ক্রিকেটের সবচেয়ে কঠিন ফরমেট টেস্ট। পেসারদের জন্য তো আরও কঠিন। দীর্ঘ ফরমেটের ক্রিকেটে ক্যারিয়ার লম্বা করা তাদের বড় এক চ্যালেঞ্জ। সবাই সেই চ্যালেঞ্জ নিতে পারেন না।

টেস্ট ইতিহাসে ৫০০ উইকেট পাওয়া বোলারদের সংখ্যা মাত্র সাতজন। এর মধ্যে সর্বশেষ সংযোজন স্টুয়ার্ট ব্রড। পেসারদের মধ্যে তার আগে পাঁচশ ছুঁতে পেরেছেন মাত্র তিনজন। চতুর্থ পেসার হিসেবে উঠে আসবে কার নাম?

৩৪ বছর বয়সী স্টুয়ার্ট ব্রড নিজে মনে করেন, আর কোনো পেসারই সম্ভবত সামনে এই মাইলফলক ছুঁতে পারবেন না। বিশ্ব ক্রিকেট ক্যালেন্ডার যেভাবে বদলে যাচ্ছে, তাতে সামর্থ্য থাকলেও অনেকে এত দূর আসতে পারবেন না বলে মত ইংলিশ পেসারের।

ব্রড বলেন, ‌‘কেউ এটা করতে হলে তাকে অনেক ক্রিকেট খেলেই করতে হবে। কারণ এখন প্রতিযোগিতা অনেক বেশি। বিশ্বজুড়ে অনেক অনেক ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ, ১০০ বলের ক্রিকেটও আসলো।’

ইংলিশ পেসার যোগ করেন, ‘আমি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করি যে ইংল্যান্ডের হয়ে এমন এক যুগ পেয়েছি, যখন আমরা গ্রীষ্ম কিংবা শীত মৌসুমে অনেক টেস্ট খেলেছি। আমার মনে হয়, গ্রীষ্মে টেস্ট কমিয়ে ফেলার কথা এখন আলোচনা হচ্ছে।’

টেস্ট সংখ্যা কমে গেলে ৫০০ উইকেট পাওয়া যে কোনো বোলারের জন্যই কঠিন হবে, মনে করেন ব্রড। তার ভাষায়, ‌‘৫০০ উইকেট পেতে হলে আপনাকে অনেক টেস্ট খেলতে হবে। আমি মনে করি, অনেকেই আসবে যাদের এটা করার সামর্থ্য আছে কিন্তু তারা এতগুলো টেস্ট খেলতে পারে কি না, আর কোনো পেস বোলার এমন অর্জন করতে পারে কি না, দেখার আছে।’

ইংল্যান্ড দলে ব্রডের দীর্ঘদিনের পেস-সঙ্গী জেমস অ্যান্ডারসন ৫০০ উইকেটের ক্লাব পেরিয়ে ছুটছেন প্রথম পেসার হিসেবে ৬০০ উইকেটের দিকে। ব্রড কি সতীর্থকে ছোঁয়ারও স্বপ্ন দেখেন?

সম্ভাবনা উড়িয়ে দিতে নারাজ ব্রড। তিনি বলেন, ‘আমি এটা নিয়ে ভাবিনি। তবে অ্যান্ডারসনের মতো হতে চেষ্টা কেন করব না? তার সঙ্গে খেলতে পারাটা দারুণ। আমার বোলিংয়ের এই ধারাটা যদি ধরে রাখতে পারি, তবে আগামী কয়েক বছরে কি হয়, বলা তো যায় না!’