করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সারাদেশে গণপরিবহন বন্ধ রাখা হয়েছে।গত ২৬ মার্চ দেশের সব ধরনের যানবাহন বন্ধ ঘোষণা করা হলেও মালবাহী ট্রাকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ।

শনিবার (২৮ মার্চ) রাজধানীর গাবতলী বাসস্ট্যান্ডে মালবাহী ট্রাকে মানুষকে ঢাকা ছাড়তে দেখা গেছে।

করোনাভাইরাসের ঝুঁকি থেকে নিরাপদ থাকতে ন্যূনতম তিন ফুট দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলা হলেও ট্রাক ভর্তি গাদাগাদি করে মানুষ গ্রামে যাচ্ছে।

হঠাৎ বাবা অসুস্থ হওয়ায় নাটোর যেতে গাবতলীতে দাঁড়িয়ে ছিলেন ইঞ্জিনিয়ার আলমগীর হোসেন। ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন।

আলমগীর বলেন, দেশের এমন পরিস্থিতিতে গ্রামে না গিয়ে ঢাকায় থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, কিন্তু হঠাৎ বাবা হার্টঅ্যার্টক করায় জরুরি বাড়ি যেতে হচ্ছে।

তিনি বলেন, নাটোর যেতে মিরপুর থেকে দুপুর ১২টায় বের হয়েছি। এখান থেকে কিছু মালবাহী ট্রাক চলাচল করছে। ভাড়ায় সেসব ট্রাকে নাটোর যাচ্ছি বলে জানান।

অপর ট্রাকে বসা আরেক যাত্রী রফিক মিয়া ব্যবসা করেন। চালকের সঙ্গে ৫০০ টাকার চুক্তি করে মানিকগঞ্জ যাচ্ছেন। তিনি বলেন, ব্যবসার কাজে ঢাকা এসে আটকে পড়েছি। বাড়িতে যাওয়া জরুরি তাই ট্রাকে যাচ্ছি। ঝুঁকি থাকলেও নিরুপায় হয়ে যাচ্ছেন বলেও জানান তিনি।

ট্রাকের চালক আজগর মিয়া জানান, নাটোর থেকে কাঁচা সবজি নিয়ে ঢাকায় এসেছিলাম, ফেরার সময় মানুষ ভর্তি করে ফিরছি। একটি পাঁচ টনের ট্রাকে প্রায় ৫০ জন মানুষ তুলবেন। তাদের বিভিন্ন স্থানে নামিয়ে দেবেন। দূরত্ব অনুযায়ী ১০০-৫০০ টাকা পর্যন্ত ভাড়া নেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।