করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সারা বিশ্ব। হঠাৎ করেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ হয়ে উঠেছে এ ভাইরাসের আক্রমণ। দেশটিতে আশংকাজনক হারে বেড়ে চলেছে করোনা রোগী।

এমনি অবস্থায় টালমাটাল যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির গবেষকরা দিন রাত এক করে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন করোনা বধের ভ্যাকসিন ও ওষুধের জন্য।

দেশের এই দুর্যোগে এগিয়ে এসেছেন নানা অঙ্গনের তারকা ব্যক্তিত্বরা। এবার সে তালিকায় নাম লিখিয়ে চমকে দিলেন মার্কিন গায়িকা টেলর সুইফট।

তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, এ মহামারিতে ক্ষতিগ্রস্ত প্রত্যেক ভক্তকে ৩ হাজার ডলার (আড়াই লাখ টাকারও বেশি) করে অনুদান দেবেন। কয়েকজন ইতোমধ্যে তার অনুদান পেয়েছেনও।

হলি টার্নার নামের একজন ভক্ত পেশায় ফ্রিল্যান্স মিউজিক ফটোগ্রাফার ও গ্রাফিক ডিজাইনার। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টাম্বলারে তিনি উল্লেখ করেন, করোনাভাইরাসের প্রভাবে তার জীবন ও জীবীকা হুমকির মুখে পড়েছে। নিউ ইয়র্ক সিটি ছেড়ে চলে যাবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

টাম্বলারে তথ্যটি দেখে ভক্তের কাছে তিন হাজার ডলার পাঠিয়ে সুইফট লিখেছেন, ‘হলি, আপনি সবসময় আমার পাশে ছিলেন। এখন আমি আপনার পাশে থাকতে চাই। আশা করি, টাকাগুলো কাজে লাগবে। ভালোবাসা রইলো, টেলর।’

গ্র্যামিজয়ী এই গায়িকার কাছ থেকে টাকা পেয়ে অবাক হলি টার্নার। তিনি টুইট করেছেন, ‘আমি বিস্মিত। নিজের চোখকে এখন আমার বিশ্বাস হচ্ছে না!’

বকেয়ার ভারে জর্জরিত আরও এক ভক্তকে তিন হাজার ডলার পাঠিয়েছেন সুইফট।

টুইটারের মাধ্যমে সামান্থা জ্যাকবসন নামের এক ভক্তের আর্থিক কষ্টের কথা জানতে পারেন সুইফট। একটি পানশালায় ককটেল পরিবেশনকারী হিসেবে কাজ করতেন ওই নারী। কিন্তু কোভিড-১৯ প্রকোপে এখন দোকানটি বন্ধ। তিনি লিখেছিলেন, ‘কাজ নেই, রোজগার নেই, ইউটিলিটি বিল পরিশোধের উপায়ও নেই।’ এরপর তাকে সাহায্যের হাত বাড়ান সুইফট। এমন আরও অনেক ভক্তের পাশে দাঁড়াচ্ছেন এই গায়িকা।

তারকার এভাবে এগিয়ে আসায় যেমন তার ভক্তরা চমকেছেন, তেমনি তারা কৃতজ্ঞতাও জানাচ্ছেন।

টুইটারে অ্যালেক্স গোল্ডশ্মিটের মন্তব্য, ‘যুক্তরাষ্ট্র সরকার প্রত্যেক নাগরিককে ১২০০ ডলার দিতে পারে। সুইফট তিন হাজার ডলার করে দিচ্ছেন। সুতরাং দেশটিতে প্রেসিডেন্ট হওয়ার মতো একজনই উপযুক্ত!’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও ফিডিং আমেরিকাতেও অনুদান দিয়েছেন ৩০ বছর বয়সী এই তারকা। দেশের এই দুর্যোগে বিভিন্ন দাতব্য সংস্থায় অনুদানের অর্থ পাঠাচ্ছেন আরও অনেক তারকা। তাদের মধ্যে আছেন হলিউড অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা। তিনি দিয়েছেন ১০ লাখ ডলার।এছাড়া অভিনেতা আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার, তারকা দম্পতি রায়ান রিনোল্ডস ও ব্লেক লাইভলি, মডেল কাইলি, মডেল কিম কারদাশিয়ান দিয়েছেন ১০ লাখ ডলার করে। গায়িকা রিয়ান্না দিয়েছেন ৫০ লাখ ডলার।