করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯ এর ভয়াল থাবায় বর্তমানে আতঙ্কিত সারা বিশ্ব। ভয়াবহ দাবানলের মতো বিশ্বব্যাপী দ্রুত ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাসটি ইতোমধ্যেই কেড়ে নিয়েছে কয়েক হাজার প্রাণ। কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই দেশের পর দেশকে রীতিমতো অচল করে দিচ্ছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস।

মহামারিতে রূপ নেওয়া এই ভাইরাসের সবচেয়ে শক্তিশালী দিকটি হলো, এর বিস্তার পাওয়ার ধরন। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও এই ভাইরাস বহনকারীর সরাসরি সংস্পর্শে আসলে বহনকারীর কাছ থেকে ছড়ায় এটি। সেই সঙ্গে আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি-কাশি কিংবা থুথু থেকেও বিস্তার পেতে পারে কোভিড-১৯।

এমতাবস্থায় প্রতিনিয়তই শঙ্কিত সবাই। অনেকেই ভাবছেন খাবারের মাধ্যমেও কি করোনা ভাইরাস ছড়াতে পারে? প্রতিদিন আমরা যেসব খাবার গ্রহণ করছি, তা থেকেও কি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে?

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) ফেব্রুয়ারির ২৭ তারিখের এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত খাবার ও খাবারের প্যাকেজিংয়ের মাধ্যমে কোভিড-১৯ তথা করোনা ভাইরাস ছড়ানোর কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

একই কথা জানিয়েছেন এফডিএ-এর ফুড সেফটি অথরিটি অব আয়ারল্যান্ড। চলতি মার্চের ৭ তারিখে এক বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, খাবারের মাধ্যমে মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর কোনো প্রমাণ এখনো মেলেনি।

তবে উভয় প্রতিষ্ঠান থেকেই পরামর্শ দেওয়া হয়েছে যে, খাবার প্রস্তুতের সময় খুব ভালোভাবে (অন্তত ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে) হাত সাবান-পানি দিয়ে ধোয়া প্রয়োজন। আর কাঁচা খাবারের ক্ষেত্রে ভালোভাবে পরিষ্কার করে তা সম্পূর্ণ সিদ্ধ করে তবেই খাওয়া যাবে। আধা-সিদ্ধ ধরনের খাবার গ্রহণ থেকে সংকটপূর্ণ এই সময়ে সম্পূর্ণ বিরত থাকতে হবে। তবে অবশ্যই এই সময়ে ঘরে তৈরি সাধারণ ও পুষ্টিকর খাবারই ভরসা এবং এতেই জোর দেওয়া হবে সবচেয়ে নিরাপদ ও সঠিক সিদ্ধান্ত।