রাজধানীর হাজারীবাগের বউবাজার এলাকার একটি বাসা থেকে সীমা খাতুন (৩০) নামের এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশের ধারণা, তাকে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে সন্তানদের নিয়ে পলাতক রয়েছেন তার স্বামী।

শনিবার (১৭ অক্টোবর) হাজারীবাগের বউবাজার এলাকার ৫৩/৩ নম্বর বাসার দোতলা থেকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

হাজারীবাগ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সাইফুল ইসলাম জানান, নিহতের নাকে রক্ত ও মুখে ফ্যানা দেখা গেছে। তার বুক, পেট ও পিঠে রক্তের জমাট বাধা, দুই হাতের আঙুল ও নখে কালচে দাগ রয়েছে।

তিনি আরও জানান, স্বামী বশিউর রহমান এবং এক ছেলে ও দুই মেয়ে নিয়ে ১৫ দিন আগে ওই বাসায় ভাড়া উঠেন সীমা খাতুন। তার স্বামী পেশায় একজন রিকশাচালক। ঘটনার পর থেকে স্বামী ও সন্তান কাউকেই ওই বাসায় পাওয়া যাচ্ছে না।

প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তার স্বামী তাকে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে সন্তানদের নিয়ে পালিয়ে গেছেন।

মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।