বিশ্বব্যাপী ভায়াল থাবা বসিয়েছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। মনে হয় যেন দরজার বাইরেই ঘাপটি মেরে বসে আছে করোনার জীবাণু। কম্পিউটারের মাউস, নোংরা ফেলার জায়গা, বিছানা ও দরজার হাতল; যেকোনো জায়গা থেকে ছড়াতে পারে মহামারিতে রূপ নেওয়া এই ভাইরাস।

এ জন্য চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা বলছেন, ঘরের বাইরে বের হলে মাস্ক পরতে এবং ঘন ঘন সাবান-পানি বা স্যানিটাইজার দিয়ে হাত জীবাণুমুক্ত করতে। এছাড়া করোনা ঠেকাতে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতেও বলা হচ্ছে। তবে এবার বলা হচ্ছে, করোনা ঠেকাতে বাইরে বের হলে সব সময়ই এক জোড়া জুতাই পরতে।

ভাইরোলজিস্টদের মতে, করোনার এই দুঃসময়ে ঘর থেকে বের হলে এক জোড়া জুতাই সব সময় পরবেন। আর বাইরে থেকে ফিরে এসে দ্রুত জুতা খুলে নিরাপদ জায়গায় রেখে দিন। তবে যে জায়গায় একবার রাখবেন, সেই জায়গায়ই বার বার রাখতে হবে। তার আগে জীবাণুনাশক দিয়ে জুতা ভালো করে পরিষ্কার করতে হবে। নাহলে জুতায় থাকা ভাইরাস বাড়ির ভেতরে ঢুকে যেতে পারে। আর জুতায় তিন থেকে পাঁচদিন বেঁচে থাকতে পারে করোনা ভাইরাস।

যুক্তরাজ্যের সেন্টারে ফর এনভায়রনমেন্ট, ফিশারিজ অ্যান্ড একুয়াকাল্টুরে সাইন্সের ওয়েমথ ল্যাবরেটরির ভাইরোলজিস্ট ড. লিসা ক্রস জানান, জুতায় তিন থেকে ৫ দিন বেঁচে থাকে মারণ ভাইরাস করোনা। তাই তিনি করোনা এই সময়ে মাত্র এক জোড়া জুতা পরতে বলেছেন। তিনি বলেন, বাইরে যাওয়ার সময় প্রতিদিনই এক জোড়া জুতা পরে বের হন। আবার সেই জুতাই পরে বাসায় ফিরেন। এরপর জুতা প্রতিদিনই একই স্থানে রাখুন।

খাবার বা পণ্য সামগ্রী জীবাণুমুক্ত রাখতেও তিনি পরামর্শ দিয়েছেন। লিসা ক্রস জানান, অনলাইনে খাবার বা পণ্য সামগ্রী কেনার পর বা মুদির দোকান থেকে খাবার বা পণ্য সামগ্রী কেনার পর অবশ্যই ভালো করে সাবান-পানি দিয়ে পরিষ্কার করুন। আর খাবার মুড়ে দেওয়া আগের প্যাকেটটি দূরে সরিয়ে রাখুন। নতুন পাত্রে খাবারগুলো রাখুন।

সূত্র: ইন্ডিপেন্ডেন্ট।