আসন্ন পবিত্র রমজান উপলক্ষে মানসম্পন্ন পণ্য উৎপাদন এবং বাজারজাত করতে আরও ১১টি প্রতিষ্ঠানকে তাগিদ দিয়ে চিঠি পাঠিয়েছে পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)।

রমজান মাসে ইফতার ও সেহরিতে বহুল ব্যবহৃত হয়-এ রকম পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাতকারী ১১টি প্রতিষ্ঠানকে আজ সোমবার পত্র পাঠানো হয়। বিএসটিআই থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগে গতকাল রোববার প্রাণ ফুডস লিমিটেডসহ বৃহৎ ২০টি প্রতিষ্ঠানকে মানসম্মত পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাত করার তাগিদ দিয়ে পত্র প্রেরণ করা হয়। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানকেও পত্র দেয়া হবে।

১১টি প্রতিষ্ঠান হলো-ড্যানিশ ফুড লিমিটেড, ভিটাল্যাক ডেইরি অ্যান্ড ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, প্রিন্স ফুড প্রোডাক্টস লিমিটেড, এসিআই লজিস্টিকস লিমিটেড (স্বপ্ন), মিনা সুইটস অ্যান্ড কনফেকশনারি লিমিটেড, পারটেক্স ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড, দেশবন্ধু ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, ওয়েল ফুড অ্যান্ড বেভারেজ কোম্পানি লিমিটেড, রস লিমিটেড এবং ওমেগা ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেড।

প্রতি বছর পহেলা বৈশাখ ও রমজান মাসসহ বিভিন্ন উপলক্ষে খাদ্যসহ বিভিন্ন পণ্যের চাহিদা প্রচুর বৃদ্ধি পাওয়ায় একশ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী নিম্নমানের ও মেয়াদহীন দেশীয় এবং আমদানিকৃত পণ্য বিক্রি/বিতরণের অপচেষ্টা চালায়। এ ধরনের অপতৎপরতা রোধকল্পে বিএসটিআই প্রতিটি দিবস উপলক্ষের আগেই বাজারসহ বিভিন্ন আমদানিকারক ও উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানে সার্ভিল্যান্স কার্যক্রম জোরদার করে।

বিএসটিআই জানিয়েছে, প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও বিশেষ পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে আজ রাজধানীর মগবাজার, রামপুরা, হাজীপাড়া ও গুলশান এলাকার সুপারশপ এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকানগুলোতে সচেতনামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। এ সময় প্রতিষ্ঠানগুলোকে বিএসটিআইয়ের বাধ্যতামূলক পণ্য বিক্রি/বিতরণে সার্টিফিকেশন মার্কস (সিএম) লাইসেন্স সমন্ধে নিশ্চিত হওয়ার জন্য লাইসেন্সের কপি এবং আমদানিকৃত পণ্যের ক্ষেত্রে বিএসটিআই প্রদত্ত ছাড়পত্রের কপি সংগ্রহ এবং মেয়াদবিহীন কোনো পণ্য বিক্রি/বিতরণ হতে বিরত থাকার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়।