খাবারের স্বাদ বাড়াতে প্রাচীনকাল থেকেই এলাচ ব্যবহার করা হয়। এটি খাবারের স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি মানবদেহের জন্যও বেশ উপকারী। বিপাক ও হজম ক্রিয়া উন্নত করার পাশাপাশি এটি ওজন কমাতেও সাহায্য করে।

কেন খাবেন এলাচ? 

এলাচে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ম্যাঙ্গানিজ। এটি রক্তে চিনির মাত্রা ঠিক রাখে। খাবারের সঙ্গে এলাচ মিশিয়ে খেলে ব্লাড সুগারের মাত্রা ঠিক থাকে। 

আরো পড়ুন “: রোগ প্রতিরোধে সবচেয়ে বেশি শক্তি ও পুষ্টি মিলবে এসব খাবারে

এক কাপ পিচ ফলের জুসের সঙ্গে মেশান এক চিমটি এলাচ গুঁড়া আর এক টেবিল চামচ ধনে গুঁড়া। এই পানীয় উচ্চ রক্তচাপ সমস্যা থেকে মুক্তি দেবে। 

যাদের হজমে সমস্যা রয়েছে তাদের জন্য এলাচ বেশ উপকারী। এটি বদহজম ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। ভরপেটে খাওয়ার পর একটি ছোট এলাচ মুখে নিয়ে চিবান। এতে পাকস্থলীর সমস্যা দূর হবে। 

কীভাবে এলাচ খাবেন? 

সুস্বাস্থ্য নিশ্চিতে এলাচ চিবিয়ে খেতে পারেন। এছাড়াও কিছু উপায় এলাচ খাওয়া যায়- 

এলাচ পানি- এলাচের খোসা ছাড়িয়ে এর বীজগুলো এক গ্লাস পানিতে মিশিয়ে পান করতে বলেন পুষ্টিবিদরা। ওজন কমাতে চাইলে রাতে এক গ্লাস পানিতে এলাচের বীজ ভিজিয়ে রাখুন। সকালে খালি পেটে পান করুন। 

আরো পড়ুন “: করোনা সতর্কতা: মুখমণ্ডলে হাত না দিয়ে কি থাকা যায়?

 
এলাচ দুধ- দুধের সঙ্গে মিশিয়েও খেতে পারেন এলাচ। এক গ্লাস দুধে ২/৩টি এলাচ মিশিয়ে নিন। এ ক্ষেত্রে এলাচের বীজ বের করে গুঁড়ো করে নিতে হবে। দুধ গরম হলে তার সঙ্গে এই গুঁড়ো মেশাতে হবে। 

এলাচ চা- সর্দি কাশি হলে চায়ের সঙ্গে মেশান আদা, পুদিনা পাতা, দারুচিনি, এলাচ। এই মশলা চা শরীরের জন্য বেশ উপকারী। 

বর্তমানে আতঙ্ক ছড়ানো করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি, উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করা উচিত। আর সে ক্ষেত্রে এলাচ হতে পারে আপনার উপকারী বন্ধু। 

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া