?????????????????????????????????????????????????????????

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সৃষ্ট দুর্যোগে চলতি মাস (এপ্রিল) থেকে আগামী জুন পর্যন্ত ত্রাণ গ্রহণকারী উপকারভোগীর সংখ্যা এবং প্রয়োজনীয় ত্রাণের পরিমাণ নির্ধারণে একটি কমিটি গঠন করেছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের কর্মকর্তাদের নিয়ে এই কমিটি গঠন করে আদেশ জারি করা হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. আকরাম হোসেন ১১ সদস্যের এই কমিটির আহ্বায়ক। সদস্য হিসেবে রয়েছেন- দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মোয়াজ্জেম হোসেন ও রওশন আরা বেগম, উপসচিব এ কে এম মারুফ হাসান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের পরিচালক মো. ইফতেখারুল ইসলাম ও হাবিবুল্লাহ বাহার, ত্রাণ সচিবের একান্ত সচিব শাব্বির আহমেদ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব মো. শাহজাহান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রোগ্রামার মোহাম্মদ আব্দুল কাদের।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম কমিটিতে সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান এবং অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক এস এম হুমায়ূন রশিদ তরুণ কমিটিকে সাচিবিক সহায়তা দেবে।

কমিটি সব বিভাগ থেকে প্রাপ্ত সারাদেশের উপকারভোগীর তালিকা এবং এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত ত্রাণ দিতে কত চাল লাগবে সেই পরিমাণ নির্ধারণ করে প্রতিবেদন দেবে।

দেশে করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর কর্মহীন ও দুস্থ মানুষকে সহায়তার জন্য ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে আট দফায় ৬৪ জেলার দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সহায়তার জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে ৪৭ কোটি ৩৫ লাখ ৭২ হাজার ২৬৪ টাকা (শিশুখাদ্য কেনাসহ) ও ৯৪ হাজার ৬৬৭ টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়।