বাংলাদেশ বুধবার 18, July 2018 - ৩, শ্রাবণ, ১৪২৫ বাংলা

northbangla 24

এটিও’র আবেদন থেকে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ

১৪ মে, ২০১৬ ০১:১৩:২৫

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ দ্রুত পূরণের জন্য উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারের (এটিও) আবেদন থেকে নিয়োগ দেবে সরকার।

বিসিএস নন-ক্যাডার প্রথম শ্রেণির পদের মতো প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এছাড়া প্রধান শিক্ষকের প্রায় ছয় হাজার পদে নিয়োগ সম্পন্নের জন্য মন্ত্রণালয় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

গত ৭ এপ্রিল ৫ হাজার ৭৯৭ পদে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য পিএসসিতে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয় শাখার এক কর্মকর্তা।

তিনি আরও জানান, একটি সভায় এটিও’র আবেদন থেকে প্রার্থী নিয়োগের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এটিও’র প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আবেদন পড়েছিলো প্রায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ২৪৮টি। ১৪৪টি পদে নিয়োগের জন্য সরাসরি ৫০ শতাংশ এবং বাকি পদ বিভাগীয় প্রার্থীর মাধ্যমে নিয়োগের কথা ছিলো বিজ্ঞপ্তিতে।

প্রাথমিকের সরকারি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের (বিভাগীয় প্রার্থী) মধ্য থেকে ৫০ শতাংশ পদ পূরণ না হলে সাধারণ কোটা থেকে নেওয়ার কথা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের ১৬ হাজার ৬৬৭টি পদ শূন্য রয়েছে।

এটিও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা পদ স্বল্পতার কারণে নিয়োগ পাবেন না, তাদের মধ্য থেকে বিসিএস নন-ক্যাডারের মতো প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান এক কর্মকর্তা।

এ প্রসঙ্গ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আলোচনায় রয়েছে।

প্রধান শিক্ষকদের পদ যেহেতু দ্বিতীয় শ্রেণির, সেহেতু এটিও পদ না পাওয়া প্রার্থীরা সম্মত থাকলে তাদের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে।

- See more at: http://bdnews24online.com/2016/05/04/%e0%a6%8f%e0%a6%9f%e0%a6%bf%e0%a6%93%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%a6%e0%a6%a8-%e0%a6%a5%e0%a7%87%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8/#sthash.kvU4Y8k2.dpuf

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ দ্রুত পূরণের জন্য উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারের (এটিও) আবেদন থেকে নিয়োগ দেবে সরকার।

বিসিএস নন-ক্যাডার প্রথম শ্রেণির পদের মতো প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এছাড়া প্রধান শিক্ষকের প্রায় ছয় হাজার পদে নিয়োগ সম্পন্নের জন্য মন্ত্রণালয় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

গত ৭ এপ্রিল ৫ হাজার ৭৯৭ পদে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য পিএসসিতে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয় শাখার এক কর্মকর্তা।

তিনি আরও জানান, একটি সভায় এটিও’র আবেদন থেকে প্রার্থী নিয়োগের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এটিও’র প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আবেদন পড়েছিলো প্রায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ২৪৮টি। ১৪৪টি পদে নিয়োগের জন্য সরাসরি ৫০ শতাংশ এবং বাকি পদ বিভাগীয় প্রার্থীর মাধ্যমে নিয়োগের কথা ছিলো বিজ্ঞপ্তিতে।

প্রাথমিকের সরকারি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের (বিভাগীয় প্রার্থী) মধ্য থেকে ৫০ শতাংশ পদ পূরণ না হলে সাধারণ কোটা থেকে নেওয়ার কথা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের ১৬ হাজার ৬৬৭টি পদ শূন্য রয়েছে।

এটিও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা পদ স্বল্পতার কারণে নিয়োগ পাবেন না, তাদের মধ্য থেকে বিসিএস নন-ক্যাডারের মতো প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান এক কর্মকর্তা।

এ প্রসঙ্গ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আলোচনায় রয়েছে।

প্রধান শিক্ষকদের পদ যেহেতু দ্বিতীয় শ্রেণির, সেহেতু এটিও পদ না পাওয়া প্রার্থীরা সম্মত থাকলে তাদের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে।

- See more at: http://bdnews24online.com/2016/05/04/%e0%a6%8f%e0%a6%9f%e0%a6%bf%e0%a6%93%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%a6%e0%a6%a8-%e0%a6%a5%e0%a7%87%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8/#sthash.kvU4Y8k2.dpuf

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ দ্রুত পূরণের জন্য উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারের (এটিও) আবেদন থেকে নিয়োগ দেবে সরকার।

