলিক অধিকার আছে তা আমরা চাই। যেমন বিশেষ করে আমাদের নাগরিকত্ব, জমিজমা ও নিরাপত্তা। এসব মিয়ানমার নিশ্চিত করলে আমরা স্বদেশে ফিরতে অবশ্যই রাজি।


একই ক্যাম্পের রোহিঙ্গা ছৈয়দ আলম বলেন; মিয়ানমার আন্তর্জাতিক মহলের চাপে আমাদের মধ্যে কিছু রোহিঙ্গাকে নিয়ে যেতে চাচ্ছে। আবার যাদের নিয়ে যাবে তাদেরকে ক্যাম্পে রাখবে। এটি তো মিয়ানমারের চলচাতুরী।

তবে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার বললেন, ‘রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের জন্য বাংলাদেশ পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে। রিপিটিশন সেন্টার আমাদের ইতিমধ্যেই তৈরি হয়েছে। অন্যান্য প্রস্তুতির কাজ প্রায় শেষ। রোহিঙ্গাদের জানানো হয়েছে যে, মিয়ানমারে তাদের ফেরত পাঠানো হবে।’

ইতোমধ্যে প্রথম দফায় প্রত্যাবাসন হতে পারে এমন ২ হাজার ২৬০ জন রোহিঙ্গার তালিকা জাতিসংঘের কাছে হস্তান্তর করেছে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশন।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

অসুস্থ হয়ে পড়েছেন লতিফ সিদ্দিকী

অসুস্থ হয়ে পড়েছেন লতিফ সিদ্দিকী

আওয়ামী লীগের সাবেক মন্ত্রী টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী বর্তমানে জেলা প্রশাসকের

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের ৬ মাসের জামিন

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের ৬ মাসের জামিন

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা গুলশান থানার এক মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সালমান শাহ হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ১৮ ফেব্রুয়ারি

সালমান শাহ হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ১৮ ফেব্রুয়ারি

চিত্রনায়ক সালমান শাহ হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি জমা দেওয়ার দিন ধার্য করেছেন


অবাধ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনকে উৎসাহিত করে যুক্তরাষ্ট্র

অবাধ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনকে উৎসাহিত করে যুক্তরাষ্ট্র

মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্ল রবার্ট মিলার বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সব সময় সুষ্ঠু, অবাধ ও অংশগ্রহণমূলক শান্তিপূর্ণ

সুপ্রিম কোর্ট দিবসের উদ্বোধন করলেন প্রধান বিচারপতি

সুপ্রিম কোর্ট দিবসের উদ্বোধন করলেন প্রধান বিচারপতি

সুপ্রিম কোর্ট দিবস-২০১৮ এর উদ্বোধন ঘোষণা করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) দুপুরে

এএসপি মিজানের হত্যা মামলা তদন্ত প্রতিবেদন ২১ জানুয়ারি

এএসপি মিজানের হত্যা মামলা তদন্ত প্রতিবেদন ২১ জানুয়ারি

সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মিজানুর রহমান তালুকদার হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন পিছিয়ে আগামী ২১ জানুয়ারি দিন


আব্দুল্লাহপুর থেকে কাজলা সড়কে বসছে ৮৮টি সিসি ক্যামেরা

আব্দুল্লাহপুর থেকে কাজলা সড়কে বসছে ৮৮টি সিসি ক্যামেরা

রাজধানীর আব্দুল্লাহপুর থেকে কাজলা সড়কে বসানো হচ্ছে ৮৮টি সিসি ক্যামেরা। ৩৩টি পয়েন্টের ৩৮টি লোকেশনে এসব

যা আছে আ. লীগের ইশতেহারে

যা আছে আ. লীগের ইশতেহারে

‘সমৃদ্ধির অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ’ শীর্ষক ইশতেহারে গ্রামভিত্তিক উন্নয়ন তথা গ্রামে আধুনিক সুবিধার উপস্থিতি, শিল্প উন্নয়ন, স্থানীয়

নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ না থাকার অভিযোগ ভিত্তিহীন : সিইসি

নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ না থাকার অভিযোগ ভিত্তিহীন : সিইসি

: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নেই- এমন অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন



আরো সংবাদ



চীনে আইফোন বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা

চীনে আইফোন বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা

১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১১:০৫











ব্রেকিং নিউজ

অসুস্থ হয়ে পড়েছেন লতিফ সিদ্দিকী

অসুস্থ হয়ে পড়েছেন লতিফ সিদ্দিকী

১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৭:৫০







যা আছে আ. লীগের ইশতেহারে

যা আছে আ. লীগের ইশতেহারে

১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৫:১৭



রাশিয়া-চীনকে আরও কাছে চায় আ.লীগ

রাশিয়া-চীনকে আরও কাছে চায় আ.লীগ

১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৫:০৫

যা আছে বিএনপির ইশতেহারে

যা আছে বিএনপির ইশতেহারে

১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৫:০২