বিশ্বব্যাপ বিপর্যয় নামিয়ে এনেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস। এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে কিছু সুরক্ষা পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। নিজের এবং পরিবারের সুরক্ষার জন্য মেনে চলতে হবে এসব পরামর্শ:-

১. ফ্লু-এর যে কোনও লক্ষণ যেমন- জ্বর, কাশি, সর্দি বা হাঁচির মতো সমস্যা দেখা দেয় তবে যেকোনও ধরনের ভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকুন।২. করোনাভাইরাসের লক্ষণ না থাকলেও সংক্রমণটি রোগীর মাঝে ১৪ দিনের মধ্যে বোঝা যায়। তাই সব ধরনের জনবহুল এলাকা এড়িয়ে চলুন।

৩. সম্প্রতি সংক্রামিত কোনও দেশ থেকে এলে যদি ফ্লু-এর কোনও লক্ষণ অথবা শ্বাসকষ্ট দেখা দেয় তবে যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

৪.  ফ্লুতে আক্রান্ত হয়েছেন অথবা সর্দির লক্ষণ আছে এমন ব্যক্তির সংস্পর্শ থেকে দূরে থাকুন। কোনও ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলার সময় অন্তত ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রাখুন।

৫. ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে সাবান বা হ্যান্ডওয়াশ দিয়ে ভালোভাবে দিনে কয়েকবার হাত পরিষ্কার করুন।

৬. বাড়ির প্রতিটি জায়গা, টেবিল, বাথরুম, বিছানা, কম্পিউটারসহ সব কিছু জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করুন।

৭. চোখ, নাক, মুখ বারবার স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকুন। হাঁচি, কাশির সময় টিস্যু অথবা রুমাল ব্যবহার করুন। ব্যবহার শেষে টিস্যু ডাস্টবিনে ফেলে দিন এবং রুমাল ধুয়ে নিন।

৮. বয়স্ক ব্যক্তিদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে বলে তাদের ভাইরাস আক্রমণ করে দ্রুত। তাই তাদের বিশেষ যত্ন নিতে হবে।

৯. মাস্ক ব্যবহার শেষে সেটি দ্রুত সরিয়ে ফেলতে হবে। সম্ভব হলে দ্বিতীয়বার ব্যবহার করা উচিত নয়। অবশ্যই বাড়তি মাস্ক সঙ্গে রাখুন।

১০. কাঁচা খাবার বা আধা সেদ্ধ খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

১১. যেখানে সেখানে থুথু, কফ ফেলবেন না।