পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন, করোনাভাইরাস শনাক্তে চীন থেকে প্রথম দফায় সরকারিভাবে ১০ হাজার টেস্টিং কিট ও ১০ হাজার ব্যক্তিগত সুরক্ষা উপকরণ (পিপিই) আনা হচ্ছে।

এছাড়া করোনাভাইরাস মোকাবেলায় চীন থেকে বিশেষজ্ঞ আনার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এদিকে গত ৮ মার্চ দেশে প্রথমারের মতো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত তিনজনকে শনাক্তের পর থেকে প্রতিদিনই বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। শনিবার পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২৪ এ দাঁড়িয়েছে। মারা গেছেন দুইজন।

এর আগে এই ভাইরাস শনাক্তে ৫০০ পিসিআর (পলিমেরেজ চেইন রিঅ্যাকশন) কিট দিয়েছে চীন।

শনিবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক ব্রিফিংয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘কোনো কোনো ক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠেছে- কিটস, সুরক্ষা ইকুইপমেন্ট নাই। আমরা ইতোমধ্যে আনার ব্যবস্থা করেছি। চীন রেডি রেখেছে, আমরা তাদেরকে অনেকগুলো ইকুইপমেন্ট দিতে বলে রেখেছিলাম। ইতিমধ্যে ১০ হাজার টেস্টিং কিটস ও ১০ হাজার প্রটেকটিভ ইকুইপমেন্ট রেডি আছে। যেকোনো সময় চার্টার্ড ফ্লাইটে এগুলো চলে আসবে।’

সরকারের বাইরে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও চীন থেকে এগুলো আনার চেষ্টা করছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রয়োজনে আমরা চার্টার্ড ফ্লাইটে সেগুলো নিয়ে আসব।