সর্বত্র শুধু একটিই শব্দ, একটি কথাই ঘুরেফিরে পাওয়া যাচ্ছে সবার মুখে, করোনাভাইরাস। দাবানলের মত ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাসটি কেড়ে নিচ্ছে অসংখ্য প্রাণ। কিছু বুঝে ওঠার আগেই শহরের পর শহরকে অচল করে দিচ্ছে। এ সময় মানুষের কাছ থেকে মানুষ যত দূরে থাকবে, ততই নিরাপদে থাকবে। কারণ সামান্য স্পর্শ থেকেও প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি বাসা বাধতে পারে সম্পূর্ণ সুস্থ একজন মানুষের শরীরে।

কোভিড-১৯ এর সবচেয়ে শক্তিশালী দিকটি হল, এর বিস্তার পাওয়ার ধরন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও এই ভাইরাস বহনকারীর সরাসরি সংস্পর্শে আসলে বহনকারীর কাছ থেকে ছড়ায় এই ভাইরাসটি। সেই সাথে তার হাঁচি, কাশি, থুথু থেকেও বিস্তার পায় কোভিড-১৯।

খুব স্বাভাবিকভাবেই মাথায় আসবে, খাবারের মাধ্যমে কি করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে? প্রতিদিন আমরা যে সকল খাবার গ্রহণ করছি, তা থেকেও কি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কোন সম্ভাবনা আছে কি না।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (FDA) ফেব্রুয়ারির ২৭ তারিখ এক বিবৃতিতে জানায়, খাবার ও খাবারের প্যাকেজিংয়ের  মাধ্যমে কোভিড-১৯ তথা করোনাভাইরাস ছড়ানোর কোন প্রমাণ মেলেনি।

এফডিএ’র সাথে একই সুরে কথা বলেছে ফুড সেফটি অথরিটি অব আয়ারল্যান্ড। মার্চের ৭ তারিখ এক বিবৃতিতে সেখান থেকেও বলা হয়েছে, খাবারের মাধ্যমে মানুষের মাঝে করোনাভাইরাস ছড়ানোর কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

তবে উভয় প্রতিষ্ঠান থেকেই পরামর্শ দেওয়া হয়েছে খাবার প্রস্তুতের সময় খুব ভালোভাবে (২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে) হাত সাবানের সাহায্যে ধোয়ার জন্য। কাঁচা খাবার ভালোভাবে পরিষ্কার করে সম্পূর্ণ সিদ্ধ করে তবেই খাওয়া যাবে কোন খাবার। আধা-সিদ্ধ ধরনের খাবার গ্রহণ থেকে এ সময়ে সম্পূর্ণ বিরত থাকতে হবে।

অবশ্যই এ সময়ে ঘরে তৈরি সাধারণ ও পুষ্টিকর খাবারই ভরসা এবং এতেই জোর দেওয়া হবে সবচেয়ে নিরাপদ ও সঠিক সিদ্ধান্ত।