বাংলাদেশ বুধবার 12, December 2018 - ২৮, অগ্রাহায়ণ, ১৪২৫ বাংলা

আশুলিয়ায় গোপালবাড়ি বংশাই নদী পারাপারে শুকনো মৌসুমে বাঁশের সাঁকো আর বর্ষকালে নৌকাই একমাত্র ভরসা

আশুলিয়া ব্যুরো | প্রকাশিত ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২১:১৬:৫১

আশুলিয়ায় খড়¯্রােতা বংশাই নদীর পূর্বপারে ধামসোনা ইউপি’র সুবন্দি, ধামসোনা, দেবদাসা, মাইঝাইল, শিমুলিয়া ইউপি’র রণস্থল, বাঘেরতল, কালিকাপুর গ্রাম। ওই নদীর পশ্চিম পাড়ে শিমুলিয়া ইউপি’র চাঙ্গাদিয়া, কাছৈর, পাইছাইল ও ধামসোনা ইউপি’র দেবদাসা, গোপালবাড়ি, উনাইল, কন্ডা, নামা সুবনিন্দ। এসকল গ্রামের মধ্য দিয়ে বয়ে গেছে বর্ষাকালের ভয়ানক খড়স্রোতা নদী বংশাই। তবে এ সকল গ্রামে যাতায়াতের জন্য বর্ষাকালে ছোট ডিঙ্গি নৌকা পারাপারের একমাত্র ভরসা। আর শুকনো মৌসুমে পারাপারের জন্য একমাত্র বাঁশের সাঁকো দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে যাতায়াত করতে হয় কয়েক হাজার বাসিন্দাসহ স্কুল-কলেজগামী শত শত শিক্ষার্থীদের। স্বাধীনতার ৪৬ বছর এবং মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হলেও যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নতিসহ এলাকাবাসীর ভাগ্যের পরিবর্তন হয়নি আজো।
এলাকার সকল শ্রেণি পেশার মানুষের বিশেষ করে গোপালবাড়ি উনাইল এলাকার বাসিন্দাদের স্বপ্ন বংশাই নদীতে একটি সেতু বা ব্রীজ নির্মাণ। বংশানুক্রমে স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল তাদের। সেতু আর হলো না। তারা আরো জানায়, জানি না এ স্বপ্ন বাস্তবে কোনদিন রূপ নিবে কি-না। কারণ এখানে বছরের ৬ মাস পানি থাকে এবং বাকী ৬ মাস বাঁশের সাকোতে পারাপার হতে হয়। অর্থাৎ বছরের কার্তিক মাসে তৈরি করা হয় বাঁশের সাকো। তাও আবার বর্ষা আসলেই নদীর পানির স্রোতে ভেসে যায়। বছরের পর বছর ধরে এরকম দুর্ভোগ ও ভোগান্তি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে হাজারো মানুষকে।’
এ ব্যাপারে আশুলিয়ার ধামসোনা ইউপি’র গোপালবাড়ি নবীন প্রগতি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী সিনথিয়া বলেন, সাভার উপজেলার আশুলিয়া থানাধীন ধামসোনা ইউপি’র মূল ভূখন্ড থেকে গোপালবাড়ি ও উলাইল এলাকা একটি বিচ্ছিন্ন দ্বীপ। এ দ্বীপে রয়েছে গোপালবাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও উলাইল দাখিল মাদ্রাসা। এসকল প্রতিষ্ঠানে প্রায় দেড় হাজার শিক্ষার্থী লেখাপড়া করে। এজন্য বংশাই নদীর দু’পাড়ের শিক্ষার্থীদের নিয়মিত যাতায়াত করতে হয়। আর এ যাতায়াতের জন্য বর্ষা মৌসুমে ৬ মাস সীমাহীন দূর্ভোগে পড়তে হয় তাদের। এসময় প্রায় দিনই খড়¯্রােতা বংশাই নদীতে নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে। প্রতিবছর গড়ে ৩/৪ জন