সাভারের আশুলিয়ায় তালিকা টাঙিয়ে একটি পোশাক কারখানায় ১৭৩ জন শ্রমিককে ছাঁটাই প্রক্রিয়ার মধ্যে ফেলে চাকরি হতে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

রোববার (০৫ এপ্রিল) দুপুরে আশুলিয়ায় অবস্থিত ‘ইসকেই ক্লথিং লিমিটেড’ কারখানার প্রধান ফটকে ১০৩ জন শ্রমিকের চাকরি থেকে অব্যাহতির নোটিশ টাঙিয়ে দেওয়া হয়।

নোটিশে বলা হয়, অব্যাহতির তালিকায় থাকা সব শ্রমিক ও স্টাফদের কাজ সন্তোষজনক না হওয়ায় তাদের চাকরি স্থায়ী না করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যা গত ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর করা হয়েছে। অব্যাহতিপ্রাপ্ত শ্রমিক ও স্টাফদের আগামী ৩০ এপ্রিলের ভেতর যেকোনো কার্যদিবসে এসে সব পাওনাদি গ্রহণ করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

কারখানাটির জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) জরুল ইসলাম বলেন, প্রত্যকটি চাকরির একটি অস্থায়ীকরণ নিয়ম রয়েছে। আমাদের কারখানায় সেই নিয়ম মানা হয়েছে। যারা অস্থায়ী চাকরি করা অবস্থায় কাজে সন্তোষজনক নয় তাদের স্থায়ী করা হয়নি।

এদিকে, সাভারের হেমায়েতপুরের তেঁতুলঝোড়া এলাকার দি ক্লথ 
অ্যান্ড ফ্যাশন লিমিটেডের ৭০ জন শ্রমিককে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিল্প পুলিশ-১ এর উপ-পরিদর্শক (এসআই) আলামিন হোসেন।

শ্রমিক ছাঁটাইয়ের বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আক্তার বলেন, বাংলাদেশের মালিকদের জরুরি ভিত্তিতে উচিত শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ও জীবন-জীবিকার জন্য একটি তহবিল করা। যে শ্রমিকরা আমাদের অর্থনীতি এতটাই এগিয়ে নিচ্ছে তাদের যদি আমরা বিপদের সময় ছুঁড়ে ফেলে দেই তাহলে তো এটা দায়িত্বশীল কাজ হবে না। আমি মনে করি এই সঙ্কটাপূর্ণ সময়ে শ্রমিকদের টিকিয়ে রাখতে সরকারও মালিকপক্ষের বিশেষ গুরুত্ব রাখা দরকার।

এর আগে, গতকাল (০৪ এপ্রিল) আশুলিয়ার জাসগড়ার ফ্যাশন ফোরাম কারখানার সামনে গিয়ে ১৮৯ জন শ্রমিকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।