ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা : ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আমির হোসেন খুনের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত মামুন মিয়া (৩০) ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন। সোমবার (২০ জুলাই) ভোরে সদর উপজেলার মাছিহাতা ইউনিয়নের চান্দপুর বাজারের কাছে র‍্যাব-১৪ এর ভৈরব ক্যাম্পের সদস্যদের সঙ্গে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত মামুন চান্দপুর গ্রামের মুছা মিয়ার ছেলে।

র‍্যাবের ভৈরব ক্যাম্পের সহকারী পরিচালক চন্দন দেবনাথ জানান, মামুনকে ধরতে র‍্যাবের একটি দল চান্দপুর বাজারের কাছে অভিযান চালায়। এ সময় মামুনের সহযোগীরা র‍্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। র‍্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হন মামুন। পরে তাকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কতর্ব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, চার রাউন্ড গুলি ও একটি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানান র‍্যাব কর্মকর্তা চন্দন দেবনাথ।

এর আগে গত শুক্রবার (১৭ জুলাই) বিকেলে চান্দপুর বাজার থেকে অস্ত্র, মাদক ও ডাকাতি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি মামুন মিয়াকে গ্রেফতার অভিযানে যান সদর মডেল থানা পুলিশের এএসআই আমির হোসেন ও মণি শঙ্কর চাকমা। এ সময় ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে আমিরের বুকে ছুরি চালিয়ে দেন মামুন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় আমিরকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই মামুনকে প্রধান আসামি করে পাঁচজনের বিরুদ্ধে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন এএসআই মণি শঙ্কর চাকমা।