শিক্ষার্থী ও শিশুর সলিল সমাধি ঘটে। এছাড়া বই-পুস্তক, পরিহিত পোশাক ভিজা অবস্থায় ঝুঁকি নিয়ে তাদের চলতে হয়। তাছাড়া প্রয়োজনী জিনিসপত্র হারাতে হয় প্রায় সময়েই। আর শুকনো মৌসুমে একমাত্র বাঁশের সাঁকো দিয়ে তাদের যাতায়াত করতে হয়। তাও আবা পা ফসকে অনেকেই নদীতে পড়ে গিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। এভাবেই চলে দু’পাড়ের মানুষের প্রয়োজনে যাতায়াতের বিড়ম্বনা। এর আশু সমাধানের কোন প্রতিশ্রুতি সরকারের পক্ষ হতে বার বার দেয়া হলেও বাস্তবে কোন বাস্তবায়ন নেই বলেও জানান ওই শিক্ষার্থী।
ধামসোনা ইউপি’র গোপালবাড়ি ও ধামসোনা একালাকার বাসিন্দাদের প্রাণের দাবি বংশাই নদীর উপর একটি ব্রিজ প্রয়োজনের কথা। ধামসোনা ইউপির ধামসোনা গ্রাম, উলাইল, গোপালবাড়ি, মাইঝাইলসহ আশপাশের বেশ কয়েকটি গ্রামের হাজারো মানুষের চলাচলের জন্য এ নদী ব্যবহার করতে হয়। যে নদীর উপর নেই কোন ব্রিজ বা সেতু।
তবে ধামসোনা ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে গোপালবাড়ি এলাকার বংশাই নদীর ওপর বাঁশ দিয়ে সাঁকো তৈরি করে দেয়া হয়েছে। তাও আবার ছয় মাসের জন্য। কারণ ছয় মাস পরেই এ সাঁকো থাকে না। তখন এ নদী পারাপারের একমাত্র ভরসা হয় ডিঙ্গি নৌকার ওপর।
সরেজমিনে গেলে এ প্রতিনিধি অনেকেই ক্ষোভ নিয়ে জানান, নির্বাচন এলেই জনপ্রতিনিধিরা এ নদীর উপর দিয়ে চলাচলরত মানুষের দূর্ভোগ লাঘব করার জন্য প্রতিশ্রুতি দেয় একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হবে। নির্বাচন শেষ হলে কেউ আর খবর রাখে না। তবে এবারই প্রথম ধামসোনা ইউপি থেকে সাইফুল ইসলাম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর এ নদীর উপর বাঁশের একটি সাঁকো তৈরি করে দিয়েছে। তাতে একটু হলেও ছয় মাসের জন্য চলাচল করা যায়।
নদীর দক্ষিণ পার অর্থাৎ গোপালবাড়ি এলাকায় রয়েছে একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটি উচ্চ বিদ্যালয়, একটি মাদ্রাসা ও এতিমখানা। এসব স্কুল ও এতিমখানায় রয়েছে কয়েক হাজার শিক্ষার্থী।
কথা হয়, গোপালবাড়ি নবীন প্রগতি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জুবায়ের, ঝর্ণা, রাজিয়া সুলতানা, নাদিয়া আফরিন, অনিকা, মরিয়ম, শামীম, ইমরান, জাহিদুল ইসলাম ও আওয়াল এর সাথে।
তারা জানায়, বংশাই নদীর উপর বাঁশের এ সাঁকো দিয়ে তাদের প্রতিদিন স্কুলে আসতে হয় এবং বাড়ি যেতে হয়। বাঁশের সাঁকো আবার বর্ষার দিন আসলেই ভেঙ্গে যায়। ফলে সে সময় এ নদী পারাপারের একমাত্র বাহন তাকে নৌকা। অনেক সময় বর্ষার দিনে নৌকা দিয়ে এ নদী পারাপারের সময় নৌকা ডুবে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়। অনেক সময় বই খাতা ভিজে যায়। স্কুলে আসতে পারিনা।
