প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখনও পর্যন্ত ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে ভারতে। এছাড়া আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ১৯৬ জন। দেশটির সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, ভারতেও মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়তে পারে করোনাভাইরাস।

এমতাবস্থায় করোনার হাত থেকে বাঁচতে ভাগ্যের সাহায্য লাগবেই বলে মনে করেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তার মতে, ভারতের মতো দেশে অজ্ঞতা এবং আতঙ্ক- দুটোই সমান তালে বাড়তে থাকে।

অশ্বিন বলেন, ‘এখানে অনেক বেশি আতঙ্ক বিরাজ করছে। আবার একইসঙ্গে অজ্ঞতাও অনেক বেশি। ফলে পুরো পরিস্থিতিটাই ঘোলাটে হয়ে যায়। ভারতের মতো দেশে, ভাইরাসের আক্রমণ থেকে বাঁচতে আপনাকে ভাগ্যের ওপরেও নির্ভর করতে হবে।’

এসময় তিনি ও শঙ্কা প্রকাশ করেন যে ভারতে করোনা পরিস্থিতি অনেক বেশি খারাপ হতে পারে। কারণ তাদের দেশে ব্যক্তি পর্যায়ে সচেতনতা নেই বললেই চলে। যে কারণে সকলকে সহনশীল হওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন অশ্বিন।

তামিল নাড়ুর এ ক্রিকেটার বলেন, ‘ভারত এমন একটা দেশ যেখানে রোগ পরিস্থিতি অনেক বাজে হতে পারে। কারণ ব্যক্তিগত পর্যায়ে সচেতনতা আমাদের একদমই কম। আমি একটা প্রতিবেদন পড়লাম, মহারাষ্ট্রে একজন করোনা আক্রান্ত রোগীকে তার প্রতিবেশিরাই নির্যাতন করছে। আমরা সবাই যে একটা নির্দিষ্ট শত্রুর বিপক্ষে লড়ছি, তা কেউ মাথায় নিচ্ছে না।’

সবাইকে ঘরে থাকার পরামর্শ দিয়ে অশ্বিন আরও বলেন, ‘আমাদের উচিৎ এখন নিজেদের বদ্ধ রাখা। সৌভাগ্যবশত, আমার বাসায় ছোট একটা জিম আছে। সেখানে আমি নিজের ফিটনেস ধরে রাখতে পারবো। এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো নিজের যত্ন নেয়া এবং সামাজিকভাবে সকলের প্রতি সদয় হওয়া।’