বানারীপাড়া সংবাদদাতা : বরিশালের বানারীপাড়ায় সৈয়দকাঠি ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া গ্রামের ৪২ ফুট খালে ১৬ ফুট ব্রিজ নির্মাণ করে জনগুরুত্বপূর্ণ ওই খালটিতে নৌ-চলাচল ও পানি নিষ্কাশন বাধাগ্রস্ত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যপারে এলাকাবাসীর পক্ষে ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম পান্নু রবিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

জানা গেছে, সৈয়দকাঠি ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া গ্রামের মমতাজউদ্দিন হাসিনাবানু টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজসংলগ্ন জনগুরুত্বপূর্ণ স্বনির্ভর খালের মাথায় সম্প্রতি প্রায় অর্ধকোটি টাকা ব্যয়ে ত্রাণের ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। ব্রিজের সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হলে খালের দুই প্রান্ত আটকে গিয়ে ওই স্থানে খালের চওড়া থাকবে মাত্র ১৪/১৫ ফুট। এদিকে ওই খালটি ৪২ ফুট চওড়া (প্রস্থ) হলেও মাত্র ১৬ ফুট ব্রিজ নির্মাণ করার ফলে কৃষিপ্রধান ওই অঞ্চলের মানুষের নৌ-চলাচল, পানি নিষ্কাশন ও কুটিয়ালদের ধান-চালের ব্যবসা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এ ছাড়া ওই খালের নাব্যতা সংকটও দেখা দেবে। 

আরও পড়ুন >> কুষ্টিয়ায় ত্রাণ নেওয়ার সময়ে ছবি না তোলায় গায়ে হাত তোলেন চেয়ারম্যান

৪২ ফুট চওড়া একটি খালে কিভাবে মাত্র ১৬ ফুট ব্রিজ নির্মাণ করা হলো এ নিয়ে সচেতনমহলে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে সাইফুল ইসলাম পান্নু জানান, কাণ্ডজ্ঞানহীনভাবে ব্রিজটি নির্মাণের ফলে এলাকার মানুষের উপকারের চেয়ে বেশি ক্ষতি সাধিত হওয়া প্রসঙ্গে তিনি বানারীপাড়ার তৎকালীন প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) অয়ন সাহার কাছে এ বিষয়ে জানতে চান এবং দুদকের কাছে অভিযোগ করবেন বলে জানালে অয়ন সাহা দম্ভোক্তি করে তাকে বলেন, দুদককে ম্যানেজ করেই আমরা চলি। সাইফুল ইসলাম পান্নু আরো জানান, তিনি এ ব্যাপারে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর কাছে লিখিত অভিযোগ করবেন। 

অভিযোগ অস্বীকার করে বর্তমানে উজিরপুর উপজেলায় কর্মরত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) অয়ন সাহা জানান, সাইফুল ইসলাম পান্নুর সঙ্গে তার এ বিষয়ে কোনো কথা হয়নি। তবে ব্রিজের প্রস্তাব তার সময় দেওয়া হলেও নির্মাণ করা হয় তিনি বদলি হওয়ার পর। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ আব্দুল্লাহ সাদীদ জানান, তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।