বুধবার রাতেই বোর্ড থেকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী ১৮ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) ক্রিকেটারদের করোনা টেস্ট হবে। আগে কথা ছিল, শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য মনোনীত ২১ জনের যারা শুক্রবারের টেস্টে ‘করোনা নেগেটিভ’ হবেন, তারা টিম হোটেলে উঠবেন ২০ সেপ্টেম্বর (রোববার), পরদিন থেকে অনুশীলন শুরুরও পরিকল্পনা ছিল।

কিন্তু যেহেতু শ্রীলঙ্কা সফর এখন অনিশ্চয়তার মুখে, তাই দল ঘোষণা হয়নি এখনও। তাহলে শুক্রবার কাদের কোভিড-১৯ টেস্ট করানো হবে? এ প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে গিয়ে খানিক সংশয়ে ছিলেন খোদ বিসিবি প্রধান চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরীও।

সঙ্গে আলাপে তিনি জানিয়েছিলেন, আমরা ক্রিকেট অপারেশনসের দিকে তাকিয়ে আছি। তারা তালিকা দিলেই আমরা বারডেমের মাধ্যমে করোনা টেস্ট পরিচালনা করব।

রাত পোহাতেই নির্ভার দেবাশিষ চৌধুরী। আর সংশয়ের কিছু নেই। প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানিয়ে দিয়েছেন, শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য যে ২৭ জনের জিও (গভর্নমেন্ট অর্ডার) করানো হয়েছিল, তাদেরই করোনা টেস্ট হবে শুক্রবার।

এই করোনা টেস্টের জন্য সাময়িক বন্ধ রাখা হয়েছে ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন। আজ থেকে শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত হোম অব ক্রিকেটে ব্যক্তিগত অনুশীলনে দেখা যাবে না মুশফিক, তামিম, রিয়াদ, মুমিনুলদের।

এদিকে পূর্ব ঘোষিত সূচিতে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে শ্রীলঙ্কাগামী জাতীয় দলের বহরের হোটেলে ওঠার কথা ছিল। ২১ সেপ্টেম্বর থেকে শেরে বাংলায় আনুষ্ঠানিকভাবে অনুশীলন শুরুর পরিকল্পনা ছিল। এর তিনদিন পর ২৪ সেপ্টেম্বর শেষবার করোনা টেস্ট করে নেগেটিভদের নিয়ে ২৭ তারিখ কলম্বো যাত্রার সব কিছু ঠিক করা ছিল।

এখন করোনা টেস্ট করিয়ে রাখা হচ্ছে ঠিক, বাকি সূচিগুলো ঠিক থাকবে কি না, তা নির্ভর করবে আসলে সফর হওয়া না হওয়ার ওপর। লঙ্কান বোর্ড কাল-পরশুর মধ্যে ইতিবাচক জবাব দিলে সফর বহাল থাকবে। আর নেতিবাচক জবাব আসলে আপনা আপনি সফর বাতিল হয়ে যাবে। তখন আর টেস্টে উত্তীর্ণদের হোটেলে ওঠার প্রশ্নই আসবে না।