আশুলিয়া প্রতিনিধি : আশুলিয়ার অপহৃত এক কাপড় ব্যবসায়ীকে অপহরণের ৮ ঘন্টার মধ্যে উদ্ধার এবং মুক্তিপণ নিতে আসা দুই অপহরণকারী আটক করেছে পুলিশ। রোববার (২৯ মার্চ) রাত ৮টারদিকে আশুলিয়ার পলাশবাড়ি এলাকার হাজী রমজান আলীর বাড়ির নিচতলার একটি কক্ষ থেকে অপহৃত কাপড় ব্যবসায়ী আজিজুল ইসলামকে উদ্ধার করা হয়। আজিজুল ইসলাম আশুলিয়ার গাজীরচটের বাসিন্দা ও জামগড়ায় কাপড়ের ব্যবসায় করছেন। আটক দুই অপহরণকারীরা হলো, পিরোজপুর জেলার কাউখালি থানার বেকুদিয়া গ্রামের মৃত ওমর ফারুকের ছেলে জাহিদুল ইসলাম। অপরজন নবাবগঞ্জের সন্তোষ সরকারের ছেলে সীমান্ত সরকার।

আরো পড়ুন : সাভারের ৬টিসহ ১৮টি প্রতিষ্ঠানকে ৪৭ হাজার টাকা জরিমানা

উদ্ধারকারী কর্মকর্তা ও আশুলিয়া থানার এস আই ওহিদ বেপারী জানান, রবিবার (২৯ মার্চ) দুপুরে আশুরিয়া বাইপাইল থেকে চার অপহরণকারী প্রাইভেটকারে ব্যবসায়ী আজিুল ইসলামকে তুলে নিয়ে যায়। পরে তাকে বেদড়ক মারধর করে পরিবারের কাছে দেড় লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে অপহরণকারী। তাদের চাহিদামতো বিকাশে ৫ হাজার টাকা দেয়া হয়। পরে বিষয়টি আশুলিয়া থানায় অবহিত করলে অভিযানে নামে পুলিশ।

তিনি আরও জানান, কৌশল করে পরে বাকী টাকা অপহরণকারীদের দেয়ার কথা জানালে তাদের নির্দিষ্ট জায়গায় টাকা নিয়ে দেখা করতে বলে। সেখানে গিয়ে তাদের হাতে নাতে আটক করা হয়। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পলাশবাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটি বাড়ি থেকে অপহৃত ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করা হয়। বাকীরা পালিয়ে যায়। পালিয়ে যাওয়া হৃদয় নামে অপহরণকারী এই বাসাটি ভাড়া নিয়েছিল। সেখানে অপহৃত ব্যবসায়ীকে মুক্তিপণের জন্য নির্যাতন করা হয়েছিলো। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, অপহরণকারী আজিজুল ইসলামের বিষয়ে আগেই থেকেই খোঁজ খবর নিয়ে সুযোগ বুঝে অপহরণ করে।

আরো পড়ুন : আশুলিয়ায় অগ্নিদগ্ধ দম্পতি মারা গেলেন নীলফামারীতে

এ বিষয়ে আশুরিয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রিজাউল হক দিপু জানান, অহরণকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাকীদের আটকের চেষ্টা চলছে।