মরণব্যাধি করোনা থেকে বাঁচার অন্যতম উপায় হলো হাত দু’টি পরিষ্কার রাখা! কোনো কিছু স্পর্শ করার পরপরই সাবান পানি দিয়ে হাত পরিষ্কার করা এখন সবার জন্যই বাধ্যতামূলক। তবে কখনো কি ভেবে দেখেছেন, চিকিৎসকরা ঠিক কীভাবে নিজেদেরকে এই ভাইরাস থেকে রক্ষা করছেন?

জানলে আঁতকে উঠবেন, ঠিক কতবার তারা দৈনিক হাত ধুয়ে থাকেন? একে তো ভারী পোশাকে শরীর ঢেকে রাখা, পাশাপাশি হাতে কয়েক দফায় গ্লাভস পড়েন তারা। এছাড়াও মুখে মাস্ক তো আছেই। সব মিলিয়েই অত্যন্ত কষ্ট করে হলেও চিকিৎসকরা করোনা থেকে রোগীদের বাঁচাতে দিন রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তার উপরে আবার দফায় দফায় হাত ধোয়ার ঝামেলা তো আছেই!

বিশ্বের প্রায় দুই শতাধিক দেশে করোনাভাইরাসটি নিরবে ছড়িয়ে পড়ছে। বিশ্ববাসীর মনে এখন আতঙ্ক। ঠিক সেই সময় প্রকাশ হলো, কতটা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চিকিৎসকরা এই ভাইরাস মোকাবিলা করছেন। মাত্র ৪৭ সেকেন্ডের একটি ভিডিওচিত্রে দেখানো হয়েছে একজন চিকিৎসক ঠিক কতবার হাত ধুচ্ছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এরই মধ্যে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে। আর তা দেখে বিশ্ববাসী হতবাক!

ভিডিওটি দেখুন এখানে>>>

অনেকেই ভিডিওটির নিচে কমেন্ট করেছেন, সালাম জানায় চিকিৎসকদের। আবার কেউ লিখেছেন, তাদের সাহসিকতার জন্যই হাজারো প্রাণ বেঁচে যাচ্ছে। অনেকেই আবার বলেছেন, তাদেরকে দেখে উৎসাহ পেলাম, সর্বদা নিজের হাত পরিষ্কার রাখব। এতে করে করোনাভাইরাস আমার মাধ্যমে ছড়াবে না।

ভিডিওতে দেখানো হয়েছে, প্রথমে একজন চিকিৎসক তার গ্লাভস পড়া হাত দুটি সাবান পানিতে ধুচ্ছেন। অতঃপর তা খুলে ডাস্টবিনে ফেললেন। এবার পায়ের জুতাটি খুলে আবারো ডাস্টবিনে ফেললেন। এরপর আবারো হাত ধুলেন চিকিৎসক। এরপর আরো এক জোড়া গ্লাভস হাত থেকে খুললেন। এভাবে করে পুরো শরীরের নিরাপত্তা বলয় অর্থাৎ পোশাক-পরিচ্ছদ খুলতে মোট ১১ বার হাত পরিষ্কার করলেন তিনি। এটি শুধু একটি নমুনা মাত্র। তার মতো হাজারো চিকিৎসক বর্তমানে এই পদ্ধতি অবলম্বন করছেন।

মনে রাখবেন, সামান্য এই হাত ধোয়ার অভ্যাসটি না গড়ে তুলতে পারলে বিপদ কিন্তু আমার বা আপনারই। কারণ করোনা ছড়ানোর ক্ষেত্রে আমরাই দায়ী থাকব। এজন্য গাফিলতি বা আলসেমি না করে বরং সঠিকভাবে ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে যে কোনো কাজের পর সাবান পানিতে হাত ধুতে ভুলবেন না যেন।

সূত্র: ইন্ডিয়ানএক্সপ্রেস