দেশে করোনাভাইরাস এর সামাজিক সংক্রমণ এবং এ কারণে উদ্ভূত চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার লক্ষ্যে বিশেষজ্ঞ সমন্বয়ে ১৭ সদস্য বিশিষ্ট জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটি গঠন করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের সভাপতি এবং সিনিয়র শিশু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডাক্তার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ কে সভাপতি এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক রোগতত্ত্ব রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) এর পরিচালক অধ্যাপক ডাক্তার মীরজাদী সে‌ব্রিনা ফ্লোরাকে এ কমিটির সদস্য-সচিব করা হয়।

আজ (১৮ এপ্রিল) রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের উপসচিব পার-১ উপসচিব শামীমা নাসরিন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপন জারি হয়।

কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন বিএসএমএমইউ’র সাবেক উপাচার্য ভাইরোলজি অধ্যাপক ডা: নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ ডায়াবেটিক এসোসিয়েশনের সভাপতি প্রফেসর ডা: এ কে আজাদ খান, সিনিয়ার প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার শাহলা খাতুন, বিএসএমএমইউ গ্যাস্ট্রোএন্টা‌রোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ও প্রাক্তন ভিসি প্রফেসর ডা: মাহমুদ হাসান, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশনের সভাপতি ডা: মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বিএসএমএমইউ’র সাবেক উপাচার্য নাক কান গলা বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা: প্রাণ গোপাল দত্ত,স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ডা: ইকবাল আর্সলান, সিনিয়র প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ এবং ওজিএসবি সাবেক সভাপতি প্রফেসর ডা: রওশন আরা বেগম, আইসিডিডিআরবির ম্যাটারনাল অ্যান্ড চাইল্ড হেলথ রিসার্চ সিনেমার পরিচালক ডাক্তার শামস এল আরেফিন, সিনিয়র এনেসথেল‌জিস্ট প্রফেসর ডা: খলিলুর রহমান, সিনিয়র মেডিসিন স্পেশালিস্ট প্রফেসর ডা: তারিকুল ইসলাম, বিএসএমএমইউ এর মাইক্রোবায়োলজি ও ইমিউনোলজি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা: হুমায়ুন সাত্তার,জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সাবেক বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডা: মোঃ গোলাম মোস্তফা, আইইডিসিআর এর সাবেক পরিচালক প্রফেসর ডা: মাহমুদুর রহমান ওজাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সাবেক পরিচালক প্রফেসর ডা: মোহাম্মদ আবদুল মুহিত।

কমিটির কার্যপরিধিতে বলা হয় তারা সরকারকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও হাসপাতালে সেবার মান বৃদ্ধির বিষয়ে পরামর্শ প্রদান করবে। যেসকল চিকিৎসক স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করছেন তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধির বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারকে পরামর্শ প্রদান করবেন। স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী চিকিৎসকসহ অন্যান্যদের উৎসাহ প্রদানে কি কি ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায় ,করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন সংক্রান্ত গবেষণার বিষয় পরামর্শ প্রদান করবেন।

গত ২৮ মার্চ জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়। জনস্বাস্থ্যবিষয়ক বিশেষজ্ঞ কমিটি এবং এ কমিটি উভয় প্রয়োজনবোধে যেকোনো কমিটির একাধিক সদস্যের সঙ্গে মতবিনিময় করতে পারবে। কমিটি প্রয়োজনবোধে সদস্য বৃদ্ধি করতে পারবে।