করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি কারা ঝুঁকিতে রয়েছেন? অনেকেই বলে থাকেন, বয়স্ক ব্যক্তিরাই বেশি করোনার ঝুঁকিতে! বিষয়টি যে মিথ্যা তা কিন্তু নয়, কারণ চীনের উহানসহ ইতালি কিংবা বিশ্বের অন্যান্য দেশে করোনায় যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের বেশিরভাগেরই মধ্যবয়স্ক কিংবা বৃদ্ধ। 

তবে এই ধারণাটি কিন্তু ভুল যে, করোনা অল্পবয়সীদেরকে আক্রমণ করবে না। কারণ নতুন এক গবেষণা জানিয়েছে ভিন্ন তথ্য। সম্প্রতি ল্যানসেট জার্নালে প্রকাশিত এক প্রবন্ধে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, ধূমপায়ী, ডায়াবেটিস ও হাই প্রেসারের রোগীরা বেশি ঝুঁকিতে। এমন রোগীদের বয়স যদি ৬৯ এর কোঠায় বা তারও বেশি হয় তবে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সম্ভাবনা আরো বেড়ে যায়। 

চীনের উহানে ১৯১ জন কোভিড ১৯-এর রোগীর উপর সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গিয়েছে, তাদের মধ্যে যে ৫৪ জন মারা গিয়েছেন, তাদের বেশির ভাগেরই ডায়াবেটিস ও হাইপ্রেশার ছিল এবং বয়স ছিল ৭০-এর বেশি। এবার তবে জেনে নিন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ক্ষেত্রে উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছেন কারা-

১. যাদের বয়স ৬৫ বছর বা তারও বেশি। 

২. দীর্ঘদিন ধরে যদি হাইপ্রেশার, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, ফুসফুসের সমস্যা বা কিডনির জটিল রোগ থাকে।

৩. দীর্ঘদিনের ধূমপায়ী ব্যক্তি।

৪. যাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ কম।

৫. ক্যান্সারে আক্রান্ত ও চিকিৎসা চলছে এমন ব্যক্তি৷

৬. এইডস রোগী।

এমন রোগীদের যেসব নিয়ম ও সতর্কতা মেনে চলতে হবে তা জেনে নিন-

১. ধূমপান থেকে বিরত থাকুন। কারণ শ্বাসযন্ত্র, ফুসফুস ইত্যাদির রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমাতে পারে আপনার এই বদঅভ্যাস।

২. হাত ধোওয়া, ঘর পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত রাখা, জনসমাগম এড়িয়ে চলতে হবে।

৩. রোগের উপসর্গগুলোতে লক্ষ্য রাখুন। জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট ইত্যাদি হলে চিকিৎসককে জানান।

৪. শ্বাসকষ্ট, বুকে চাপ ধরা বা ব্যথা, আচ্ছন্ন হয়ে পড়া, ঠোঁট ও মুখ নীলচে হয়ে গেলে ততক্ষণাৎ হাসপাতালে যেতে হবে।

৫. অসুস্থতা বোধ করলে হোম কোয়ারেন্টাইন মেনে চলুন।