কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি সংক্রান্ত ফাইল আইন মন্ত্রণালয় থেকে পেলেই তার মুক্তির বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেন, ‘ফাইল আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে সরকার শর্তসাপেক্ষে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেলে গুলশানে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

আইনমন্ত্রীর এই বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তির জন্য আরও একটু অপেক্ষা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি নিয়ে প্রক্রিয়া করতে হবে। উনি (আইনমন্ত্রী) যা বলেছেন ঠিক আছে, তিনি প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি নিয়েই বলেছেন। ওনার ফাইল এখনও অ্যাপ্রুভ (অনুমোদন) হয়ে আসেনি। আমাদের কাছে এসে পৌঁছায়নি। না আসা পর্যন্ত তো ওয়েট (অপেক্ষা) করতে হবে।’

ছয় মাসের জন্য খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখ করে আইনমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘বিদেশ না যাওয়ার শর্তে ফৌজদারি কার্যবিধি ৪০১ ধারার ১ উপধারা মতে ছয় মাসের জন্য খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করে তাকে মুক্তি বিষয়ে মতামত দিয়েছি। মতামত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে তাকে মুক্তির বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।’

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে তার বয়স বিবেচনায় মানবিক কারণে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলেও জানান আইনমন্ত্রী।

এদিকে, মুক্তির বিষয়টি পুরোপুরি জেনে তারপর প্রতিক্রিয়া জানাবেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।