স্টাফ রিপোর্টার : সাভার পৌর এলাকার মজিদপুরে সাড়ে ৩ কোটি টাকা মূল্যের ৪২ শতক জমি খলের অভিযোগে ও কোটি টাকা চাঁদা দাবী মামলার প্রধান আসামী ফারুকুল ইসলাম ওরফে ফারুক ও তার দুই সহযোগীকে আজ শুক্রবার সকালে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদেরকে একই দিন দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরো পড়ুন : ধামরাইয়ে ৪০ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ করে ফেঁসে যাচ্ছেন যুবলীগ কর্মী


জানা গেছে, পৌর এলাকার মজিদপুর মৌজায় বিআরএস ৩৮ নং দাগের ৪২ শতাংশ জমির রেকর্ডিয় মালিক স্থানীয় বাসিন্দা মৃত জবেদ আলী পালোয়ানের দুই পুত্র শরীফ আলী পালোয়ান ও জহির আবদুল্লাহ পালোয়ান। সম্প্রতি প্রভাবশালীর ছত্র ছায়ায় থেকে চিহ্নত ফারুকুল ইসলাম ওরফে ফারুক, মোহাম্মদ আলী, ফয়সাল গং উক্ত জমি দখলের উদ্দেশ্যে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে। ঘটনার খবর পেয়ে কয়েকদিন পূর্বে দখলের প্রতিবাদ করলে সন্ত্রাসীরা জমির প্রকৃত মালিকের সন্তানদের মারধর করে এবং মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে।

আরো পড়ুন : সাভারে মাদ্রাসার পাঁচ শিশু শিক্ষার্থীকে বেধড়ক পিটিয়ে আহত, শিক্ষক আটক


পরবর্তীতে ওই মিথ্যা মামলায় আদালত হতে জামিন লাভ করে শরীফ আলী পালোয়ানের বড় ছেলে কৃষিবিদ ড. শাহীন পলান। এ ঘটনায় বাদী হয়ে ঢাকা চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ঘটনার বিস্তারিত জানিয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় বিজ্ঞ আদালত আসামীদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। পরোয়ানা সাভার মডেল থানায় পৌঁছলে এস আই লোকমান হোসেন অভিযান চালিয়ে ফারুক, ফয়সাল ও মোহাম্মদ আলীকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করেন।