করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে টানা ১৫ দিন আইসোলেশনে থেকে মৃত্যুর কাছ থেকে ফিরে এসেছেন মার্কিন পপ গায়িকা পিঙ্ক। নতুন জীবন ফিরে পেয়ে সাড়ে ৮ কোটি টাকা দান করবেন বলে কথা দিয়েছেন এই গায়িকা। শুধু পিঙ্কের নয়, তার তিন বছরের ছেলের মাঝেও দেখা দিয়েছিলো করোনার নানা লক্ষণ।

এখন অনেকটা ঝুঁকি মুক্ত তারা। পিঙ্ক জনিয়েছেন তার দানের সাড়ে ৮ কোটি টাকার অর্ধেক দেওয়া হচ্ছে যুক্তরাস্ট্রের ফিলাডেলফিয়ার টেম্পল ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের জরুরী তহবিলে ও বাকি অর্ধেক দেওয়া হচ্ছে লস অ্যাঞ্জেলেসের মেয়রের জরুরী সংকট তহবিলে।

সামাজিক যোগাযোগ পপ গায়িকা পিঙ্ক লিখেছেন, ‘দুই সপ্তাহ আগে আমার তিন বছরের ছেলে জেমসন ওআমার মধ্যে কভিট-১৯ এর লক্ষণ দেখা দেয়। সৌভাগ্যক্রমে, প্রাথমিক পর্যায়েই আমাদের চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে পেরেছিলেন।

এরপর আমরা একটি বাড়িতে চিকিৎসকদের নির্দেশনা অনুযায়ি দিন কাটাতে শুরু করি। চিকিৎসক জানিয়েছেন এখন আমরা করোনা মুক্ত।’

পিঙ্ক আরও বলেন, ‘মানুষজনের জানা উচিত এটা তরুণ-বৃদ্ধ, স্বাস্থ্যকর-অস্বাস্থ্যকর, ধনী-দরিদ্রসহ সবাইকে আক্রমণ করতে পারে। আমাদের শিশু, পরিবার, বন্ধু-সবার জন্য করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা বিনামূল্য করার সুযোগ করে দিতে হবে।’