ধামরাই প্রতিনিধি : ধামরাইয়ে রপ্তানিমুখী এক গার্মেন্ট কোম্পানির কয়েক একর জমিতে মাটি ভরাটকে কেন্দ্র করে সোমবার রাতে কয়েক দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছে। ভাংচুর করা হয়েছে প্রায় ১০ টি মোটর সাইকেল। আহতদের মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় সোমরাতে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের এক্সেল লোড কন্ট্রোল স্টেশনের কাছে।

আরো পড়ুন : সাভারে গোলাপ বাগানের সঙ্গে এ কেমন শত্রুতা


জানা গেছে, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে ধামরাইয়ের বাথুলীর ললিতনগরে একে এইচ নিটিং এন্ড ডাইং লিমিটেড এর প্রস্তাবিত নতুন ইউনিটের কয়েক একর জমিতে মাটি ভরাটের কার্যাদেশ পান ইমরুল সিকদার ও আনোয়ার হোসেনসহ কয়েকজন ঠিকাদারের নামে। গত একমাস ধরে মাটিভরাটের কাজ চলছে সেখানে। এরইমধ্যে বাথুলী এলাকার মাসুম, মজিবর, দেলোয়ার, লোকমান, শফিকুল ও সাগরের নেতৃত্বে কয়েক দফা হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয় প্রস্তাবিত ইউনিটের সীমানা প্রাচিরের প্রধান ফটক। সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে তারা সন্ত্রাসী কায়দায় ফের হামলা চালিয়ে প্রধান ফটক ভাংচুর করে। এসময় উভয়পক্ষের মধ্যে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে তাদের ধাওয়া করে। সেখান থেকে পুলিশ চলে আসার পর ফের হামলা চালিয়ে অফিসের বাইরে রাখা ঠিকাদারের লোকজনের ১০টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করে।

আরো পড়ুন : সাভারে প্রায় লাখ টাকা মূল্যের জাটকা ইলিশ জব্দ

এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়াধাওয়ির ঘটনা ঘটে। এতে সামসুল আলম, আজিজুল, শামিমসহ কমপক্ষে ৭জন আহত হয়। তাদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় সামসুলকে মানিকগঞ্জ সদর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের ধাওয়া করে। এঘটনায় এলাকায় উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যেকোন মুহুর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। এ ঘটনায় ইমরুল সিকদার বাদি হয়ে সোমবার রাতে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। ইমরুল জানান, চাঁদার দাবিতে সন্ত্রাসীরা কয়েক দফা হামলা চালিয়ে আমাদের কয়েকটি মোটর সাইকেল ভাংচুর করেছে।
এদিকে মজিবর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, চাঁদাদাবি করা হয়নি। আমাদের কাজ দিতে হবে। তা না হলে হামলা আরো হবে।

আরো পড়ুন : আশুলিয়ায় ৪৮২ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক ৩

ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, একেএইচ গ্রুপের একটি ইউনিটে মাটিভরাটকে কেন্দ্র করে হামলার ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।