ভারতীয় ক্রিকেট দলের হেড কোচ থেকে শুরু করে বোর্ডের কর্মকর্তারা কয়েকবার সরাসরিই বলেছেন, আইপিএলের পারফরম্যান্স বিবেচনা করে মহেন্দ্র সিং ধোনিকে জাতীয় দলে ফেরানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। সে কথা মোতাবেক আইপিএলের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক ধোনি।

কিন্তু প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে এখন আইপিএলের ভবিষ্যতই পড়ে গেছে শঙ্কার মুখে। চলতি মাসের ২৯ তারিখে শুরু হওয়ার কথা ছিলো এবারের আইপিএল। যা ১৭ দিন পিছিয়ে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। এখনও জানানো হয়নি আইপিএলের নতুন সূচি। এটিও নিশ্চিত নয় যে, আদৌ এবারের আইপিএল মাঠে গড়াবে কি না।

তাহলে ধোনির ব্যাপারে কীভাবে সিদ্ধান্ত নেবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটিই কি হয়ে থাকবে ‘ক্যাপ্টেন ক্যুল’র শেষ ম্যাচ?- এমন অনেক প্রশ্নই ঘুরছে ধোনির ভবিষ্যত ক্যারিয়ারের ব্যাপারে।

এ বিষয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বা হেড কোচ কিছু জানায়নি এখনও। তবে দেশটির সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমানে ক্রিকেট বিশ্লেষক-ধারাভাষ্যকার হিসেবে সুপরিচিত আকাশ চোপড়া জানিয়েছেন নিজের মতামত। তার মতে, ধোনির ক্যারিয়ারের গতিবিধি ঠিক করার জন্য আইপিএলের বিশেষ দরকার নেই। ধোনি যা করছে তাই যথেষ্ঠ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার জন্য।

আকাশ বলেন, ‘ধোনির মত একজন ক্রিকেটারের জন্য আইপিএল কখনও মানদণ্ড হতে পারে না। যদি সে আইপিএলে রান করে, তখন হয়তো বিশেষজ্ঞরা বলবে যে ধোনিকে দলে নাও, এই করো, সেই কর। আমি মনে করি ধোনি জানে সে কী করছে, সে দলে ফিরতে চায় নাকি না।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আইপিএল খুব একটা জটিল কোনো বিষয় নয়। ধোনি যদি ফিরতে চায়, তাহলে জানাবে সে খেলতে প্রস্তত। এরপর নির্বাচকরা যদি তাকে নেয়ার ইচ্ছাপোষণ করেই থাকে, তাহলে অটোমেটিক্যালি সুযোগ পেয়ে যাবে। কারণ আপনি বাজারের দোকানে গিয়ে অভিজ্ঞতা কিনতে পারবেন না। ধোনির অভিজ্ঞতা অনেক অনেক বেশি। যদি ধোনিকে প্রয়োজন হয় ভারতের, তাহলে সে ফিরবেই। আইপিএল হোক বা না হোক।’