আবরবিশ্বের প্রায় সব মসজিদে নামাজসহ সব ধরনের ইবাদত-বন্দেগি বন্ধ রয়েছে। মসজিদে নামাজ বন্ধের এ সময়ে সৌদি আরব দেশব্যাপী এসব মসজিদে থাকা কুরআনের পাণ্ডুলিপি, গালিচা, মাগসালাসহ আরো অনেক কিছু তারা জীবাণুমুক্ত করেছে।

সৌদি আরব লকডাউনের এ সময়ে মুসলিম উম্মাহর হৃদয়ের স্পন্দন পবিত্র দুই মসজিদ মক্কা আল মুকাররমা ও মদিনা আল-মুনাওয়ারায় স্বল্প পরিসরে জামাআত চালু থাকলেও তা ইশার পর থেকে ফজরের একটু আগ পর্যন্ত বন্ধ রেখেছে। এ সময়ের মধ্যে দুই পবিত্র মসজিদের পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম অ্যাহত থাকে।

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার অংশ হিসেবে সৌদি আরব দেশের প্রায় ৮ হাজার ৭২৪টি মসজিদসহ এতে থাকা কুরআনুল কারিমের পাণ্ডুলিপিগুলো জীবাণুমুক্ত করে। সব মসজিদের প্রায় ১ কোটি ৭৪ লাখ ৪৮ হাজার কুরআনের পাণ্ডুলিপি জীবাণুমুক্ত করা হয়।

jagonews24

দেশটির দাওয়াহ, ইরশাদ ও ইসলামিক মন্ত্রণালয় করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের লক্ষ্যে দেশের সব মসজিদে থাকা পবিত্র কুরআনের ১ কোটি ৭৪ লাখ ৪৮ হাজার পাণ্ডুলিপি জীবাণুমুক্ত করেছেন বলে জানিয়েছে।

দাওয়াহ ও ইসলামিক মন্ত্রণালয় এক প্রতিবেদনে জানা যায়, শুধু কুরআনের পাণ্ডুলিপিই জীবাণুমুক্ত করা হয়নি বরং দেশব্যাপী ৮ হাজার ৭২৪টি মসজিদে যেসব জিনিস জীবাণুমুক্ত করা হয় তাহলো-

>> কুরআন জীবাণুমুক্তকরণ : ১ কোটি ৭৪ লাখ ৪৮ হাজার পাণ্ডুলিপি।
>> মসজিদ জীবাণুমুক্তকরণ : ৮ হাজার ৭২৪টি মসজিদ।
>> মসজিদের গালিচা জীবাণুমুক্তকরণ : ৪৩ লাখ ৬৩ হাজার মিটার গালিচা।
>> বুক সেলফ বা তাক জীবাণুমুক্তকরণ : ৫ লাখ ২৩ হাজার ৪৪০টি কুরআন ও ইসলামি বইয়ের তাক।
>> মৃত ব্যক্তিদের জন্য ৫০টি গোসলের স্থান বা মাগসালা জীবাণুমুক্তকরণ করা হয়েছে।

jagonews24

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে এ পর্যন্ত প্রাণঘাতী মহামারি করোনাভাইরাসে ২ হাজার ৩৯ জন আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ২৫ জন আর ৩৫১ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে।

দেশের মানুষকে সুস্থ ও নিরাপদ রাখতে এটি সৌদি আরবের দায়িত্বশীল ভূমিকা ও প্রশংসামূলক কার্যক্রম। প্রত্যেক দেশের উচিত রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে সব পাবলিক স্থানসমূহ জীবাণুমুক্তকরণ পদক্ষেপ গ্রহণ করা।