দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এখনও ব্যক্তি ও পারিবারিক পর্যায়েই সীমাবদ্ধ রয়েছে। সামাজিকভাবে তা এখনও ছড়িয়ে পড়েনি বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।তিনি বলেছেন, ‘এ নিয়ে জনগণের দুশ্চিন্তা বা আতঙ্কগ্রস্ত হওয়ার কোনো কারণ নেই। এ রোগটি যেন ছড়িয়ে পড়তে না পারে সে লক্ষ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সমাজের সর্বস্তরের মানুষ সচেতন থেকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরামর্শ মেনে চললেই সংক্রমণ এড়িয়ে সুস্থ থাকতে পারবেন।’

আরো পড়ুন : ৫৫ দিনে বিদেশ থেকে এসেছেন ৬ লাখ ২৪ হাজার

শুক্রবার (২০ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৩টায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) করোনাভাইরাস সম্পর্কিত প্রেস ব্রিফিংয়ে গণমাধ্যমকর্মীদের এসব কথা বলেন তিনি।

সামাজিকভাবে সংক্রমণ ঘটেনি বলে সরকার দাবি করলেও মারাত্মক ছোঁয়াচে করোনাভাইরাস নিয়ে উদ্বিগ্ন সারা দেশ। বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) মাদারীপুর লকডাউন ঘোষণার প্রভাব পড়েছে দেশে।

এদিকে, স্বাস্থ্য অধিদফতরের সর্বশেষ প্রেসব্রিফিং অনুসারে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে মোট ২০ জন আক্রান্ত হয়েছে। এ রোগে একজন মারা গেছেন। দেশে আইসোলশনে আছেন ৩০ জন। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৪৪ জন।

আরো পড়ুন : বাসায় জুমার সুন্নত ও নফল নামাজ পড়ুন: ইসলামিক ফাউন্ডেশন

গতকাল সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক প্রেসব্রিফিং স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছিলেন, সারাদেশে ৫ হাজারের মতো প্রবাসী হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন।