স্টাফ রিপোর্টার : ত্রাণের চাল চুরি, ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ নিয়ে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের বক্তব্য অসত্য ও দুর্ভাগ্যজনক। তথ্যমন্ত্রীর বক্তব্য প্রকৃত চালচোরদের পরিচয় আড়াল করেছে। এমন বক্তব্য ১৪ দলের শরিক জাসদের।

আজ শনিবার এক বিবৃতিতে জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি ও সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি এমন বক্তব্য জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে জাসদের নেতাদ্বয় ‘ত্রাণের চাল চুরির সাথে জাসদ, জাতীয় পার্টি, বিএনপির চেয়ারম্যান-মেম্বাররা জড়িত’ এবং ‘ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভের পিছনে রাজনৈতিক ইন্ধন আছে’ এমন বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করেছেন।

আরও পড়ুন >> সরকার করোনাভাইরাসের সংক্রমণকে ‘সিরিয়াসলি’ নেয়নি : ফখরুল

তারা বলেন, তথ্যমন্ত্রীর এ বক্তব্য শুধু সত্যের অপলাপই নয়, অপ্রয়োজনীয়ও বটে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যখন সামনে থেকে করোনা সংকটের কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলা করছেন তখন তার মন্ত্রীসভার কোনো সদস্যেরই কাজ করা বাদ দিয়ে এমন কোনো অপ্রয়োজনীয় কথা বলা উচিৎ না। যা প্রধানমন্ত্রীর কাজ ও কথার সাথে অসঙ্গতিপূর্ণ এবং যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টার বিশ্বাসযোগ্যতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করার সুযোগ তৈরি করে।

জাসদ নেতৃদ্বয় বলেন, কারা ত্রাণের চাল চুরি করেছে তা জনগণের সামনে প্রকাশিত। চালচুরির ঘটনা মূলধারার গণমাধ্যমের কড়া নজরদারির বাইরে না। গণমাধ্যম তা প্রকাশও করছে। মাঠপ্রশাসন, পুলিশসহ আইনশৃংখলা রক্ষা বাহিনী, গোয়েন্দাসংস্থা, দুদকসহ সরকারি, আধা সরকারি, বেসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা ত্রাণ বিতরণ কাজের উপর কড়া নজরদারি রাখছে। তাই ত্রাণের চালচুরির ঘটনার সাথে যুক্ত কেউই রেহাই পায়নি, পাবেও না। এরকম পরিস্থিতিতে তথ্যমন্ত্রীর বক্তব্য চালচোরদের পরিচয় আড়াল ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে চিহ্নিত চালচোরদের পক্ষে নির্লজ্জ সাফাইয়ে পরিণত হয়েছে।

জাসদ নেতৃদ্বয় দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্য ও মন্তব্য প্রদান না করার জন্য তথ্যমন্ত্রীসহ দায়িত্বপ্রাপ্তদের প্রতি আহবান জানান।