বর্তমান পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ এখন ভালো এবং নিরাপদে আছে বলে দাবি করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার (৩০ মার্চ) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) করোনাভাইরাস সংক্রান্ত অনলাইন ব্রিফিংয়ে যুক্ত হয়ে তিনি এ দাবি করেন। ব্রিফিংয়ে প্রথমে বক্তব্য রাখেন আইইডিসিআরের পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। পরে বক্তব্য দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

জাহিদ মালেক বলেন, বর্তমান (বৈশ্বিক) পরিস্থিতিতে আমাদের দেশ এখন ভালো আছে, নিরাপদে আছে। প্রধানমন্ত্রী আমাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রেখেছেন। তিনি বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা দিচ্ছেন।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকার আগে থেকে প্রস্তুতি নিয়েছিল দাবি করে তিনি বলেন, প্রস্তুতি ছিল বলে আমরা ভালোভাবে মোকাবেলা করছি। ঘাবড়ানোর কোনো কারণ নেই। আমাদের ডাক্তার, নার্স সবাই মিলে কাজ করে যাচ্ছেন। কারও কোনো সমস্যা হলে আমাদের কল সেন্টারে যোগাযোগ করবেন।

এর আগে ডা. ফ্লোরা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৫৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১ হাজার ৩৩৮ জনের। যাদের নতুন করে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, তাদের মধ্যে একজন করোনায় আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছেন। তার বয়স ২০ বছর। তিনি একজন নারী।

আগে থেকে যারা আক্রান্ত ছিলেন তাদের মধ্যে আরও চারজন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। ফলে মোট সুস্থ হয়েছেন ১৯ জন। নতুন যারা সুস্থ হয়েছেন তাদের মধ্যে ৮০ বছরের একজন বৃদ্ধও রয়েছেন। এছাড়া সুস্থদের মধ্যে একজন চিকিৎসক ও একজন নার্সও রয়েছেন।

ডা. ফ্লোরা বলেন, গত দুদিন রোগী না পাওয়ার খবরে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ঘরের বাইরে মানুষ বের হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। একদিন রোগী শনাক্ত না হলে বাংলাদেশ করোনামুক্ত মনে করার কোনো কারণ নেই। তাই সবাইকে আমাদের পরামর্শ মেনে ঘরে থাকতে হবে।

ব্রিফিংয়ের শুরুতে বিশ্ব পরিস্থিতি তুলে ধরেন ডা. ফ্লোরা। তুলে ধরেন করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে ঘরে থাকাসহ প্রয়োজনীয় করণীয়ও।