স্পোর্টস ডেস্ক:পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) পঞ্চম আসর পুরোটাই অনুষ্ঠিত হয়েছে পাকিস্তানের মাটিতে। যদিও করোনাভাইরাসের কারণে প্লে-অফ শুরুর আগেই লিগ স্থগিত ঘোষণা করতে বাধ্য হয়েছে। অবশেষে পিএসএলের বাকি অংশ শেষ করার উদ্যোগ নিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে প্লে-অফ এবং ফাইনালসহ মোট চারটি ম্যাচ আয়োজন করার পরিকল্পনা নিয়েছে পিসিবি। এ জন্য নতুন করে প্লেয়ার ড্রাফটের আয়োজন করা হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে বেশ কিছু বিদেশি ক্রিকেটারকেও রাখা হয়েছে। যাদের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক ফ্যাফ ডু প্লেসিও রয়েছেন।অর্থ্যাৎ, পাকিস্তানের মাটিতে গিয়ে খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক। তিনি পেশোয়ার জালমির হয়ে খেলবেন বলে জানা গেছে। আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলেছেন ফ্যাফ ডু প্লেসি।মোট ২১জন বিদেশি পিএসএলের প্লে অফ খেলতে পাকিস্তান আসবেন। যাদের মধ্যে ১৩জনই হচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ইংল্যান্ডের। এই ২১জন বিদেশির মধ্যে আবার বেশ কয়েকজন রয়েছেন পিএসএলের গ্রুপ পর্বে খেলেননি, প্লে-অফে নতুন অন্তর্ভূক্ত হয়েছেন। বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল খেলবেন লাহোর কালান্দার্সের হয়ে। এছাড়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ খেলবেন মুলতান সুলতানের হয়ে।ইংলিশ ওপেনার অ্যালেক্স হেলস পিএসএলের গ্রুপ পর্ব চলাকালেই করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছিল। তবে প্লে-অফে খেলার জন্য করাচি কিংসে যোগ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। তার সঙ্গী হচ্ছেন মঈন আলি, জেমস ভিন্স এবং ক্রিস জর্ডান।পেশোয়ার জালমির হয়ে খেলবেন বলে বেশ উচ্ছ্বসিত ফ্যাফ ডু প্লেসি। তিনি বলেন, ‘প্লে-অফে পেশোয়ার জালমির সঙ্গে যোগ দিতে পারবো বলে আমি খুবই উত্তেজিত। ২০১৭ সালে বিশ্ব একাদশের হয়ে যখন পাকিস্তান সফরে গিয়েছিলাম, দারুণ কিছু অভিজ্ঞতা অর্জন হয়েছিল আমার। আমি নিশ্চিত সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে এই করোনা পরিস্থিতিতে দারুণ একটি অভিজ্ঞতা নিয়ে ফিরতে পারবো।১৪, ১৫ এবং ১৭ নভেম্বর পিএসএলের বাকি চারটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। ১৪ তারিখ প্রথম দুই ম্যাচ, ১৫ তারিখ শেষ প্লে-অফ এবং ১৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে পিএসএলের ফাইনাল।