বিসিএস নন-ক্যাডার প্রথম শ্রেণির পদের মতো প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এছাড়া প্রধান শিক্ষকের প্রায় ছয় হাজার পদে নিয়োগ সম্পন্নের জন্য মন্ত্রণালয় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

গত ৭ এপ্রিল ৫ হাজার ৭৯৭ পদে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য পিএসসিতে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয় শাখার এক কর্মকর্তা।

তিনি আরও জানান, একটি সভায় এটিও’র আবেদন থেকে প্রার্থী নিয়োগের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এটিও’র প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আবেদন পড়েছিলো প্রায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ২৪৮টি। ১৪৪টি পদে নিয়োগের জন্য সরাসরি ৫০ শতাংশ এবং বাকি পদ বিভাগীয় প্রার্থীর মাধ্যমে নিয়োগের কথা ছিলো বিজ্ঞপ্তিতে।

প্রাথমিকের সরকারি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের (বিভাগীয় প্রার্থী) মধ্য থেকে ৫০ শতাংশ পদ পূরণ না হলে সাধারণ কোটা থেকে নেওয়ার কথা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের ১৬ হাজার ৬৬৭টি পদ শূন্য রয়েছে।

এটিও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা পদ স্বল্পতার কারণে নিয়োগ পাবেন না, তাদের মধ্য থেকে বিসিএস নন-ক্যাডারের মতো প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান এক কর্মকর্তা।

এ প্রসঙ্গ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আলোচনায় রয়েছে।

প্রধান শিক্ষকদের পদ যেহেতু দ্বিতীয় শ্রেণির, সেহেতু এটিও পদ না পাওয়া প্রার্থীরা সম্মত থাকলে তাদের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে।

- See more at: http://bdnews24online.com/2016/05/04/%e0%a6%8f%e0%a6%9f%e0%a6%bf%e0%a6%93%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%a6%e0%a6%a8-%e0%a6%a5%e0%a7%87%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8/#sthash.kvU4Y8k2.dpuf

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ দ্রুত পূরণের জন্য উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারের (এটিও) আবেদন থেকে নিয়োগ দেবে সরকার।

বিসিএস নন-ক্যাডার প্রথম শ্রেণির পদের মতো প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এছাড়া প্রধান শিক্ষকের প্রায় ছয় হাজার পদে নিয়োগ সম্পন্নের জন্য মন্ত্রণালয় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

গত ৭ এপ্রিল ৫ হাজার ৭৯৭ পদে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য পিএসসিতে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয় শাখার এক কর্মকর্তা।

তিনি আরও জানান, একটি সভায় এটিও’র আবেদন থেকে প্রার্থী নিয়োগের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এটিও’র প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আবেদন পড়েছিলো প্রায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ২৪৮টি। ১৪৪টি পদে নিয়োগের জন্য সরাসরি ৫০ শতাংশ এবং বাকি পদ বিভাগীয় প্রার্থীর মাধ্যমে নিয়োগের কথা ছিলো বিজ্ঞপ্তিতে।

প্রাথমিকের সরকারি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের (বিভাগীয় প্রার্থী) মধ্য থেকে ৫০ শতাংশ পদ পূরণ না হলে সাধারণ কোটা থেকে নেওয়ার কথা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের ১৬ হাজার ৬৬৭টি পদ শূন্য রয়েছে।

এটিও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা পদ স্বল্পতার কারণে নিয়োগ পাবেন না, তাদের মধ্য থেকে বিসিএস নন-ক্যাডারের মতো প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান এক কর্মকর্তা।

এ প্রসঙ্গ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আলোচনায় রয়েছে।

প্রধান শিক্ষকদের পদ যেহেতু দ্বিতীয় শ্রেণির, সেহেতু এটিও পদ না পাওয়া প্রার্থীরা সম্মত থাকলে তাদের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে।

- See more at: http://bdnews24online.com/2016/05/04/%e0%a6%8f%e0%a6%9f%e0%a6%bf%e0%a6%93%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%a6%e0%a6%a8-%e0%a6%a5%e0%a7%87%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8/#sthash.kvU4Y8k2.dpuf

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ দ্রুত পূরণের জন্য উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারের (এটিও) আবেদন থেকে নিয়োগ দেবে সরকার।

বিসিএস নন-ক্যাডার প্রথম শ্রেণির পদের মতো প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এছাড়া প্রধান শিক্ষকের প্রায় ছয় হাজার পদে নিয়োগ সম্পন্নের জন্য মন্ত্রণালয় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

গত ৭ এপ্রিল ৫ হাজার ৭৯৭ পদে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য পিএসসিতে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয় শাখার এক কর্মকর্তা।

