কক্সবাজার সংবাদদাতা : কক্সবাজারের রামুতে ডিবি পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আব্দুর রশিদ ওরফে খোরশেদ (৩০) নামে এক রোহিঙ্গা মাদক কারবারি নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) মধ্যরাতে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রামুর জোয়ারিয়ানালা রাবার বাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুর রশিদ ওরফে খোরশেদ কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরের সি-২ ব্লকের বাসিন্দা মৃত নজির আহমদের ছেলে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ৩০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি মোটরসাইকেল ও একটি দেশীয় তৈরি এলজি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ডিবি পুলিশ।

কক্সবাজার জেলা ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর মানস বড়ুয়া জানান, ইয়াবার চালান হাত বদলের খবর পেয়ে রাতে ডিবি পুলিশ অভিযানে যায়। রামুর রাবার বাগান এলাকায় একদল মানুষকে সন্দেহ হলে তাদের চ্যালেঞ্জ করে পুলিশ। কিছু বুঝে ওঠার আগেই তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষায় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। কিছুক্ষণ পর গোলাগুলি থামলে ঘটনাস্থলে গিয়ে গুলিবিদ্ধ ওই যুবকের মরদেহ, ইয়াবা, মোটরসাইকেল এবং অস্ত্র পাওয়া যায়।

তিনি আরও জানান, মরদেহটি উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।