করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকীর কর্মসূচি। আগামী ২১ ও ২৯ মার্চ একটি সিটি করপোরেশন এবং পাঁচটি সংসদীয় আসনে উপ-নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। তবে করোনা সংক্রমণরোধে এই নির্বাচনগুলো বন্ধ করা হবে কি-না, এ বিষয়ে এখনও সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। বুধবার (১৮ মার্চ) দুপুর আড়াইটার দিকে নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। পরিস্থিতির ওপর ভিত্তি করে আমরা সিদ্ধান্ত দেব।’ তিনি এ-ও জানান, ২১ ও ২৯ মার্চ ভোট হবে কি-না, বিষয়টি নিয়ে এখনও বৈঠকে বসেনি নির্বাচন কমিশন।

আরো পড়ুন : করোনা রোগীর সংস্পর্শে ঢামেকের ৪ চিকিৎসক হোম কোয়ারেন্টাইনে

আগামী ২১ মার্চ ঢাকা-১০, গাইবান্ধা-৩ ও বাগেরহাট-৪ আসনে উপ-নির্বাচনে ভোট হওয়ার কথা রয়েছে। মাঝখানে বাকি আছে আর মাত্র দুইদিন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এখন আমরা সিচুয়েশনকে অ্যাড্রেস (করোনা পরিস্থিতি বোঝা বা চিহ্নিত করা) করতেছি। যদি ওরকম প্রয়োজন হয়, তাহলে আমরা সিদ্ধান্ত নেব বিভিন্ন দিক আলোচনা করে। যদি বর্তমান অবস্থা থাকে, এখনও যেহেতু চলতেছে, তাহলে এটা কন্টিনিউ করব। সিচুয়েশনের ওপর ভিত্তি করে সিদ্ধান্ত নেব আমরা।’

আরো পড়ুন : ঢাকায় রাস্তায় বাস কমেছে, বেড়েছে বাড়ি ফেরার চাপ

আগামী ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচন, বগুড়া-১ ও যশোর-৬ উপ-নির্বাচনের ভোট হওয়ার কথা রয়েছে।