তিনি আরও জানান, একটি সভায় এটিও’র আবেদন থেকে প্রার্থী নিয়োগের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এটিও’র প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আবেদন পড়েছিলো প্রায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ২৪৮টি। ১৪৪টি পদে নিয়োগের জন্য সরাসরি ৫০ শতাংশ এবং বাকি পদ বিভাগীয় প্রার্থীর মাধ্যমে নিয়োগের কথা ছিলো বিজ্ঞপ্তিতে।

প্রাথমিকের সরকারি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের (বিভাগীয় প্রার্থী) মধ্য থেকে ৫০ শতাংশ পদ পূরণ না হলে সাধারণ কোটা থেকে নেওয়ার কথা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের ১৬ হাজার ৬৬৭টি পদ শূন্য রয়েছে।

এটিও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা পদ স্বল্পতার কারণে নিয়োগ পাবেন না, তাদের মধ্য থেকে বিসিএস নন-ক্যাডারের মতো প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান এক কর্মকর্তা।

এ প্রসঙ্গ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আলোচনায় রয়েছে।

প্রধান শিক্ষকদের পদ যেহেতু দ্বিতীয় শ্রেণির, সেহেতু এটিও পদ না পাওয়া প্রার্থীরা সম্মত থাকলে তাদের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে।

- See more at: http://bdnews24online.com/2016/05/04/%e0%a6%8f%e0%a6%9f%e0%a6%bf%e0%a6%93%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%a6%e0%a6%a8-%e0%a6%a5%e0%a7%87%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8/#sthash.kvU4Y8k2.dpuf

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ দ্রুত পূরণের জন্য উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারের (এটিও) আবেদন থেকে নিয়োগ দেবে সরকার।

বিসিএস নন-ক্যাডার প্রথম শ্রেণির পদের মতো প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এছাড়া প্রধান শিক্ষকের প্রায় ছয় হাজার পদে নিয়োগ সম্পন্নের জন্য মন্ত্রণালয় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) প্রস্তাব পাঠিয়েছে।

গত ৭ এপ্রিল ৫ হাজার ৭৯৭ পদে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য পিএসসিতে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয় শাখার এক কর্মকর্তা।

তিনি আরও জানান, একটি সভায় এটিও’র আবেদন থেকে প্রার্থী নিয়োগের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গত ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এটিও’র প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আবেদন পড়েছিলো প্রায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ২৪৮টি। ১৪৪টি পদে নিয়োগের জন্য সরাসরি ৫০ শতাংশ এবং বাকি পদ বিভাগীয় প্রার্থীর মাধ্যমে নিয়োগের কথা ছিলো বিজ্ঞপ্তিতে।

প্রাথমিকের সরকারি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের (বিভাগীয় প্রার্থী) মধ্য থেকে ৫০ শতাংশ পদ পূরণ না হলে সাধারণ কোটা থেকে নেওয়ার কথা।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের ১৬ হাজার ৬৬৭টি পদ শূন্য রয়েছে।

এটিও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা পদ স্বল্পতার কারণে নিয়োগ পাবেন না, তাদের মধ্য থেকে বিসিএস নন-ক্যাডারের মতো প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান এক কর্মকর্তা।

এ প্রসঙ্গ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আলোচনায় রয়েছে।

প্রধান শিক্ষকদের পদ যেহেতু দ্বিতীয় শ্রেণির, সেহেতু এটিও পদ না পাওয়া প্রার্থীরা সম্মত থাকলে তাদের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে।

- See more at: http://bdnews24online.com/2016/05/04/%e0%a6%8f%e0%a6%9f%e0%a6%bf%e0%a6%93%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%a6%e0%a6%a8-%e0%a6%a5%e0%a7%87%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8/#sthash.kvU4Y8k2.dpuf

