স্টাফ রিপোর্টোর : সাভারে রানা প্লাজা ধসে ১ হাজার ১৩৬ জনের মৃত্যুর ঘটনার ৭ বছর পূর্ণ হচ্ছে আজ শুক্রবার। এ উপলক্ষে প্রতি বছ ধসে পড়া রানা প্লাজার সামনে বর্ষপূর্তি পালন করতো বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন। কিন্তু বর্তমান বিড়াজিত করোনাভা্ইরাসের কারণে সকল কর্মসূচী স্থগিত ও নিহত শ্রমিকদের প্রতি শ্রদ্ধা ঘরে বসে জানানোর আহবান করছে সাভার-আশুলিয়া ২৫টি শ্রমিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) বিকেলে আশুলিয়ার ধামসোনা ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের সাথে বৈঠকের পর এ ঘোষণা দেন তারা।

এসময় শ্রমিক সংগঠনের নেতারা করোনা পরিস্থিতি জন্য তাদের সকল কর্মসুচী স্থগিত করেন। শুধু তাই নয়, শ্রমিকদের সাভারে রানা প্লাজার সামনে জড়ো না হবার আহবানও জানান তারা। সামাজিক যোগাযোগে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে ব্যতিক্রমভাবে কর্মসূচী পালনের কথাও জানান তারা।

এ বিষয়ে গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল মামুন মিন্টু জানান, বিশ্বজুড়ে মহামারি করোনার প্রভাবে দেশ, জাতি ও শ্রমিকদের কল্যানে রানা প্লাজার সকল কর্মসূচী স্থগিত ঘোষনা করেছি। যাতে করে সামাজিক দুরুত্ব বজায় থাকে।

বস্ত্র ও পোশাক শিল্প শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সারোয়ার হোসেন শ্রমিকদের অনুরোধ করে জানান, বিশ্বব্যাপী করেনায় ফলে ঘরে বসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হতহাত শ্রমিকদের প্রতি আপনাদের সমবেদনা প্রকাশ করবেন। তিনি রানা প্লাজার স্মৃতিসম্ভ না যাওয়া অনুরোধ করেন শ্রমিকদের ।

পাশাপাশি রানা প্লাজার বর্ষপূর্তির সব ধরনের কর্মসূচী বাতিল করাও ঘোষণা দেন তিনি। জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের আহবানের পাশাপাশি নিজেদের নৈতিক অবস্থান থেকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান।

এ বিষয়ে মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, করোনার এই পরিস্থিতি কোন কর্মসূচী পালন করলে সামাজিক দুরুত্ব বজায় থাকবে না। এতে করে করোনার মাহামারি আকার ধারন করতে পারে। এই আহবানে সাভার-আশুলিয়ার ২৫ টি শ্রমিক সংগঠন সাড়া দিয়ে তাদের সকল কর্মসূচী বাতিল করেছেন।

পরে রানা প্লাজা ও তাজরীনের হতাহত পরিবারের জন্য শ্রমিক প্রতিনিধির হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন ধামসোনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ।