বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের বাইরে ঘোরাফেরা না করতে আবারও নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত স্কুল বন্ধের দিনগুলোতে ঘরে থাকতে বলা হয়েছে।

শনিবার (২১ মার্চ) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত একটি বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শিক্ষার্থীদের মধ্যে করোনাভাইরাসের মহামারি না ছড়াতে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সব প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ সময় কোনো শিক্ষার্থীকে অযথা বাইরে ঘোরাফেরা করতে দেখলে, তাকে বাড়িতে নিরাপদে রাখার জন্য অভিভাবকে নির্দেশনা দেয়ার জন্য স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অনুরোধ করা হয়েছে।

এদিকে গতকাল শুক্রবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব আকরাম আল হোসেন ফেসবুক পেজে শিক্ষকদের উদ্দেশে নানা ধরনের পরামর্শ ও নির্দেশনামূলক স্ট্যাটাস লিখেছেন।

তিনি লেখেন, ‘করোনাভাইরাস থেকে বাংলাদেশের সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থী ও শিক্ষকমণ্ডলীকে নিরাপদ রাখার জন্য প্রাথমিক ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। একই সঙ্গে বেসরকরি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনও ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। এই সময় সব শিক্ষক এবং শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করতে পরামর্শ দেয়া হয়েছে।’

তিনি আর লেখেন, ‘শিক্ষার্থীরা যাতে এই বৈশ্বিক দুর্যোগময় সময়ে বাড়ির বাইরে বের না হয় সেটি নিশ্চিত করার জন্য স্ব স্ব বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষক স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও সভাপতি এবং অভিভাবকদের সচেতন থাকতে অনুরোধ জানিয়েছেন। মায়েদের মোবাইলে ফোন করে সচেতন করতে বলা হয়েছে।’

এর আগে শুক্রবার (২০ মার্চ) শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, করোনাভাইরাসের এ সময়ে শিক্ষার্থীরা বাসার বাইরে অযথা ঘোরাফেরা করলেই ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হবে। আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত ঢাকা মহানগরসহ দেশের সকল জেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করবে।

বিশেষ কারণ ছাড়া শিক্ষার্থীদের পার্ক, বিনোদনকেন্দ্রে, রেস্তোরাঁ এবং পর্যটনকেন্দ্রে দেখা গেলে তাদের আটক করে শাস্তি দিতে নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এদিকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত নিজ বাসস্থানে দেশের সব শিক্ষার্থীর অবস্থান নিশ্চিত করতে স্থানীয় প্রশাসন ও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেয় সরকার। কঠোরভাবে এটা বাস্তবায়ন করতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বুধবার (১৮ মার্চ) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।