এ নদীর উপর একটি ব্রিজের খুবই দরকার। ব্রিজ হলে সকলের মনের আশাপূরণ হবে। সকলেই নিরাপদে এবং স্বাচ্ছন্দে এ নদী পার হতে পারবে। তা-না হলে ব্রিজ-সেতু স্বপ্নের মতই রয়ে যাবে। তবে আমাদের দাবি ব্রিজ, আমরা আর স্বপ্ন দেখতে চাইনা। আমরা বাস্তবে এ নদীর উপর ব্রিজ দেখতে চাই। এলকার যারা জনপ্রতিনিধি রয়েছেন তারা অবশ্যই যেন বিষয়টি নজরে নিয়ে সকলের দুঃখ-দূর্দশা দূর করার প্রত্যাশা তাদের।
এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, গোপালবাড়ি এলাকার উত্তর পাশেই ধামসোনা বাজার। বাজারটি এ নদীর তীর ঘেঁষেই। প্রতিদিন সকালে বসে বাজার। বাজারে যাওয়া মানুষজন মালামল নিয়ে চরম ঝুঁকি নিয়ে বাঁশের সাকো পারাপার হয়ে থাকে। আর বর্ষা মৌসুমে ওই নদীর ঘাটে সাঁকোর পরির্বতে খেয়া নৌকায় পারাপার হয়। সে সময় যেন মানুষের ভোগান্তি বেড়ে যায় আরো কয়েকগুণ। বর্ষা মৌসুমে আবার রাত ১০টার পর নৌকা থাকে না। জরুরি প্রয়োজনে কোন মানুষ অসুস্থ্য বা মারা গেলে কোন প্রকার যোগাযোগ করা যায় না।
এছাড়া এলাকার প্রবীণরা জানান, আমাদের বয়স প্রায় ৬০ আবার কারো ৭০ বছর পার করলাম। আমার দাদা এবং বাবার কাছে শুনেছি যে, আগেতো এ নদীর উপর কোন বাঁশের সাঁকো ছিল না। তবে বর্ষা মৌসুমে নৌকা থাকতো। ওই নৌকা দিয়েই পারাপার হতে হতো। তবে শুকনো মৌসুমে নদীর পানির উপর দিয়ে চলাচল করতে হতো। তবে এবার ধামসোনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাহেব বাঁশ দিয়ে সাঁকো তৈরী করে দিয়েছেন।
এ ব্যাপারে ধামসোনা ইউনিয়ন পরিষদের ২নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ আব্দুল কুদ্দুস জানান, যেখানে যেখানে ব্রীজটি বাস্তবায়ন প্রক্রিয়াধীন আছে সেখানে জোড় প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এ নদীর উপর এখন যে সাঁকোটা হয়েছে আগে সেটাও ছিল না। আমাদের বর্তমান চেয়ারম্যান মাধ্যমে মানুষের ভোগান্তির আর দূর্ভোগের কথা চিন্তা করেই নির্মাণ করা হয়েছে। এটা অস্থায়ীভাবে তৈরী করা হয়েছে। কারণ বর্ষা আসলেই নদীর পানির প্রবল স্রোতে ভেঙ্গে যায়। ফলে এ অঞ্চলের লোকজনদেরকে চরম দূর্ভোগ নিয়ে এ নদী পারাপার হতে হয়।
বর্তমান ধামসোনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বলেন, সয়েল টেষ্ট হয়েছে, বিভিন্ন পর্যায়ে টেন্ডার হয়েছে, প্রাথমিক পর্যায়ের কাজ গুলো শেষ হয়েছে এবং সরকারি বিভিন্ন সংস্থার কর্মকর্তাগন পরিদর্শন করেছেন, আশা করি দ্রুত এ এলাকার মানুষের স্বপ্ন পূরন হবে ।
এভাবেই বছরের পর বছর এ নদীর উপর একটি ব্রিজের স্বপ্ন দেখে এ অঞ্চলের লোকজন। চোখে স্বপ্ন নিয়ে চরম দুর্ভোগ আর ভোগান্তির মধ্যে পারাপার হচ্ছে দুই পারের হাজার হাজার মানুষ। আর নদী পারাপাররে জন্য একমাত্র সম্বল তাদের বাশেঁর সাকো এবং বর্ষায় ডিঙ্গি নৌকা। কবে হবে ব্রিজ মুক্তি পাবে এলাকাবাসী?


