প্রাণঘাতী করোনার ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বাড়িতেই তো আছেন। ঘরবন্দি এই সময়টায় সকাল কিংবা বিকালের নাশতায় একই ধরনের খাবার খেতে বিরক্ত লাগলে নিমেষেই বানিয়ে ফেলতে পারেন মসলাদার ভুনা ছোলা। সকালের নাশতায় পরোটার সঙ্গে কিংবা বিকালের নাশতায় মুড়ির সঙ্গে ভরপেট ও মুখরোচক খাবারের জন্য ছোলা ভুনা খুবই পরিচিত একটি খাবার।

জেনে নিন কীভাবে ঘরেই তৈরি করবেন মজাদার এই খাবার:

উপকরণ

* সারারাত ভিজিয়ে রাখা এক কাপ ছোলা।
* দুইটি পেঁয়াজ কুঁচি।
* তিন কোয়া রসুন কুঁচি।
* আধা ইঞ্চি আদা কুঁচি।
* একটি টমেটো কুঁচি।
* এক কাপ টমেটো বাটা।
* এক টেবিল চামচ তেল।
* একটি তেজপাতা।
* একটি দারুচিনি স্টিক।
* চারটি এলাচ।
* কয়েকটি লবঙ্গ।
* দুই চা চামচ লবণ।
* এক চা চামচ চিনি।
* আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়া।
* এক চা চামচ জিরা গুঁড়া।
* এক চা চামচ ধনিয়া গুঁড়া।
* আধা চা চামচ মরিচ গুঁড়া।
* এক চা চামচ গরম মসলা।
* এক টেবিল চামচ ঘি।
* ৩ থেকে ৪টি কাঁচামরিচ ফালি।

যেভাবে তৈরি করবেন মসলা ভুনা ছোলা

১. কড়াইতে তেল গরম করে এতে তেজপাতা, এলাচ, দারুচিনি ও লবঙ্গ দিয়ে হালকা ভেজে আদা, রসুন ও পেঁয়াজ কুঁচি দিয়ে নাড়তে হবে করতে হবে। এর কিছুক্ষণ পর হলুদ গুঁড়া, লবণ ও চিনি দিয়ে এক মিনিটের জন্য নাড়তে হবে।

২. এরপর এতে ধনিয়া, জিরা ও মরিচ গুঁড়া দিয়ে দুই মিনিটের জন্য নেড়ে টমেটো কুঁচি দিয়ে দিতে হবে এবং আরও দুই মিনিটের জন্য নাড়তে হবে।

৩. এবার এই মসলাতে ভিজিয়ে রাখা ছোলা পানি নিংড়ে দিয়ে দিতে হবে, সঙ্গে দেড় কাপ পানি, টমেটো বাটা ও আধা চা চামচ লবণ দিয়ে নাড়তে হবে এবং চুলার জ্বাল বাড়িয়ে দিতে হবে। এভাবে অন্তত ২০ থেকে ৩০ মিনিটের জন্য রাখতে হবে এবং প্রথম ১০ মিনিটের পর পাত্রের মুখ ঢেকে দিতে হবে।

৪. অন্তত আধা ঘণ্টা পর পাত্রের মুখ খুলে ছোলার ওপরে গরম মসলা ছিটিয়ে দিতে হবে। প্রয়োজন হলে লবণ দিতে হবে কিছুটা।

৫. ছোলা সিদ্ধ হয়ে আসলে এর ওপর ঘি ও কাঁচামরিচ ফালি দিয়ে পাঁচ মিনিট অল্প আঁচে রেখে নামিয়ে নিন।

ব্যাস এর ওপর ধনেপাতা কুঁচি ছিটিয়ে পরিষ্কার পাত্রে পরিবেশন করুন মজাদার মসলা ভুনা ছোলা।