ভূমি সেবাকে স্বচ্ছ, দক্ষ, জবাবদিহিমূলক ও জনবান্ধব করতে ভূমি-সংক্রান্ত কাজে অভিজ্ঞ কর্মকর্তাকে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) পদে নিয়োগের নির্দেশনা দিয়েছে ভূমি মন্ত্রণালয়।

সম্প্রতি ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে এ নির্দেশনা সম্বলিত পরিপত্র জারি করা হয়েছে। এটি সকল জেলা প্রশাসকের (ডিসি) কাছে পাঠানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, স্বচ্ছ, দক্ষ, জবাবদিহিমূলক ও জনবান্ধব ভূমি রাজস্ব প্রশাসন ভূমি মন্ত্রণালয়ের ভিশন। এ ভিশন বাস্তবায়নে অভিজ্ঞ, দক্ষ, জনবান্ধব ও মেধাবী জনবল পদায়ন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ভূমি রজস্ব ব্যবস্থাপনায় মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের (রাজস্ব) ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। মাঠ পর্যায়ে জেলা প্রশাসকের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ভূমি উন্নয়ন কর ও রাজস্ব আদায়, খাস জমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত, জলমহাল ব্যবস্থাপনা, অর্পিত সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা এবং অধিগ্রহণ ও হুকুমদখলসহ নানা ধরনের ভূমি সংক্রান্ত কার্যাদি সম্পাদন করে থাকেন।

বর্তমানে আইন অনুযায়ী, সহকারী কমিশনারের (ভূমি) ওপর নামজারি, জমাভাগ ও জমা একত্রীকরণের ক্ষমতা অর্পণ করা হয়েছে। আইনে সহকারী কমিশনার (ভূমি) তার নিজের ও আগের কর্মকর্তার সিদ্ধান্ত রিভিউ করার বিধান রাখা হয়েছে। সাধারণত নামজারিসহ ভূমি সেবা সংক্রান্ত আদেশের ফলে সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি সহকারী কমিশনারের (ভূমি) আদেশের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের (রাজস্ব) কাছে আপিল দায়ের করে থাকেন বলেও পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।

পরিপত্রে বলা হয়, সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, ভূমি সেবা-সংক্রান্ত কাজে অনভিজ্ঞ এবং অপেক্ষাকৃত কম অভিজ্ঞতাসম্পন্ন কর্মকর্তাকে কোনো কোনো জেলায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের (রাজস্ব) দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে। কোনো কোনো জেলায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকে (রাজস্ব) ঘনঘন বদলি করা হচ্ছে। এতে কাজের ধারাবাহিকতা ক্ষুণ্ন হয়। এর ফলে জনগণ কাঙ্ক্ষিত সেবা পাচ্ছেন না। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই প্রশাসনিক ব্যস্ততাসহ বিভিন্ন কারণ উল্লেখ করে বারবার মামলার তারিখ পেছানো হয়। এতে ভূমি বিষয়ক আপিল মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে বাধা সৃষ্টি হচ্ছে।

দীর্ঘসূত্রতার কারণে জনগণ কাঙ্ক্ষিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। এ বিষয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ে প্রায়ই অভিযোগ আসছে, যা অনভিপ্রেত। অধিকন্তু ইতোমধ্যে ভূমি বিষয়ক রাজস্ব দ্রুত নিষ্পত্তিতে যথাযথ উদ্যোগ গ্রহণের জন্য ভূমি মন্ত্রণালয়ের একটি পরিপত্র জারি করা হয়েছে। এ বিষয়ে যথাযথ গুরুত্ব আরোপ করা আবশ্যক।

এই অবস্থার আলোকে ভূমি-সংক্রান্ত সেবা প্রদানকে স্বচ্ছ, দক্ষ, জবাবদিহিতামূলক, জনবান্ধব করার লক্ষ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের (রাজস্ব) দায়িত্ব প্রদানের ক্ষেত্রে কয়েকটি নির্দেশনা প্রতিপালনের জন্য অনুরোধ জানানো হয় এই পরিপত্রে।

‘সহকারী কমিশনার (ভূমি), রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর এবং ভূমি হুকুম দখল কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালনকারী তথা ভূমি সংক্রান্ত কাজে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন কর্মকর্তাকে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দায়িত্ব দিতে হবে।’

কাজের ধারাবাহিকতা রক্ষার্থে একান্ত অপরিহার্য না হলে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসককে (রাজস্ব) পরিবর্তন করা যাবে না। দায়িত্বপ্রাপ্ত অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আপিল মামলা দ্রুত নিষ্পত্তিতে এ-সংক্রান্ত পরিপত্র পালন করবেন বলে পরিপত্রে জানানো হয়।