টোকিও অলিম্পিককে ঘিরে শঙ্কা দিনকে দিনকে আরও ঘনীভূত হচ্ছে। মহামারি করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিশ্বের অনেক আন্তর্জাতিক ইভেন্ট বন্ধ হয়ে গেছে। তবে অলিম্পিকের আগে যেহেতু হাতে এখনও সময় আছে, তাই এখনও বাতিল ঘোষণা করা হয়নি বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া ইভেন্টটি।

আগামী ২৪ জুলাই থেকে টোকিওতে শুরু হওয়ার কথা অলিম্পিকের এবারের আসর। তবে বিশ্বের অন্যান্য জায়গার মতো জাপানেও করোনা পরিস্থিতি দিনে দিনে জটিল আকার ধারণ করছে। এখন পর্যন্ত ৮৩৩ জন আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে, মারা গেছেন ২৭ জন। এমতাবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও টোকিও অলিম্পিক স্থগিত করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তবে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে এবং অলিম্পিকের আয়োজকরা বলছেন, নির্ধারিত সূচি মেনেই অলিম্পিক শুরুর যাবতীয় প্রস্তুতি চলছে। টোকিও অলিম্পিকের উপর করোনাভাইরাসের কোনই প্রভাব পড়বে না।

যদিও জনমত পুরোপুরি বিপরীতে। এক জরিপে পাওয়া গেছে, জাপানের প্রায় অর্ধেক মানুষই এই ইভেন্ট আয়োজনের বিরোধিতা করছেন। পাবলিক ব্রডকাস্টার এনএইচকে’র ৬ থেকে ৯ মার্চ পর্যন্ত চালানো এক জরিপে দেখা গেছে, জাপানের ৪৫ ভাগ নাগরিক টোকিও অলিম্পিক আয়োজনকে ‘না’ বলছেন, ৪০ ভাগ রায় দিয়েছেন পক্ষে।

japan

একটি ইন্টারনেট কোম্পানিতে কাজ করা ২৭ বছর বয়সী কোকি মিইরা সংবাদ সংস্থা ‘এফপি’কে বলেন, ‘সত্যি করে বলতে, জাপান যদি এই বিপর্যয় সামলেও ওঠে, আমরা বাইরের মানুষদের স্বাগত জানাব না। আমরা এটার জন্য (অলিম্পিক) মানুষের জীবন বিসর্জন দিতে পারি না।’

এদিকে টোকিও অলিম্পিকের ভবিষ্যত নির্ধারণে মঙ্গলবার এক জরুরি বৈঠকে বসার কথা আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (আইওসি)। সেখানে আন্তর্জাতিক স্পোর্টস ফেডারেশনগুলোর সঙ্গে কথা বলবে তারা।