প্রায় প্রত্যেককের রান্নাঘরেই রান্না ও বেকিংয়ের কিছু প্রয়োজনীয় উপকরণ থাকবেই। তেমনি একটি ব্যবহার্য উপকরণ হচ্ছে ইস্ট। পাউরুটি তৈরিসহ বিভিন্ন ঘরানার খাবার বেক করার কাজে ইস্ট ব্যবহার করা হয়।

অনেকেই ইস্ট কিনে দীর্ঘদিন ব্যবহার না করেই রান্নাঘরে ফেলে রাখেন। এখন প্রশ্ন হচ্ছে ফেলে রাখা এই ইস্ট ব্যবহারযোগ্য আছে কিনা তা কীভাবে বুঝবেন? এটা জানার খুব সহজ একটি উপায় হল ইস্টের পরীক্ষা। চলুন জেনে নেয়া যাক বিস্তারিত-

ইস্টের পরীক্ষা কী?

ইস্টের পরীক্ষা হলো ছোট একটি কৌশল যার মাধ্যমে সহজেই নির্ণয় করা সম্ভব ঘরে থাকা ইস্টটি ব্যবহারযোগ্য আছে কিনা। যেহেতু ইস্ট মূলত একটি জীবন্ত উদ্ভিজ ঘরানার উপাদান, এটা দীর্ঘদিন ভালো থাকার পরেও সঠিক স্থানে ও পরিবেশে রাখা না হলে নষ্ট হয়ে যেতে পারে সহজেই। এই পরীক্ষার মাধ্যমে যদি দেখা যায় যে ইস্টের ফার্মেনটেশন প্রক্রিয়া সচল আছে এবং তা বুদবুদ তৈরি করতে পারছে, তবে বুঝতে হবে যে ইস্টটি ভালো আছে এবং ব্যবহার করা যাবে।

যেভাবে ইস্টের পরীক্ষা করবেন 

এই পরীক্ষার জন্য চারটি জিনিস প্রয়োজন হবে- ইস্ট, কুসুম গরম পানি, চিনি ও একটি কাপ।

পরীক্ষার জন্য অর্ধেক কাপ পানিতে এক চা চামচ চিনি গুলিয়ে এতে এক থেকে দেড় চা চামচ পরিমাণ ইস্ট মিশিয়ে রেখে দিন দশ মিনিটের জন্য। দশ মিনিটের মধ্যে কাপের ভেতর ইস্ট ফোমের মত টেক্সচার ধারণ করবে এবং চিনিকে ফারমেন্ট করে ফেলবে। এমনটা হলে বুঝতে হবে ইস্ট ব্যবহারযোগ্য এবং ঠিক আছে।

যদি ১০ থেকে ১৫ মিনিট পার হয়ে যাওয়ার পরেও মিশ্রণে কোনো পরিবর্তন না আসে তবে বুঝতে হবে ইস্ট নষ্ট হয়ে গেছে এবং এটা আর ব্যবহার করা যাবে না।

সাধারণত সব শুষ্ক ইস্টের মেয়াদ থাকে ১২ মাস পর্যন্ত। ইস্টের প্যাকেট বা কৌটা খোলার পর রেফ্রিজারেটরের শুষ্ক স্থানে সংরক্ষণ করলে তা সম্পূর্ণ ভালো থাকবে।