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

নির্বাচনী প্রচারে টুঙ্গিপাড়ার পথে প্রধানমন্ত্রী

নির্বাচনী প্রচারে টুঙ্গিপাড়ার পথে প্রধানমন্ত্রী

 একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আনুষ্ঠানিক প্রচারণায় ঠাকুরগাঁওয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের গাড়িবহরে হামলার

থেমে গেল নরেন্দ্র মোদির বিজয়রথ!

থেমে গেল নরেন্দ্র মোদির বিজয়রথ!

‘বিনম্র চিত্তে জনাদেশ গ্রহণ করছি’। বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশিত হওয়ার পর এভাবে টুইট করেন ভারতের

নির্বাচনের মাসে অনুমোদন পেল বেঙ্গল ব্যাংক, পিপলস-সিটিজেনকে ‘না’

নির্বাচনের মাসে অনুমোদন পেল বেঙ্গল ব্যাংক, পিপলস-সিটিজেনকে ‘না’

বিভিন্ন মহলের লবিং ও সরকারের চাপে এই নির্বাচনের মাসে রাজনৈতিক বিবেচনায় বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংককে নীতিগত


ফরিদপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আ.লীগ নেতা নিহত

ফরিদপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আ.লীগ নেতা নিহত

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের প্রচারের দ্বিতীয় দিনেই প্রাণ ঝরল ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনে। প্রতিপক্ষের হামলায়

ভোটের উত্তাপে উত্তপ্ত হচ্ছে পরিবেশ

ভোটের উত্তাপে উত্তপ্ত হচ্ছে পরিবেশ

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে,

বিএনপির দুর্দিনের যাত্রীদের দীর্ঘশ্বাস!

বিএনপির দুর্দিনের যাত্রীদের দীর্ঘশ্বাস!

৩০ ডিসেম্বরের ভোট সামনে রেখে দলীয় নেতাদের ২৪২, আর দুই জোটকে ৫৮টি আসন দিয়ে প্রার্থী


আশুলিয়ায় বিএনপি প্রার্থীর পোস্টার ছেঁড়া ও লাগাতে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ

আশুলিয়ায় বিএনপি প্রার্থীর পোস্টার ছেঁড়া ও লাগাতে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ

আশুলিয়া ব্যুরো : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন কমিশন প্রতীক বরাদ্দের

৯ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ ডিবি প্রমাণ করলেও ব্যর্থ পিবিআই

৯ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ ডিবি প্রমাণ করলেও ব্যর্থ পিবিআই

ঢাকায় প্রথমবারের মতো কাতারের ভিসা সেন্টার (কিউভিসি) চালু হয়েছে। কাতারে অভিবাসন প্রত্যাশীদের ভিসা প্রসেসিং ও

কোনো দল নয়, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে সমর্থন যুক্তরাষ্ট্রের

কোনো দল নয়, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে সমর্থন যুক্তরাষ্ট্রের

নির্বাচনে সবার শান্তিপূর্ণ আচরণ প্রত্যাশা করে মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার বলেছেন, রাজনৈতিক দল হোক



আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ











ড. কামাল হোসেন সিলেট যাচ্ছেন

ড. কামাল হোসেন সিলেট যাচ্ছেন

১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৯:৩১