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের শূন্য পদ দ্রুত পূরণের জন্য উপজেলা/থানা শিক্ষা অফিসারের (এটিও) আবেদন থেকে নিয়োগ দেবে সরকার।  বিসিএস নন-ক্যাডার প্রথম শ্রেণির পদের মতো প্রধান শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।  এছাড়া প্রধান শিক্ষকের প্রায় ছয় হাজার পদে নিয়োগ সম্পন্নের জন্য মন্ত্রণালয় সরকারি কর্ম কমিশনে (পিএসসি) প্রস্তাব পাঠিয়েছে।  গত ৭ এপ্রিল ৫ হাজার ৭৯৭ পদে প্রধান শিক্ষক নিয়োগের জন্য পিএসসিতে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয় শাখার এক কর্মকর্তা।  তিনি আরও জানান, একটি সভায় এটিও’র আবেদন থেকে প্রার্থী নিয়োগের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে।  গত ২৯ এপ্রিল অনুষ্ঠিত এটিও’র প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় আবেদন পড়েছিলো প্রায় ১ লাখ ৫৩ হাজার ২৪৮টি। ১৪৪টি পদে নিয়োগের জন্য সরাসরি ৫০ শতাংশ এবং বাকি পদ বিভাগীয় প্রার্থীর মাধ্যমে নিয়োগের কথা ছিলো বিজ্ঞপ্তিতে।  প্রাথমিকের সরকারি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের (বিভাগীয় প্রার্থী) মধ্য থেকে ৫০ শতাংশ পদ পূরণ না হলে সাধারণ কোটা থেকে নেওয়ার কথা।  প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে প্রধান শিক্ষকের ১৬ হাজার ৬৬৭টি পদ শূন্য রয়েছে।  এটিও পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা পদ স্বল্পতার কারণে নিয়োগ পাবেন না, তাদের মধ্য থেকে বিসিএস নন-ক্যাডারের মতো প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান এক কর্মকর্তা।  এ প্রসঙ্গ মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি আলোচনায় রয়েছে।  প্রধান শিক্ষকদের পদ যেহেতু দ্বিতীয় শ্রেণির, সেহেতু এটিও পদ না পাওয়া প্রার্থীরা সম্মত থাকলে তাদের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া যেতে পারে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন


এ সম্পর্কিত খবর

সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচন হবে: ভারতীয় হাই কমিশনার

সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচন হবে: ভারতীয় হাই কমিশনার

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার

বামদলগুলোর নির্বাচনি জোট আসছে

বামদলগুলোর নির্বাচনি জোট আসছে

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বামদলগুলোর একটি নির্বাচনি জোট আসছে। আগামীকাল মঙ্গলবার (১৮

ডাকাতি-ছিনতাইয়ে আবারও সক্রিয় জেএমবি!

ডাকাতি-ছিনতাইয়ে আবারও সক্রিয় জেএমবি!

 দীর্ঘ বিরতির পর নতুনভাবে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে নিষিদ্ধঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ


ডিআইজি মিজান সাময়িক বরখাস্ত

ডিআইজি মিজান সাময়িক বরখাস্ত

বহুল আলোচিত নারী কেলেঙ্কারির জন্য পুলিশের বির্তকিত ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার-ডিআইজি মিজানুর রহমানকে সাময়িক

মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষক নিয়োগের বয়সসীমা ৩৫

মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষক নিয়োগের বয়সসীমা ৩৫

 বেসরকারি কারিগরি ও মাদরাসায় শিক্ষক নিয়োগের বয়সসীমা ৩৫ বছর নির্ধারণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৭ জুলাই)

হল-মার্কের জেসমিনের মেডিকেল প্রতিবেদন চান হাইকোর্ট

হল-মার্কের জেসমিনের মেডিকেল প্রতিবেদন চান হাইকোর্ট

 অর্থ আত্মসাৎ মামলায় হল–মার্কের চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলামের মেডিকেল প্রতিবেদন (রিপোর্ট) চেয়েছেন হাইকোর্ট। জেসমিন ইসলামকে নিয়ে


ধলেশ্বরী নদী পরিদর্শন করলেন নদী রক্ষা কমিশনের ৫ সদস্যের কমিটি

ধলেশ্বরী নদী পরিদর্শন করলেন নদী রক্ষা কমিশনের ৫ সদস্যের কমিটি

সিংগাইরের ধলেশ্বরী নদীর অবৈধ দখল উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশন গঠিত ৫

আশুলিয়ায় অটো চালক সমিতির সদস্যদের সাথে চাঁদাবাজদের সংঘর্ষ : আহত-৫

আশুলিয়ায় অটো চালক সমিতির সদস্যদের সাথে চাঁদাবাজদের সংঘর্ষ : আহত-৫

আশুলিয়া ব্যুরো : আশুলিয়ায় অটোচালক ও চাঁদাবাজদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। ঘটনায় ৫

বিসিকের মহাব্যবস্থাপক এক সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ

বিসিকের মহাব্যবস্থাপক এক সপ্তাহ ধরে নিখোঁজ

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন- বিসিকের একজন মহাব্যবস্থাপক এক সপ্তাহ ধরে



আরো সংবাদ












ব্রেকিং নিউজ



ডিআইজি মিজান সাময়িক বরখাস্ত

ডিআইজি মিজান সাময়িক বরখাস্ত

১৭ জুলাই, ২০১৮ ২১:০৩